বৃহস্পতিবার ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মাশরাফি বলেই সম্ভব হয়েছে

  |   সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০ | প্রিন্ট  

মাশরাফি বলেই সম্ভব হয়েছে

জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ২২ গজে লম্বা সময় ধরে দেখিয়েছেন মুগ্ধতা। এবার মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন জনগণের প্রতিনিধি হয়ে। করোনাভাইরাস প্রকোপের মাঝে নিজের এলাকার মানুষদের জন্য অনন্য এক উদ্যোগ নিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা। সেটি হলো ডাক্তারকেই রোগীর বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া। তাহলে কেউই আর বিনা চিকিৎসায় কষ্ট পাবে না। আর ব্যতিক্রমী এবং প্রশংসিত এই কার্যক্রমের পথচলা শুরু হয়েছে আজ থেকে। সংসদ সদস্যটা মাশরাফি বলেই হয়তো সম্ভব হয়েছে এমন এক উদ্যোগ।
কেউ অসুস্থ বোধ করলে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের চিকিৎসা সেবার নম্বরে ফোন করে ঠিকানা দেবেন। অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে ডাক্তার চলে যাবেন তার বাড়ি। রোগী দেখে প্রয়োজনে কিছু ওষুধও দিয়ে আসবেন তারা। করোনাভাইরাস আতঙ্কের মাঝে সধারণ রোগীরা যেন বিনা চিকিৎসায় ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেজন্যেই এমন উদ্যোগ। মাশরাফি বলেছেন, ‘সাধারণ সর্দি-কাশি হলেও ভয়ে এখন কেউ হাসপাতালে যাচ্ছে না। আবার অনেকের হয়তো অন্য অসুখ। তারাও করোনার ভয়ে হাসপাতালে না গিয়ে বাড়িতে কষ্ট পাচ্ছে। সে জন্যই লোহাগড়া ও নড়াইলে আমরা এই ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবার উদ্যোগ নিয়েছি।’
এছাড়া ডাক্তাররা বাড়ি বাড়ি ঘুরে যদি কাউকে করোনা আক্রান্ত সন্দেহ করেন, তাদের জন্যও টেস্টের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন মাশরাফি, ‘নড়াইল সরকারি হাসপাতালের কাজ এখনো শেষ হয়নি। তবে তার মধ্যেই আমরা ১০ বেডের একটা করোনা সেন্টারের ব্যবস্থা করেছি। সেরকম কোনো রোগী পাওয়া গেলে তাকে এখানে এনে রাখা হবে। তারপর খুলনায় নমুনা পাঠিয়ে টেস্ট করা হবে। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী আমরা দুই উপজেলা থেকে প্রতিদিন ২ জন করে ৪ জনকে পরীক্ষা করাতে পারব।’
মাশরাফির পিতা গোলাম মর্তুজা স্বপনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে আজ বেলা ১২ টার দিকে নড়াইল শহরের মহিষখোলা এলাকায় মাশরাফিদের বাসভবন থেকে চিকিৎসা সেবার মহান ব্রত নিয়ে এ টিম যাত্রা করে। হটলাইনে ডাক পেয়ে সর্ব প্রথম ভওয়াখালী, পরে মাইজপাড়াসহ সদর উপজেলার মাঠে প্রান্তরে ঘুরে ঘুরে এ দিন বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত অর্ধ-শতাধিক মানুষকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়।
দুঃসময়ে নিজেদের হাতের কাছে চিকিৎসা সেবা পেয়ে যারপর নেই খুশি সাধারণ মানুষ। বর্তমান সংকটময় পরিস্থিতিতে নূন্যতম চিকিৎসা সেবা নিয়ে বিড়ম্বনার শিকার তৃণমূল জনগোষ্ঠির দোড় গোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌছে দিতে মাশরাফির এ উদ্যোগ বলে জানান মাশরাফির বাবা গোলাম মর্তুজা স্বপন।
নড়াইলে ভ্রম্যমান মেডিকেল টিমের দুটি হট লাইন নাম্বার রয়েছে। ০১৩১৪৯৬৬৬৯৯ ও ০১৭৮৪২৮৯৪৯৪ এ প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত সপ্তাহে সাতদিন যে কেউ ফোন করে এ ভ্রামমাণ মেডিকেল টিমের সেবা নিতে পারবে। প্রাথমিক অবস্থায় নড়াইলের সন্তান ডা. দ্বীপ বিশ্বাস এবং তার স্ত্রী ডা. স্বপ্না রানী সরকার এই চিকিৎসা দেবেন।

Facebook Comments Box


Posted ৪:৪৪ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১