• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    মডেলিংয়ে বাংলাদেশের মেয়েরা, কীভাবে দেখছে সমাজ?

    অনলাইন ডেস্ক | ২৩ আগস্ট ২০১৭ | ৮:৪৫ অপরাহ্ণ

    মডেলিংয়ে বাংলাদেশের মেয়েরা, কীভাবে দেখছে সমাজ?

    মডেলিংয়ের প্রতি ঝুঁকছে তরুণ প্রজন্ম। বাংলাদেশে মডেলিং-এর প্রতি তরুণীদের আগ্রহ এখন বেশ লক্ষণীয়৷ মডেলিং-এ নারীদের এই অংশহগ্রহণ কি সামাজিক অগ্রগতির কোনো লক্ষণ? সমাজ এটাকে কীভাবে দেখছে? এ নিয়ে কী বলছেন এই সময়ের মডেল ও অভিনেত্রীরা?


    শাড়ি, জামা, জুতো, চাল, ডাল, তেল, নুন থেকে শুরু করে টয়লেট ক্লিনার, কোন পণ্যটা নিয়ে বিজ্ঞাপন হতে বাকি? নেচে গেয়ে হেসে যারা ফুটিয়ে তোলেন বিজ্ঞাপনগুলো তাদেরকে ডাকা হয় মডেল৷

    ajkerograbani.com

    শুধু টিভি বিজ্ঞাপন নয়, পত্রিকা, ম্যাগাজিন, বিলবোর্ড, এবং ফ্যাশন শো এ র্র্যম্প মডেলিং- সব ধরনের মডেলিং-এই বতর্মানে এগিয়ে এসেছে বাংলাদেশের মেয়েরা৷ অথচ বাংলাদেশে একটা সময় ছিলো, যখন মঞ্চ বা টিভিতে মেয়েদেরকে অভিনয় করতে দিতেই পরিবারগুলোর ছিলো আপত্তি৷ এই যে মেয়েরা বাইরে বেরিয়ে আসছে, মডেলিং করছে এটি কি একধরনের সামাজিক অগ্রগতি?

    এই বিষয়ে লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার, মডেল ও অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মীম বলেন,‘মিডিয়াতে একটা মেয়ে কাজ করবে এই বিষয়টা কিন্তু একসময় পারিবারিকভাবে সমর্থন করা হতো না৷ যেমন, আমার মায়ের খুব ইচ্ছে ছিলো, যে তিনি এই ধরণের কাজ করবেন কিন্তু তাকে তার পরিবার সমর্থন দেয়নি৷ তবে সময় এখন পাল্টেছে৷ আমার মা আমাকে সমর্থন দিয়েছেন৷’

    এই বিষয়ে অভিনেত্রী ও মডেল নওশীন বলেন, ‘ এটা শুধু নারীদের অগ্রগতি কেন হবে? অভিনয় করে তো আজকাল অনেক ছেলেও প্রতিষ্ঠা পাচ্ছে৷ সুতরাং নারী পুরুষের বৈষম্যটাকে আমি এখানে আনতে চাই না৷ আমি বরং এটিকে দেখতে চাই একটি পেশা হিসেবে৷’

    -সময়টা যদিও পাল্টেছে, যদিও আগের তুলনায় অনেক নারী মডেলিং-এ আসছে কিন্তু এটাকে কি পেশা হিসেবে গ্রহণ করার অবস্থা তৈরি হয়েছে বাংলাদেশে?

    মীম বলেন, ‘আমরা যদি আগের কাউকে আইডল হিসেব দেখি তাহলে মৌ, মোনালিসা, রিয়া এদের কথা সবার আগে বলতে হয়৷ এরা কিন্তু মডেলিং করেই নিজের ক্যারিয়ার গড়েছেন৷ সুতরাং আমার মনে হয়, মডেলিংকেও এখন পেশা হিসেবে নেয়া যায়৷’

    তবে মীমের সাথে একটু ভিন্নমত পোষণ করেন নওশীন৷ নওশীন মনে করেন, বাংলাদেশে এখনো মডেলিংকে পেশা হিসেবে নেয়ার বাস্তবতা তৈরি হয়নি৷ তবে ভবিষ্যতে এই পেশায় ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ হবে বলেও আশা করেন তিনি৷

    অভিনেত্রী সারা যাকের, প্রায় তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে জড়িত আছেন বাংলাদেশের টেলিভিশন মাধ্যমের সাথে৷ এছাড়া বিজ্ঞাপন নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের সাথেও রয়েছে তার সম্পৃক্ততা৷ বাংলাদেশে বর্তমান মডেলিং জগতে নারীদের অংশগ্রহণকে তিনি কীভাবে দেখছেন?

    সারা বলেন, ‘কিছু সংখ্যক ছেলে মেয়ে আমাদের দেশে টিভি বিজ্ঞাপন ও ফ্যাশান শো-এ ব়্যাম্প মডেলিং করছে বটে কিন্তু তার মানে এই না যে সামাজিক অগ্রগতি হয়েছে৷ একদিকে বাসায় বসে রক্ষণশীল জীবন যাপন আর অন্য দিকে বাইরে বিলবোর্ডে স্লিভলেস পরা মেয়েদের ছবি৷ তো, এই স্লিভলেস পরা ছবিটা আসলে সমাজের উদার মানসিকতার কোনো ম্যাসেজ বহন করে না৷’

    মডেলিং-এর প্রতি এখনো সামাজিক নেতিবাচক মনোভাব আছে বলেই মনে করেন সারা যাকের৷ তাই এই বিষয়টির উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে যে মেয়েটি মডেলিং করে বিয়ের পরে অনেক সময়ই তাকে মডেলিং ছেড়ে দিতে হয়৷ সুতরাং যে দেশে সামাজিক বাস্তবতা এরকম, সে দেশে মেয়েরা মডেলিং আসা মানেই সামাজিক অগ্রগতি নির্দেশ করে না।

    ২০ বা ৩০ বছর আগের তুলনায় অনেক পাল্টেছে এখন সময়৷ কিন্তু এখনো সীমাবদ্ধতাও রয়ে গেছে ঢের৷ আলোর অপূর্ব রোশনাই বা আলো-ছায়ার রহস্যঘেরা মায়াজালের ভেতর রাজহংসীর মতো উদিত হচ্ছেন যে মডেল, সমাজের মানসিকতা এখনো তাকে গ্রহণে পুরোটা সক্ষম নয় বলে মনে করছেন অভিনেত্রী সারা, মীম ও নওশীন৷ তাদের মতে, টিভির পর্দায়, বিলবোর্ডে বা ফ্যাশান শো-এর মঞ্চে দশর্ক যাকে দেখছেন মুগ্ধতায় তার প্রতি সাধারণ মানুষের ইতিবাচক মনোভাব আসতে এখনো আরো কিছু সময় প্রয়োজন৷

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755