বৃহস্পতিবার ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মুকসুদপুরে লকডাউন ভেঙ্গে মধ্যরাতে নাফারু মারতে ব্যস্ত একদল যুবক, এলাকায় ডাকাত আতঙ্ক

তারিকুল ইসলাম   |   শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০২০ | প্রিন্ট  

মুকসুদপুরে লকডাউন ভেঙ্গে মধ্যরাতে নাফারু মারতে ব্যস্ত একদল যুবক, এলাকায় ডাকাত আতঙ্ক

লকডাউনের কারণে সাধারণ মানুষ যখন দিনেও ঘরে থেকে বের হতে সাহস পান না তখন মুকসুদপুরের পশারগাতি ইউনিয়নের কৃষ্ণাদিয়া গ্রামে একদল যুবক রাত ১ টায় জড়ো হয়েছিলেন নাফারু মারতে। কিন্তু এলাকাবাসী মনে করেছেন ডাকাত পড়েছে। শুরু হয় ডাকাত ডাকাত বলে মাইকিং। পরে জানা যায় ঘটনাটি ডাকাতির না।
একজন আজকের অগ্রবাণীকে জানান, বৃহস্পতিবার ঘড়ির কাটায় রাত ১ টা। মোবাইলে কল আসে। অপর প্রান্ত থেকে ডাকাত! ডাকাত। একটু পরে ডাকাত পড়েছে বলে মাইকিংয়ের আওয়াজ শোনা যায়। ঘুম ভেঙ্গে যায় আশপাশের সবার। সজাগ হয়ে যান গ্রামের লোকজন সহ আশপাশের গ্রামের মানুষ।
বিষয়টি জানতে পশারগাতি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবুল কুমার দের সঙ্গে এলাকার লোকজন যোগাযোগ করলে তিনি জানান, একদল লোক নাফারু মারতে গেছে। তাই এতো শব্দ। ডাকাত পড়েনি।
এ প্রসঙ্গে পশারগাতি ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা জাকির মীর বলেন, একই গ্রামের মৃধাপাড়ার খোকা মাতুব্বর তাকে ফোনে জানিয়েছেন, তবে ঘটনাটি ডাকাতির না তারা গিয়েছিলো নাফারু মারতে।
এখন প্রশ্ন হচ্ছে, যেখানে সরকারি প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়েছে সন্ধ্যা ৬ টা থেকে সকাল ৬ ট পর্যন্ত বাইরে বের হলেই আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। সেখানে রাত ১ টায় নাফারু মারা যাওয়া কতটুকু যুক্তিসম্মত? সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত কেউ ঘরের বাইরে বের হতে পারবে না বলে জানিয়েছে সরকারের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮ এর ১১ (১) ধারাবলে এটি আইনের লংঘন বলে প্রতীয়মান।
পশারগাতি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবুল কুমার দে আজকের অগ্রবাণীকে বলেন, আগে শুনেছি ডাকাত পড়েছে। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি নাফারু মারার জন্য কিছু লোক জড়ো হয়েছিলো। পরে সকালে জানতে পারি একজনের ঘরে সিংকেটেছে চোরেরা তবে কিছু নিতে পারেনি।

Facebook Comments Box


Posted ৯:০১ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১