শুক্রবার, জুন ১৯, ২০২০

বাড়িওয়ালাদের সিদ্ধান্তে হতাশ বশেমুরবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা

শেখ ফাহিম, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি   |   শুক্রবার, ১৯ জুন ২০২০ | প্রিন্ট  

বাড়িওয়ালাদের সিদ্ধান্তে হতাশ বশেমুরবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা

মহামারী করোনা ভাইরাসের মধ্যে ২৫ শতাংশ মেস ভাড়া মওকুফে নিরাশ হয়ে গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা গনহারে মেস ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অনাবাসিক শিক্ষার্থীরা বাড়িভাড়া মওকুফ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে “প্রতিবাদ করুন বাসা ছাড়ুন, বশেমুরবিপ্রবি” নামে আন্দোলন গড়ে তুলেছেন।
গত ১২ জুন সকাল ১০ টায় নবীনবাগের সুফিয়া মসজিদে বাড়িওয়ালাদের সাথে মেস কিংবা বাসা ভাড়া মওকুফ সংক্রান্ত বিষয়ে গঠিত কমিটির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। উক্ত আলোচনায় এপ্রিল থেকে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার আগ পর্যন্ত ২৫ শতাংশ বাড়ি ভাড়া মওকুফ করা হয় এবং বিদ্যুতের মিটার চার্জ শিক্ষার্থীদের দিতে হবে।
তবে এ সিদ্ধান্ত সন্তুষ্ট জনক নয় বলে জানান নবীনবাগে বসবাসরত শিক্ষার্থীরা।
বশেমুরবিপ্রবি শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি রথীন্দ্রনাথ বাপ্পী জানান, নবীনবাগে মেস ভাড়া নিয়ে যে সিদ্ধান্ত হয়েছে তাতে আমরা হতাশ ও মর্মাহত হয়েছি। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষার্থী নিম্নবিত্ত ও নিম্ন – মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান ফলে করোনার এই দুঃসময়ে অনেক শিক্ষার্থীর পক্ষে ৭৫ শতাংশ ভাড়া দেওয়া কষ্টকর হবে। তাই অধিকাংশ শিক্ষার্থী মেস ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
এদিকে আই আর মাস্টার্সের রিয়াজুল ইসলাম বলেন, গতকাল সকাল ১১টার দিকে অামি বাসা(নড়াইল) থেকে মেসে আসি। মেসে ঢুকেই বাসা মালিক বলে ভাড়া পরিশোধ করে বাসা ছেড়ে দিতে। এর পর মুল ঘটনার সূত্রপাত হয়, যেখানে বাড়ির মালিক বলে আমাকে ফুল পেমেন্ট করে বাসা ছাড়তে হবে। ২৫% ভাড়া কমানোর বিষয়টি বলায় তিনি বলেন- তুমি বাসা ছেড়ে দিয়ে চলে যাচ্ছ এই কারনে।তার পর টিচারদের ও শিক্ষার্থীদের নামে উল্টাপাল্টা কথা বলে
এদিকে অভিযুক্ত বাড়িওয়ালার ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন- মাস্টার্সের রিয়াজুল ইসলাম সহ ৫ জন আমার বাসার নিচ তলায় থাকত।রিয়াজকে সিট ভাড়া দেইনি,দিয়েছি ফ্লাট ভাড়া।চুক্তি সাপেক্ষে বাসা ছাড়ার ১ মাস আগে বলতে হবে।রিয়াজুল চুক্তি ভঙ্গ করে, এ মাসে চলে যেতে চাইলে তাকে সম্পূর্ণ ভাড়া দিয়ে যেতে বলি। এদিকে তার অন্য রুমমেট যখন বলে, তারা ফ্লাটের ভাড়া বহন করতে পারবে না।তখন রিয়াজের সিটের ভাড়া পরবর্তী ছাত্র আসার আগপর্যন্ত মওকুফ করে দেই। ১ মাস আগে বলার বিষয়টা যদি লক্ষ্য করি, তাহলে তার কাছ থেকে পরবর্তী ১ মাসের ভাড়া সহ ৭৫% ভাড়া নেওয়া হয়েছে। আর যদি পরবর্তী ১ মাসের ভাড়া মওকুফ করে চিন্তা করি, তাহলে তার কাছ থেকে মার্চ-জুনের সম্পূর্ণ ভাড়া নিয়েছি। এভাবে চুক্তি ভঙ্গ হলে আমরা বিপাকে পরে যাব বলে মনে করছি।
তিনি আরো বলেন- রিয়াজুল এভাবে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার বিষয়টিকে তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় প্রক্টর মহোদয়ের নিকট ইতোমধ্যে ব্যাপারটি জানিয়েছি।
উল্লেখ্য, গোপালগঞ্জের নবিনবাগে বিভিন্ন বাসায় চুরির ঘটনা ঘটলে আতঙ্কিত শিক্ষার্থীরা অনেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিরছেন।


Posted ৯:১৪ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১৯ জুন ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি) মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১২১৭০৭৭১

E-mail: [email protected] | [email protected]