সোমবার ১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মাত্র ২২ বছর বয়সে আ.লীগ থেকে মনোনয়ন ভাগিয়ে নিলেও জমা দেননি শিউলি

  |   শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | প্রিন্ট  

মাত্র ২২ বছর বয়সে আ.লীগ থেকে মনোনয়ন ভাগিয়ে নিলেও জমা দেননি শিউলি

রাজনৈতিক দল থেকে মনোনয়ন পেলেও বয়সের হিসাবে নির্বাচনের যোগ্য নন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী শিউলি দে। ২৫ বছরের নিচে নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ না থাকায় দলের ভেতরে-বাইরে তাকে নিয়ে ব্যাপক বিতর্কের জন্ম হয়। তাই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেও পরে আর জমা দেননি তিনি।
বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ছিল। এদিন চসিক নির্বাচনে সংরক্ষিত-৫ নং ওয়ার্ডে (১৪, ১৬ ও ২১) আওয়ামী লীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী শিউলি দে মনোনয়নপত্র জমা দেননি বলে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস থেকে জানা গেছে।
গত ১৯ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সাধারণ ওয়ার্ডের ৪১ জন এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ১৪ জনকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়। ওই দিন রাতেই গণমাধ্যকে এ বিষয়ে নিশ্চিত করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।
দলীয় সূত্রে পাওয়া তালিকায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সংরক্ষিত-৫ নং ওয়ার্ডে (১৪, ১৬ ও ২১) আওয়ামী লীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে শিউলি দের নাম উল্লেখ করা হয়।
কিন্তু বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস থেকে পাঠানো তালিকা অনুযায়ী মনোনয়ন জমা দেয়া প্রার্থীদের তালিকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী শিউলি দের নাম ছিল না। ওই ওয়ার্ডে বিএনপি প্রার্থী হিসেবে মনোয়ারা বেগম, স্বতন্ত্র হিসেবে যথাক্রমে রিজিয়া বেগম, আঞ্জুম আরা ও নবুয়ত আরা সিদ্দিকা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিউলি দের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।
খবর নিয়ে জানা গেছে, শিউলি দে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন বাগিয়ে নিলেও বয়সের হিসাবে তিনি নির্বাচনের যোগ্য নন। তিনি এখনও ইসলামিয়া কলেজের সম্মানের শিক্ষার্থী। শিউলি দের বয়স মাত্র ২২ বছর। আইন অনুযায়ী ২৫ বছরের নিচে নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ না থাকায় তাকে নিয়ে দলের ভেতরে-বাইরে ব্যাপক বিতর্কের জন্ম হয়। দলে কোনো অবদান না থাকা সত্ত্বেও কোন জাদুতে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন, তা নিয়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। মূলত এই কারণে শিউলি দে শেষ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেননি।
এছাড়া চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে ৪৪১ জন ফরম সংগ্রহ করলেও জমা দিয়েছেন মাত্র ২২০ জন। সে হিসাবে নির্বাচনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেও জমা দেননি অর্ধেকের বেশি কাউন্সিলর প্রার্থী। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে ফরম সংগ্রহ করেছিলেন ৭৯ জন। শেষ দিনে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন ৫৮ জন প্রার্থী। বাকি ২১ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী মনোনয়ন সংগ্রহ করেও তা জমা দেননি।

Facebook Comments Box


Posted ৮:৪৬ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১