• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    বিনামূল্যের ওষুধ ৫ টাকার জন্য দেয়নি কমিউনিটি ক্লিনিক!

    অনলাইন ডেস্ক | ০৬ এপ্রিল ২০১৭ | ৭:৪৮ অপরাহ্ণ

    বিনামূল্যের ওষুধ ৫ টাকার জন্য দেয়নি কমিউনিটি ক্লিনিক!

    মো. সানাউল্লাহ সাকিব মানিকগঞ্জ জেলার সিঙ্গাইর উপজেলার কাশিমনগর গ্রামের বাসিন্দা। সন্তান অসুস্থ হওয়ায় কাশিমনগর কমিউনিটি ক্লিনিকে গিয়ে সেবার পরিবর্তে হয়েছেন হয়রানির শিকার। এমনকি মাত্র ৫ টাকা দিতে না পারায় ক্লিনিক থেকে পাননি ওষুধও। কিন্তু সরকারি ওষুধ তো বিনামূল্যে দেওয়ার কথা। আর ওষুধ না পেয়ে সন্তান দিনে দিনে হয়েছে আরও অসুস্থ।


    এসব কথাই বলছিলেন অশ্রুসিক্ত মো. সানাউল্লাহ সাকিব।


    শুধু সানাউল্লাহই নন, মোছা. আফরোজা, মোছা. চায়না বেগম, মো. আওলাদ, মোছা. সুরাইয়া বেগম, মো. রফিকুল ইসলাম, আ. রশীদ ও আবু তাহেরসহ আরও অনেকেই বিনামূল্যের ওষুধ না পাওয়ার অভিযোগ করেন।

    বৃহস্পতিবার (০৬ এপ্রিল) সিঙ্গাইর উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) গণশুনানিতে এলাকাবাসীর মুখে উঠে আসে এ ধরনের অর্ধ শতাধিক অভিযোগ। বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় এ গণশুনানির আয়োজন করা হয়।

    দুদকের কমিশনার ড. নাসির উদ্দীন আহমেদ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. সেকেন্দার আলী মোল্লাকে কেন তারা ওষুধ পাননি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এমন ঘটনা ঘটলে সেটি দুঃখজনক। বিষয়টি তদন্তের জন্য কমিটি গঠন করবো। প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করে শাস্তি দেওয়া হবে’।
    ভবিষ্যতে এমন কোনো ঘটনা যেন আর না ঘটে, সেজন্য সতর্ক থাকবেন বলেও জানান ডা. সেকেন্দার।

    জনসাধারণের দুর্ভোগ লাঘবে উপজেলা পল্লীবিদ্যুৎ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতাল, সাব-রেজিস্ট্রি অফিস, ভূমি অফিস, সমাজসেবা অফিস নিয়ে এ শুনানি করা হয়।

    সমাজসেবা অফিসের কর্মকর্তা বাচ্চু মিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বৃদ্ধ মো. আকবর আলী বলেন, ‘বয়স্ক ভাতার কার্ডে ৩ হাজার টাকা দেওয়ার স্বাক্ষর নিয়ে ১ হাজার ২শ’ টাকা দেয়া হয়েছে। কিন্তু কেন? বয়স্ক বলে এভাবে দুর্নীতি করবেন, এটি মেনে নেওয়া যায় না। এভাবে বয়স্কদের সঙ্গে প্রতারণা করা হলে দেশ এগোবে কেমন করে’।

    এমন অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের কমিশনার উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আখিনুর ইয়াসমিনের কাছে ঘটনার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, এমন ঘটনা তার জানা নেই। তবে তিনি জেনে বিষয়টি সম্পর্কে বলতে পারবেন। আর এমন ঘটনা যদি ঘটেই থাকে, তাহলে সেটি অন্যায় হয়েছে।

    বিষয়টি অনুসন্ধানের জন্য সময়ের আবেদন করেন তিনি।

    উপজেলা ভূমি অফিসের মুহুরি সেলিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আক্কাস আলী বিশ্বাস বলেন, ১২ শতাংশ জমি খারিজে ৯ হাজার টাকার চুক্তি করে ৫ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। বাকি টাকা না দেওয়ায় তিনি জমি খারিজ করে দিচ্ছেন না। বাকি টাকা ফেরত চাইলেও এখন হুমকি দেওয়া হয়।

    নিখিল চন্দ্র ভৌমিকের অভিযোগ, তার পৈত্রিক ১৮ শতাংশ জমি খারিজের জন্য গেলে ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করা হয়েছে।
    মো. আ. জলিল অভিযোগ করেন, শায়েস্তা ভূমি অফিসে পর্চা উত্তোলন ও দাগ ভাঙ্গাতে গেলে ৪শ’ টাকা ঘুষ দিতে হয়েছে। এভাবে ভূমি অফিস এখন দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত হয়েছে।

    দুদকের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক নাসিম আনোয়ার এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনার এলিনা আকতার বলেন, তিনি এখানে কয়েক মাস আগে যোগদান করেছেন। এ বিষয়ে তার কিছু জানা নেই। তবে তিনি তদন্ত করে দেখবেন।

    যদি কোথাও কোনো দুর্নীতি হয় তাহলে তাদের আইনের আওতায় আনবেন বলে কথা দেন এলিনা আকতার।

    ৫ বছর আগে বিদ্যুতের খুঁটির জন্য আবেদন করে এখনো পাওয়া যায়নি অভিযোগ করে সফদার হোসেন খান বলেন, ‘পল্লীবিদ্যুৎ অফিসে গেলেই আজ না কাল এমন করা হচ্ছে। সন্তানদের পড়ালেখায় অনেক ক্ষতি হচ্ছে। একজন মুক্তিযোদ্ধা হয়ে আমি কি বিদ্যুতের খুঁটি পাবো না?’

    এমন অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের কমিশনার বিলম্বের কারণ জানতে চাইলে পল্লীবিদ্যুৎ কর্মকর্তা বলেন, এ বিষয়ে তিনি একটি আবেদন পেয়েছেন। খুব শিগগিরই সেবা পাবেন সফদার হোসেন খান।

    গণশুনানি শেষে কমিশনার ড. নাসির ‍উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘দুর্নীতবাজদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। দুর্নীতি করলে বাড়ি পাঠানো হবে। সরকারি চাকরিজীবীদের বাড়ি পাঠানো সবচেয়ে সহজ। সরকারি কর্মকর্তারা যদি দুর্নীতি করেন, তাহলে তাদেরকে জেলে পাঠানো হবে’।

    ‘দুর্নীতি করলে তিনি রাজনৈতিক কর্মকর্তা হন আর যতো বড় কর্মকর্তা হন, কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। কাজেই ভালোভাবে কাজ করুন, না হলে খবর আছে’।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669