• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    মুকসুদপুর পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সীলর যারা

    মোঃ তারিকুল ইসলামঃ | ২৮ এপ্রিল ২০১৭ | ১০:২৯ পূর্বাহ্ণ

    মুকসুদপুর পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সীলর যারা

    গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোঃ আতিকুর রহমান মিয়া (নৌকা) প্রতিক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ৬৭১৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি স্বতন্ত্র প্রার্থী মিজানুর রহমান মৃধা (চামচ প্রতিক) পেয়েছেন ২১৮৫ ভোট।
    গত ২৫ এপ্রিল মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত মুকসুদপুর পৌরসভার ২য় ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। নয়টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত এ পৌরসভার বর্তমান ভোটার সংখ্যা ১৪ হজার ৯শত ৩৭জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭,৪৮৮জন এবং মহিলা ভোটার ৭,৪৪৯জন। এ নির্বাচনে ৬জন মেয়র পদে, ১৩জন সংরতি মহিলা আসনে এবং ৪৪জন কাউন্সীলর পদে প্রতিদ্বন্দিতা করেন। আওয়ামীলীগ থেকে মেয়র পদে মনোনয়ন পেয়ে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দিতা করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাডঃ আতিকুর রহমান মিয়া। ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছিলেন উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি মিজানুর রহমান লিপু। মোবাইল ফোন প্রতীকে আহাজ্জাদ মোহসীন খিপু,নারকেল গাছ প্রতীকে ইব্রাহীম খলিল বাহার, মিজানুর রহমান মন্টু চামচ প্রতীক এবং জগ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন সাজ্জাদ হোসেন মিয়া। মুকসুদপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের ঘাটি বিধায় আতিকুর রহমান মিয়া প্রথম থেকেই সুবিধাজনক অবস্থানে ছিলেন।
    কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন লখাইরচর ১ নং ওয়ার্ডে মোঃ আনোয়ার হোসেন (পানির বোতল) ৪৭৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি কাজল শেখ (উট পাখি) পেয়েছেন ৪৬৮ ভোট। প্রভাকরদী ২নং ওয়ার্ডে শরীফুল ইসলাম আমীর (উট পাখি) ৫৯৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি (পানির বোতল) পেয়েছে ২১৭ ভোট। নগরসুন্দরদী ৩ নং ওয়ার্ডে মোঃ নিয়ামত খান (টেবিল ল্যাম্প) ৪৯০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়ে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি রাধাবল্লভ কুন্ডু (পানির বোতল)পেয়েছেন ৪০০ ভোট। চন্ডিবর্দী ৪ নং ওয়ার্ডে মোঃ বাকির হোসেন সরদার (পাঞ্জাবী) ৫১৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মিলন শেখ (পানির বোতল) পেয়েছেন ২৮৭ ভোট। গোপিনাথপুর ৫ নং ওয়ার্ডে মোঃ জাকির হোসেন (টেবিল ল্যাম্প) ৫৩৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী এনামুল কবির দুলাল ( পানির বোতল) পেয়েছেন ৪৮৩ ভোট। টেংরাখোলা ৬ নং ওয়ার্ডে আলী আহম্মদ মোল্যা (উট পাখি) ৬৩৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মোঃ মুকুল হোসেন (পাঞ্জাবি) ৩৭২ ভোট পেয়েছেন। কমলাপুর ৭ নং ওয়ার্ডে আজাদুজ্জামান মিয়া (টেবিল ল্যাম্প) ৫৬২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি মোঃ আনোয়ার মুন্সী (উটপাখি) পেয়েছেন ৫২৯ ভোট। কমলাপুর ৮ নং ওয়ার্ডে সাইফুল আজম ( টেবিল ল্যাম্প) ৬২৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী হান্নান মোল্যা (পানির বোতল) ২৫৬ ভোট। গোলাবাড়িয়া ৯ নং ওয়ার্ডে মোঃ নুর আসাদ মৃধা (পানির বোতল) ২৪৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি শওকত জামিল (পাঞ্জাবী) ২৩৩ ভোট পেয়েছেন। এছাড়া মহিলা সংরতি ওয়ার্ড ১ নম্বরে রোমেচা বেগম (চশমা) ১২৭৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত গয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি রিয়া রহমান (জবা ফুল) পেয়েছেন ১২৭০ ভোট। ২ নং ওয়ার্ডে মেশকোআরা রুপালী (জবা ফুল) ১৫০৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি রিমা বেগম (আনারস) ১৩৪০ ভোট পেয়েছেন। ৩ নং ওয়ার্ডে হোসনেয়ারা (চশমা) ১৪৩৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি খালেদা খানম (জবা ফুল) পেয়েছেন ১১৩৭ ভোট। মুকসুদপুর পৌরসভা নির্বাচনে ১৪ হাজার ৯৩৭ জন ভোটারের মধ্যে ১২৩৪১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। শতকরা ৮২.৬২ ভাগ ভোট পড়েছে। সকাল ৮ টা থেকে শুরু করে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ন ভাবে ভোট গ্রহন সম্পন্ন হয়। নারী-পুরুষ সকলে সকাল থেকে দাড়িয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। উল্লেখ্য এবারের নির্বাচনে অধিকাংশই নতুন মুখের আগমন ঘটেছে। অভাবনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে খুবই শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। কয়েকটি কেন্দ্র ঝুকিপূর্ন থাকলেও কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। প্রশাসনের এমন নিরপেক্ষ ভূমিকায় সাধারন মানুষ প্রশংসা করেছে।


    Facebook Comments Box


    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757