• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    মাদকবিরোধী অভিযানে গিয়ে পুলিশের চার কর্মকর্তা আহত

    অনলাইন ডেস্ক | ০১ জুন ২০১৭ | ১২:১৮ অপরাহ্ণ

    মাদকবিরোধী অভিযানে গিয়ে পুলিশের চার কর্মকর্তা আহত

    ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় মাদকবিরোধী অভিযানে গিয়ে ছুরিকাঘাতে দুই উপপরিদর্শকসহ (এসআই) পুলিশের তিন কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলার কালমেঘ সরলিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


    এদিকে নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার শীতলতলা এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মাদকবিরোধী অভিযানে হাঁসুয়ার আঘাতে আরও একজন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় হাফিজুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। হাফিজুল রাজশাহীর বাঘা উপজেলার গোচর গ্রামের আসমত আলীর ছেলে।

    ajkerograbani.com

    বালিয়াডাঙ্গায় আহত এসআই গোলাম মর্তুজাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য দুজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। এ ঘটনায় সোহরাব হোসেন ওরফে রাজা নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁর কাছ থেকে ৮৫টি ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয়েছে। তাঁর বাড়ি কালমেঘ সরলিয়া গ্রামে।

    পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে এসআই গোলাম মর্তুজার নেতৃত্বে একদল পুলিশ সরলিয়া গ্রামে মাদকবিরোধী অভিযানে যায়। একপর্যায়ে পুলিশ মাদকব্যবসায়ী সোহরাবকে ধাওয়া দেয়। তখন এসআই মর্তুজাকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন সোহরাব। তাঁকে জাপটে ধরেন মর্তুজা। পরে অন্য পুলিশ সদস্যরা এসে সোহরাবকে আটক করেন। সোহরারের ছুরির আঘাতে এসআই গোলাম মর্তুজা ও মো. নুরুল ইসলাম এবং সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সুবোধ চন্দ্র আহত হন। সোহরাবের শরীর তল্লাশি করে ৮৫টি ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়। ছুরিকাঘাতে মর্তুজার মাথার ডান পাশে ও চোয়ালে জখম হয়। তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে তাঁকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। অন্য দুজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

    বালিয়াডাঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজার রহমান বলেন, সোহরাব এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। তাঁর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একাধিক মামলা রয়েছে। গতকালের ঘটনায় কর্তব্যরত পুলিশের ওপর হামলা ও মাদক ব্যবসার অভিযোগে দুটি মামলা হয়েছে।

    বাগাতিপাড়া থানা-পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এএসআই আহাদ আলীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জামনগর ইউনিয়নের শীতলতলা এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে যায়। ধাওয়া দেওয়ার পর মাদক ব্যবসায়ী হাফিজুল হাঁসুয়া দিয়ে এএসআই আহাদকে আঘাত করেন। এতে তিনি আহত হন। তবে তাঁর সঙ্গে থাকা পুলিশের অন্য সদস্যরা হাফিজুলকে ধরে ফেলেন। হাফিজুলের কাছে দুই বোতল বিদেশি মদ পাওয়া যায়। গতকাল বুধবার দুপুরে তাঁকে বাগাতিপাড়া আমলি আদালতে হাজির করা হয়। আদালত তাঁকে হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এএসআই আহাদ আলী বাগাতিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

    বাগাতিপাড়া থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, হাফিজুলের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দুটি মামলা হয়েছে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757