• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ভালবাসেন? মেয়েটির দৃষ্টি আকর্ষণে যা করবেন!

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ১৫ মে ২০১৭ | ১২:০৬ অপরাহ্ণ

    ভালবাসেন? মেয়েটির দৃষ্টি আকর্ষণে যা করবেন!

    সে যুগ চলে গেছে অনেক আগেই- যখন পাতার পর পাতা লেখা হয়ে যেত বিরহের ব্যথায় কিংবা প্রথম প্রেমের একটু সাড়া পাওয়ার তাগিদে৷ দিনের পর দিন রাস্তায় দাঁড়িয়ে থেকে প্রেমিকার রহস্যময় হাসি মিললেও আসতো না কোন কাঙ্ক্ষিত জবাব। ওই পাড়ের উত্তর পেতে অপেক্ষা করতে হত দিনের পর দিন৷ কখনো বছরের পর বছর। তসে সেই দিন অনেকটা শেষ। এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যানে শত শত বান্ধবী-বন্ধু জুটে যাচ্ছে নিমিষে। সেখান থেকে ডজন ধরে আসছে প্রেমিক বা প্রেমিকা। ঘরের বউ বা স্বামী সুযোগ পেলে অন্য নারী/পুরুষের ইনবক্ষে খোঁচা মারছেন। পছন্দের জায়গা থেকে ইতিবাচক সাড়া মিললে মুহূর্তে সবকিছু ওলট-পালট হয়ে যাচ্ছে। ভেঙে যাচ্ছে অনেক সংসারও। এখন গভীর রাতে বন্ধুর জন্মদিনের পার্টিতে হাজির হয়ে মদ্যপান করে অবাধ যৌনতায় মিলিত হচ্ছে অবিবাহিত তরুণ-তরুণীরা। এরপরই হচ্ছে স্টেশন বদল। তবে এর মধ্যেই কখনো কখনো অসাবধানতায় থেকে যাচ্ছে গোপন ভিডিওর মতো অযাচিত প্রমাণ। যার ফলে কিছু ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে সবার সামনে চলে আসছে। যৌনতার ঘটনা আদালতে গড়াচ্ছে নানা ধারায়। কখনো এর কারণে ঘটছে আত্মহত্যার মতো ঘটনা। কেউ বলছেন এগুলো সবই যুগের চাহিদা। এই যুগের চাহিদা পূরণ করতে গিয়েই কোথাও আবার গ্রুপ চ্যাটে বন্ধু-বান্ধবীরা মগ্ন হচ্ছে অশ্লীল আলাপচারিতায় যা সামনা-সামনি কখনোই হয়ত সম্ভব হতো না! তাই বলাই যায়, সেই দিন আর নেই। এখন অনেক কিছুই সহজ, অনেক কিছুই হাতের মুঠোয়। এখন সবই বুড়ো আঙুলের ক্ষণিকের ছোঁয়ার অপেক্ষা৷ ব্যস, চোখের পলক ফেলতে না ফেলতেই মনের কথাটি থাকবে না মনে৷ সংগোপনে তা চলে যাবে তাঁর কাছে৷ উত্তরও চলে আসবে সহজে। তবে সবকিছুর মধ্যেই তো ব্যতিক্রম আছে। তাই এখনও অনেক প্রেমিককে অপেক্ষা করতে হয় দিনের পর দিন। পোড়াতে হয় কাঠ-খড়।


    নারীমনের হদিশ পাওয়া কি সহজ কথা? তা হয়তো না৷ কিন্তু প্রেমের মোক্ষম বাণটি চালানোর আগে কিছু কৌশল অবলম্বন করা যায়, যাতে অন্তত মেসেজের মাধ্যমে উত্তর পাওয়ার পথটি আরও সুগম হয় এবং তা যাতে আপনার অনুকূল হয়৷ তেমনই কিছু সূত্র মিলেছে বিশেষজ্ঞদের থেকে –

    ajkerograbani.com

    প্রেমের ক্ষেত্রে প্রথম দর্শন খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ এই বিষয়টি একেবারেই হেলাফেলা করবেন না৷ আর এক্ষেত্রে আপনার হাতিয়ার হবে সোশ্যাল মিডিয়ার প্রোফাইল পিকচার৷ সেটি যেন অবশ্যই আকর্ষণীয় হয়৷ আপনার সেরা দিকগুলি যেন সেখানে প্রতিফলিত হয়৷

    মেয়েদের সবচেয়ে বেশি অপছন্দের বিষয় হলো নিজের ভাললাগার মানুষটির পাশে অন্য কোনও সুন্দরী মহিলাকে দেখা৷ এমনটা হলে মেয়েরা অতিরিক্ত সচেতন হয়ে পড়েন৷ আর প্রেমিকের ক্ষেত্রে বাড়তি যত্নশীল হয়ে পড়েন৷

    অধিকাংশ মেয়েরাই সংবেদনশীল পুরুষ পছন্দ করেন৷ যাঁরা মানুষের পাশাপাশি অন্যান্য পশুপাখিদের প্রতিও উদার হতে পারেন৷ তাই বাড়িতে পোষ্য থাকলে তাঁর সঙ্গে নিজের একটি সুন্দর ছবি আপলোড করতেই পারেন৷

    ভুল করে ঠিক কাজটা করতেই পারেন৷ বুঝলেন না? আরে, ফোনে ভুল নম্বর ডায়াল করে কিংবা ভুল মেসেজ পাঠিয়ে কত সম্পর্কই না ঠিক হয়ে গেছে। আপনি একবার চেষ্টা করে দেখতেই পারেন এই মিষ্টি ভুলটা করে৷

    সম্পর্ক তৈরি করার ক্ষেত্রে দুষ্টু-মিষ্টি মেসেজের তুলনা নেই৷ আজকাল মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপে তো হামেশাই এমন বার্তা পাওয়া যায়৷ তবে নারীদের পাঠানোর ক্ষেত্রে অবশ্যই শালীনতা বজায় রাখবেন৷

    সবার আগে মনে রাখবেন, সম্পর্ক গড়ার উদ্দেশ্য যেন অসৎ না হয়। তাতে ভালবাসার সংজ্ঞা বদলে যাবে। কাউকে বঞ্চিত করার অর্থ নিজে বঞ্চিত হওয়ার রাস্তা তৈরি করাও।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757