• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ভৈরব নদে জমি হারানোদের মানববন্ধন

    খালিদ ফেরদৌস | ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৫:৫৬ অপরাহ্ণ

    ভৈরব নদে জমি হারানোদের মানববন্ধন

    যশোর এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি দিলো ঐতিহ্য ও প্রাণ ভৈরব নদ খনন করে পুরোনো গৌরব ফিরিয়ে আনা। এক সময় নদটিতে ছোট বড় বড় জাহাজ চলত, ব্যবসা-বাণিজ্যে যার অবদান ছিলো অপরিসীম। নদটি সারাবছর পানিতে ভরপুর থাকত; যার ফলে এলাকার মানুষের মাছের চাহিদা মিটত এখান থেকে। যা এক সময় ইতিহাস হয়ে যায়। নদটি মরে বেদখল হয়ে যায়। তাই এলাকার মানুষের দাবির প্রতি সম্মান জানিয়ে বর্তমান সরকার নদটি খননের উদ্যোগ নেয়। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড খনন কাজ সম্পন্ন করে।


    যশোরে ভৈরব নদ খনন পরবর্তী নদের দুই পাড়ে সাধারণ মানুষ বিশেষ করে কৃষকদের সিএস, এসএ, এবং আরএস রেকর্ডের বরাত ধরে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক দখলে নিয়ে বৃক্ষরোপণ করেছে। ভৈরব নদ খননের নামে মালিকানা জমি দখলের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকালে যশোর সদর উপজেলার চুড়ামনকাটি, কাশিমপুর ও হৈবতপুরের বিভিন্ন গ্রামের জমি হারানো শত শত জমির মালিক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছেন। তারা তাদের জমি হারানোর বেদনা ও আর্তনাদ করেছে। প্রতিবাদ সভায় এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ ভুক্তভোগীরা বক্তব্য প্রদান করে।


    এলাকার উন্নয়নকর্মী ও শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তি জনাব কুদ্দুস ছালাম বলেন, “এলাকার উন্নয়নে আমরা ভৈরব নদ খননকে সাধুবাদ জানিয়েছিলাম। কিন্তু আপরা বুঝিনি এই নদ খনন আমাদের জমি কেড়ে নেবে। এই খননের ফলে অনেকে জমি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে গেছে। জমির মালিকারার সব কাগজ থাকার পর তারা কিছু করতে পারছে না। অতি সত্তর যদি সরকার বিষয়টির সুরাহা না করে তবে আমরা জমি ফিরে পেতে দরকার হলে হাইকোর্ট-এর দারস্থ হবো”।

    মানববন্ধনে ভুক্তভোগী কৃষকরা আরো জানান, যশোর সদর উপজেলার চুড়ামনকাটি, বিজয়নগর, ঘোনা, খোজারহাট, মিরাপুর, দৌলাতদিহি, হৈবতপুর, আব্দুলপুর ও পোলতাডাঙ্গাসহ বিভিন্ন গ্রামের শত শত কৃষকের আবাদি জমি নদী খননের নামে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক দখল করে সেখানে বিভিন্ন প্রজাতির চারা গাছ লাগিয়েছে। ফলে জমি হারিয়ে এসব কৃষকরা অসহায়াত্বের মতো দিনযাপন করছেন।

    তারা জানান, ভৈরব নদীর পাশ দিয়ে এসব গ্রামের কৃষকদের সিএস, এসএ এবং আরএস রেকর্ডভূক্ত জমির মালিক। ভৈরব নদী খননের পূর্বে এসব জমিতে কৃষকরা ধান, গম, ছোলা, খেশাড়ি, মূগ, মুসরী ও আলুসহ বিভিন্ন ফসল উৎপাদন করতো। কিন্তু নদী খননের সময় নদীর পাড়ের মাটি অনেক দুরত্বে কৃষকের মালিকানা জায়গায় রাখে এবং নদীর পাড় হইতে অনেক দূর বিস্তার নিয়ে মাটির স্তুপ করা হয়। পরবর্তীতে ওই স্তুপের উপরেই অর্থাৎ মালিকানা জায়গায় বৃক্ষরোপণ করে। ফলে কৃষকের চাষযোগ্য জমিতে দীর্ঘদিন যাবৎ চাষাবাদ করতে না পারায় তারা অসহায়ত্বের মতো দিনযাপন করছে।

    বিষয়টি নিয়ে তারা গত ছয় নভেম্বর যশোর প্রেসক্লাব চত্ত্বরে মানববন্ধন শেষে মাননীয় জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত দাখিল ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি ম্মারকলিপি প্রদান করে। যার অনুলিপি পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক, নির্বাহী পরিচালক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), যশোর, যশোর পুলিশ সুপার ও যশোর কোতয়ালী ওসি বরাবর প্রেরণ করা হয়। তারা আরো জানান, জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত দাখিলের সময় জেলা প্রশাসক বিষয়টি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বললেও অদ্যবধি বিষয়টির কোনো সমাধান হয়নি। ফলে কোন উপায়ন্তর না পেয়ে বৃহম্পতিবার সকালে এসব এলাকার কয়েক’শো ভূক্তোভোগী কৃষক চাষযোগ্য জমি ফিরে পাবার দাবিতে দৌলাতদিহি ব্রিজের নিচে মানববন্ধন করে। মানববন্ধনে তারা অবিলম্বে তাদের দখলকৃত জমি ফিরে পেতে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669