• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    বাবার সাথে ছবি নিয়ে বিতর্ক: কী বলছেন মীর?

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ২৭ জুন ২০১৭ | ৭:৫৯ অপরাহ্ণ

    বাবার সাথে ছবি নিয়ে বিতর্ক: কী বলছেন মীর?

    ঈদের দিন বাবার সাথে একটি সেলফি নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করেছিলেন মীরাক্কেল খ্যাত ওপার বাংলার উপস্থাপক-অভিনেতা মীর আফসার আলী। ছবিটির ক্যাপশনে লেখা ছিল, ‘আমার আব্বা… আমার আল্লাহ, ঈদ মোবারক’। এই ক্যাপশন নিয়েই শুরু হয় সমালোচনা। এই ক্যাপশনের দ্বারা মীর তার বাবাকে মহান আল্লাহর সাথে তুলনা করেছেন বলে মত দেন অনেকে। শুরু হয় মীরের সেই পোস্টে গালিবর্ষণ এবং হুমকি ধামকি। এত কিছু ঘটনার পর কী বলছেন স্বয়ং মীর?


    ঈদের পরের দিন আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত মীর ছবিটি তার আইডি থেকে প্রত্যাহার করেননি। বরং পরবর্তী পোস্টগুলোতে তিনি তার অবস্থান সম্পর্কে দৃঢ় মনোভাব ব্যক্ত করেছেন। বিষয়টি নিয়ে মীর কোনো মিডিয়ার সাথে সরাসরি কথা বলতে চাননি। তবে ঈদের দিন আরও একটি ভিডিওতে তিনি স্পষ্টই উল্লেখ করেন. “উইথ দিস পোস্ট ফ্রম টুডে, আই অ্যাম রেস্ট্রক্টিং পিপল’স অ্যাকসেস টু কমেন্টিং অন মাই ওয়াল টু জাস্ট ফ্রেন্ডস। ” অর্থাৎ মীরের আইডিতে তার অনুমোদিত ব্যক্তিবর্গ ছাড়া পাবলিকলি কমেন্ট করার সুযোগ থাকছে না।
    মীরের এই ফেসবুক পোস্টটি নিয়েই সৃষ্টি হয়েছে জটিলতার।

    ajkerograbani.com

    আজ মঙ্গলবার একটি পোস্ট মীর মজা করে লিখেছেন, মৌলবাদীদের অমানবিক এই আচরণের মাঝে একটি ইতিবাচক বিষয়ও ঘটছে। ওই পোস্ট দেওয়ার আগে আমার অফিসিয়াল পেইজের সাবস্ক্রাইবার ছিল ৮০৩,০০০ জন। কিন্তু এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮১৩, ০০০ জনে!’ মীরের পাশে দাঁড়িয়ে ইতিমধ্যেই বক্তব্য দিয়েছেন অনেক সংস্কৃতিকর্মী এবং বুদ্ধিজীবিরা।

    গায়ক রূপম ইসলাম বলেছেন, “মীর সমাজের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একজন ব্যক্তিত্ব। সেটা তার কাজ এবং তার ভাবনার জন্য। তিনি যদি কাউকে গালি দিতেন তাহলে ভাবতাম। কিন্তু তার মত একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিকে গালি দিয়েছেন কিছু সামান্য ব্যক্তি! এ বিষয়ে আর কী বলব! মীরকে কোনো কিছু বলার নূন্যতম যোগ্যতা কি ওদের আছে?”

    লেখক আবুল বাশার বলেছেন, “ইসলামেই বলা আছে বাবা-মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত। তাহলে ফেসবুকে মীরের অভিব্যক্তি প্রকাশে সমস্যা কোথায়? যারা মীরকে গালাগালি করছেন তার আংশিক জেনে অথবা না জেনেই বিদ্বেষ ছড়াচ্ছেন। তারা ইসলাম সম্পর্কে সঠিকভাবে জানেই না। ”

    মীরের পক্ষে যুক্তি দেখিয়ে বিখ্যাত লেখিকা তসলিমা নাসরিন ফেসবুকে লিখেছেন, “বাউল-ফকিরেরা, সুফি গায়কেরা অনেক সময় আল্লাহকে অতি ভালোবেসে যা ইচ্ছে তাই বলে ডাকেন। আল্লাহর নাম জিহাদি সন্ত্রাসীরাও নেয়। ‘আল্লাহু আকবর’ বলে চাপাতি চালিয়ে নিরীহ মানুষকে খুন করে। কোথাও ‘আল্লাহু আকবর’ চিৎকার শুনলে মানুষ আজকাল ভয়ে উল্টোদিকে দৌড় দেয়। মীর কোনো দোষ করেন নি। তিনি আল্লাহ নামটিকে কাউকে ঘৃণা করে, কাউকে অবজ্ঞা-অপমান করে, ব্যবহার করেন নি। মীর তাঁর বাবাকে অতি ভালোবেসে ‘আল্লাহ’ বলেছেন। ভালোবাসা অপরাধ হলে মীর অপরাধী। ”

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757