সোমবার, ডিসেম্বর ৬, ২০২১

বিরেন্দ্র খাল এখন আবর্জনার ভাগাড়

ডেস্ক রিপোর্ট   |   সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১ | প্রিন্ট  

বিরেন্দ্র খাল এখন আবর্জনার ভাগাড়

বিরেন্দ্র খাল। লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌর শহরের মধ্য দিয়ে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ হয়ে মেঘনায় মিলিত হয়েছে। এক সময়ে প্রবহমান এ খালটিতে ছিল নান্দনিক সৌন্দর্য। কিন্তু এখন অবহেলা-অনাদরে আবর্জনার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে।

নব্বইর দশকেও রাজধানী ঢাকার সঙ্গে লক্ষ্মীপুর রামগঞ্জ উপজেলার বাণিজ্যিক যোগাযোগের সহজ মাধ্যম ছিল এ বিরেন্দ্র খাল। এ খাল দিয়ে মেঘনা নদী হয়ে ছোট-বড় ট্রলারে পণ্যসামগ্রী আনা-নেয়া করতেন ব্যবসায়ীরা। পরবর্তী সময় খালটি অবৈধ দখলদারদের হাতে চলে যায়। বর্তমানে অস্তিত্ব সংকটে রয়েছে ঐতিহ্যবাহী এ খালটি।


রামগঞ্জ পৌর শহরের বিভিন্ন হোটেল-রেস্তোঁরা, আবাসিক এলাকা ও বাজারের বর্জ্য ফেলা হচ্ছে বিরেন্দ্র খালে। এতে খালটি ভরে যাওয়া ছাড়াও দূষিত হচ্ছে পানি। প্রশস্ততা ও গভীরতা কমে বর্তমানে খালটি আবর্জনার স্তূপ দিয়ে পূর্ণ। ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ। ফলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে আশপাশের বসবাসকারীদের।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, কয়েক বছর পূর্বেও এখানকার ব্যবসায়ীরা ট্রলারে করে খালটি দিয়ে মালামাল আনা নেয়া করতেন। বর্ষাকালে খালের পানি দিয়ে তারা গোসল ও গৃহস্থালির কাজ করতেন। তাছাড়া ফসল ফলাতেন খালটির পানি দিয়ে। কিন্তু ময়লা-আবর্জনা ও বর্জ্যে খালটি ভরাট হয়ে তার অস্তিত্ব হারাতে যাচ্ছে।


জানা গছে, দুইশ বছর পুরনো বিরেন্দ্র খালটি সর্বশেষ সংস্কার হয় ১৯৪৭-৪৮ সালে। এরপর আর সংস্কার করা হয়নি।

রামগঞ্জ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি ফারুক আহম্মেদ জানান, এক সময়ের এতিহ্যবাহী খাল এখন অস্তিত্ব সংকটে রয়েছে। রামগঞ্জ পৌরসভা ও প্রশাসনের উদাসীনতায় আজ চরম দুর্ভোগে শিকার হচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এমন অবস্থায় অবৈধ দখল উচ্ছেদ ও খাল সংস্কার করা জরুরি বলে জানান তিনি।

রামগঞ্জ পৌরসভা মেয়র মো. আবুল খায়ের পাটোয়ারী জানান, বিরেন্দ্র খালটির জেলা পরিষদ ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে। অবৈধ দখল উচ্ছেদের বিষয়ে তাদের চিঠি দেওয়া হলেও সাড়া মেলেনি। তাছাড়া খালের যে পরিস্থিতি, একা সংস্কার করা সম্ভব নয়। এ জন্য উপজেলা প্রশাসন, খাল সংস্কারকারি সংস্থা বিআরডি ও ওয়াবদ বিভাগের যৌথ প্রচেষ্টায় খালটি পুনর্জীবিত করা সম্ভব। তাই সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

রামগঞ্জ উপজেলা ইউএনও তাপ্তি চাকমা জানান, বিষয়টি শুনেছি, নান্দনিক সৌন্দর্য হারাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী বিরেন্দ্র খালটি। স্থানীয়রা চরম কষ্টে রয়েছেন। খালটি রক্ষা করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন তিনি।

Posted ৬:১৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১