সোমবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১

বেঁচে থাকাই জীবন নয়: শিহাব আনোয়ার

ডেস্ক রিপোর্ট   |   সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | প্রিন্ট  

বেঁচে থাকাই জীবন নয়: শিহাব আনোয়ার

আপনজন যখন ভুল বোঝে বা অপবাদ দেয় কিংবা অবহেলা করে তখন চোখের পানিও কিন্তু গড়িয়ে পড়তে ভয় পায়। যে মানুষ জীবনের অনেকটা পথ সামনে এগিয়ে আসে সে মানুষ সহজে’ই পেছনে ফিরে যেতে পারে না। চলার পথে এমন কিছু দুঃসময় আসে যে সময়টা নিজের হাত পা নিজের উপর আস্থা হারিয়ে ফেলে। সব মিলিয়ে মানুষ যখন অসহায় তখন খুব কাছাকাছি মানুষগুলোই যত্ন করে পোড়ায়। যে মানুষগোলো আমাদের নীরবতার ভাষা বোঝে না সে মানুষগোলো কখনো চিৎকারের মানেও বুঝেনা। আমাদের নীরবতায় রয়েছে একটা করুণ আকুতি। নীরবতাও একটা ভাষা, যা কোন বর্ণ ব্যবহার করে লিখতে হয়না।

আমার মতো কিছু মানুষ বেশি কিছু চায়না সামান্য কিছু চাওয়া থাকলেও তা তার কপালে তা সয় না। কিছু মানুষ এতোটাই অসহায় – চিৎকার করে কাঁদতে গেলেও ভয় পায়। যারা জীবনে কথা বলতে পারেনি যারা জীবনে কখনো আলো দেখিনি জীবন যাদের সবসময় অন্ধকার তাদের মুখেও রয়েছে ভাষা তাদের অন্তরেও রয়েছে স্বপ্ন। মাঝে মাঝে এমন ভাষাগুলো এমন স্বপ্নগুলোও গভীর থেকে গভীরে লুকাতে বাধ্য হয়। কেবল নিরব থাকলেই সব মেনে নিলাম তা কিন্তু নয়। অধিকাংশ সময় নিরবতার মাঝেও রয়েছে প্রবল ঘৃণা ভরা প্রতিবাদ। মানুষ কখনো স্বাধীন নয়। মানুষ কখনোই মুক্ত হতে পারেনা। প্রতিটি মানুষ পরাধীন। মানুষ -মানুষের কাছে পরাধীন, সমাজের কাছে পরাধীন, সংসার আর সম্পর্ক সব জায়গায় আমরা সবাই পরাধীন। কেউ কেউ সুন্দর চায়, শান্তি চায় -পিছুটান ভুলতে পারেনা তাই শত আঘাত অবহেলা শক্তি থাকা সত্বেও নিরবে চোখ বোঝে মেনে নেয়। তার মানে সে দুর্বল নয়। দুর্বল তো সে-ই মানুষটি যে মানুষটি সব সময় আঘাত করে। যে মানুষটি জবাব দেয়না সে কিন্তু দুর্বল নয়। ধারালো অস্ত্রের আঘাত হয়তো দেহটাকে ক্ষত করে কিন্তু কাছের মানুষের অবহেলা,অপবাদ কথার আঘাত শুধু দেহ নয় মনটাকেও খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে জখম করে। সব ক্ষত কোনো না কোনো সময় শুকিয়ে যায় কিন্তু মনের ভেতরে যে ক্ষতের সৃষ্টি হয় তা কি কখনো শুকায়? তারপরও মানুষকে সব জেনে শুনে বুঝেও বেঁচে থাকতে হয়। পৃথিবীর কারো কষ্ট’ই কেউ বুঝবে না যার যা ব্যথা উপলব্ধিটাও কেবল তার।


প্রতিটি আঘাত’ই কোনো না কোনো বিশ্বাস’কে সমূলে ধ্বংস করে দেয় কাউকে না কাউকে অবচেতন মন থেকে দূরে সরিয়ে দেয়। তবুও আমরা ভালো না থেকেও ভালো থাকি,ঘৃণা রেখেও বলি ভালোবাসি, ব্যথা পেলেও বলি না কিছু হয়নি সব ঠিক আছে। তার একমাত্র কারণ একটু শান্তি চাই,কয়েকটা দিন বাঁচতে চাই। অথচ বেশির ভাগ মানুষ মনের দিক দিয়ে মরে যায় দেহের মৃত্যুর বহু আগেই। যে আঘাত দেয় সেও ভালো নেই আবার যে আঘাত পায় তারও ভালো থাকার কথা নয়। সবাই সবার জায়গায় দাঁড়িয়ে নিজেকে সঠিক মনে করে। তারপরও হিসেবের খাতায় সবাই অসমাপ্ত সবাই অপূর্ণ,সবার ঘরেই দু:খ। প্রকৃত অর্থে কেউ কারো জায়গায় ভালো নেই, কেউ কারো জায়গায় স্বস্থিতে নেই -সব অভিনয়। সবকিছু’ই আরো সহজে মেনে নিতো যদি দেখতে পেতো একজনকে অাঘাত করে অন্যজন বেশ সুখি একজনকে ঠকিয়ে না হয় অন্যজন বেশ আনন্দেই আছে। কিন্তু দিন শেষে দেখা গেলো প্রকৃত সুখ,প্রকৃত জয় কারো ভাগ্যেই জুটেনি। তাই কাউকে দুঃখ দেয়ার আগে, অপবাদ দেয়ার আগে অন্ততঃ একবার ভাবা উচিত বিনিময়ে সেটা হাজার গুন বেশী হয়ে যেন আপনার জীবনে ফিরে আসে। সবাই ভালো থাকুন, ডিপ্রেশন মুক্ত থাকুন। আমি ও আমরা যেন আমাদের সকল ডিপ্রেশন কাটিয়ে উঠতে পারি, আসুন একে অন্যের পাশে দাঁড়িয়ে নিজেকে ডিপ্রেশন মুক্ত করি।

লেখক:
শিহাব আনোয়ার
ফিচার লেখক ও কলামিস্ট


Posted ১২:০৯ পিএম | সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement