• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    বশেমুরবিপ্রবিতে আন্দোলনের ষষ্ঠ দিন, চলছে বিক্ষোভ

    ডেস্ক | ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৪:০৩ অপরাহ্ণ

    বশেমুরবিপ্রবিতে আন্দোলনের ষষ্ঠ দিন, চলছে বিক্ষোভ

    বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে ইতিহাস বিভাগের অনুমোদন না দেওয়ার সিধান্তের প্রতিবাদে ষষ্ঠ দিনেও মিছিলে মিছিলে উত্তাল গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস।


    আজ মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে ইতিহাস বিভাগসহ অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এতে স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠেছে পুরো ক্যাম্পাস। এর আগে শিক্ষার্থীরা তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গণ-স্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করে। দিনব্যাপী চলে এই গণ-স্বাক্ষর কর্মসূচি। তারা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিলও করেছে। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আন্দোলনস্থলে গিয়ে শেষ হয়।


    এদিকে, আন্দোলনের ফলে বিশ্ববিদালয়ের সব ধরনের ক্লাস ও ল্যাব পরীক্ষা বর্জন করেছে শিক্ষার্থীরা। তারা প্রশাসন কার্যক্রমও বন্ধ করে দিয়েছে। প্রশাসন ও একাডেমি ভবনে তালা দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। ইতিহাস বিভাগের অনুমোদন দেওয়াসহ যৌক্তিক দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণায় অনড় শিক্ষার্থীরা।

    বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. শাহজাহান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমি ও প্রশাসন ভবনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তালা দিয়েছে। এই কারণে অফিস বা শ্রেণিকক্ষে কেউ ঢুকতে পারছেন না। শিক্ষার্থীদেরকে তিনি নিজে এবং শিক্ষকদের দিয়ে বোঝানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা যাতে আন্দোলন থেকে সরে গিয়ে শ্রেণিকক্ষে পড়ালেখার জন্য যায়। তা না হলে সেশনজটে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

    গত বৃহস্পতিবার (৬ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) অনুষ্ঠিত এক সভায় গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে ইতিহাস বিভাগে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি না করার নির্দেশ প্রদান করা হয়। সেইসঙ্গে কেবল বিগত তিন শিক্ষাবর্ষে বর্তমান ভর্তি করা শিক্ষার্থীদের অনুমোদন দিলেও ইতিহাস বিভাগের অনুমোদন দেওয়া যাবে না বলে সিদ্ধান্ত হয়।

    ওইদিন খবরটি ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে প্রচণ্ড ঠাণ্ডা উপেক্ষা করে ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থীরা রাতেই প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেন। তারা ইউজিসির নির্দেশনা প্রত্যাখ্যান করে প্রশাসন ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেন। অনির্দিষ্টকালের জন্য অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করে আন্দোলন শুরু করেন তারা। বিভাগটিতে বর্তমানে ৪১৩ জন শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669