• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    মডেল তরুণীকে বারান্দা দিয়ে বেডরুমে নিয়ে যায় ইভান

    অনলাইন ডেস্ক | ০৯ জুলাই ২০১৭ | ১০:০৫ অপরাহ্ণ

    মডেল তরুণীকে বারান্দা দিয়ে বেডরুমে নিয়ে যায় ইভান

    পুলিশি রিমান্ডে বাহাউদ্দিন ইভানকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। বনানী থানায় শুক্রবার থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুলতানা আক্তার। র‌্যাবের পর রিমান্ডে পুলিশের কাছেও ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে ইভান। দিচ্ছে তার


    অপরাধের বিভিন্ন তথ্য। তথ্যগুলো সঠিক কিনা তা যাচাই করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

    ajkerograbani.com

    জিজ্ঞাসাবাদে ইভানের স্বীকারোক্তির বরাত দিয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সুলতানা বলেন, তার স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে ইভান রাতে ওই মেয়েকে নিজের বেডরুমে ডেকে নেয়। বাসায় ঘুমন্ত বাবা-মা ও কাজের মেয়েদের বুঝতে না দিয়ে সোজা বারান্দা দিয়ে নিজের কক্ষে নিয়ে যায়। এ কথা সে কথা বলে গল্পগুজব করে। রাতে খেতে দেয়। ধর্ষণের পর শেষ রাতে তাকে বাসা থেকে বের করে দিলে সে পথচারীর সহযোগিতায় থানায় এসে অভিযোগ দেয়।

    ইভানের স্ত্রী ইসরাত আরা টুম্পা বলেন, গত ঈদের তৃতীয় দিন আমি দু’সন্তান নিয়ে পুরান ঢাকায় বাপের বাড়ি গিয়েছিলাম। হয়তো আমি ছিলাম না, তাই ওই নারীকে ডাকছে। মেয়েটা বড় লোকের ছেলে, ব্যবসায়ী, বনানীতে বাসা এসব দেখে ছুটে এসেছে। সে ভালো মেয়ে হলে কী ডাকলেই বিয়ে করতে আসবে। তার স্ত্রী আছে কিনা যাচাই-বাছাই করবে না? এত রাতে একটা ছেলের বাসায় কিভাবে আসে?

    গত মঙ্গলবার রাতে বনানীর ২ নম্বর রোডের ন্যাম ভিলেজের ৫/এ ভবনে জন্মদিনের দাওয়াতের কথা বলে ওই টিভি অভিনেত্রীকে ডেকে নিয়েছিল ইভান। দ্বিতীয় তলার ভাড়া ফ্ল্যাটে নিজ কক্ষে ওই নারীকে দু’দফায় ইয়াবা সেবন করিয়ে জোর করে ধর্ষণ করে। তারপর রাত সাড়ে তিনটার দিকে তাকে জোর করে বাসা থেকে বের করে দেয়। পরদিন বুধবার ভোরে বনানী থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলার পর নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেফতার হয় সে। এরপর গত শুক্রবার তাকে আদালতে সোপর্দ করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হলে শুক্রবার সন্ধ্যায় তাকে থানায় নেয়া হয়। শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। গ্রেফতারের পর র‌্যাবের কাছে স্বীকারের পর পুলিশি রিমান্ডেও অভিনেত্রীকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

    এদিকে গত বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে ওই নারীর শারীরিক ও বয়স নির্ধারণী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। তারপর থেকে তাকে রাখা হয়েছে তেজগাঁওয়ের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে।

    ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী থাকেন ক্যান্টনমেন্ট থানার বারিধারা ডিওএইচএসএসের এক বাসায়। এর আগে থাকতেন মোহাম্মদপুরে। গত ৮ই জুন বারিধারার বাসাটি ভাড়া নেন। তার সে বাসায় গিয়ে দরজা বন্ধ দেখা গেছে। কয়েকদিন ধরে বাসায় কেউ নেই বলে জানিয়েছেন বাসা মালিক ও ব্যবস্থাপক ও দারোয়ান। মোবাইলেও তাকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে উল্লেখ করেন তারা। তবে কুড়িগ্রাম থেকে ভিকটিমের আত্মীয়স্বজনরা গতকাল ঢাকায় এসেছে বলে জানা গেছে।

    ইভান বনানীর ব্যবসায়ী মো. বোরহান উদ্দিন বেলালের বড় ছেলে। বনানীতে তার কয়েকটি দোকান আছে। পিতার সঙ্গে ব্যবসা দেখে ইভান। তাদের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর থানার মহনপুর গ্রামে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757