• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    মৃত্যুর আগে যেভাবে যাত্রীদের জীবন বাঁচালেন এই বাসচালক!

    অনলাইন ডেস্ক | ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ | ৫:১৮ অপরাহ্ণ

    মৃত্যুর আগে যেভাবে যাত্রীদের জীবন বাঁচালেন এই বাসচালক!

    ভারতের তেলেঙ্গানায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বাসের স্টিয়ারিং হুইলের উপরে পড়েই শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন চালক। তবে নিজের মৃত্যুর আগে তিনি সব যাত্রীদের নিরাপদ থাকার ব্যবস্থা করে যান। রাস্তার ধারে ঘেঁষে থামিয়ে দেন বাসটি। বাসটি থামানোর পরপরই চালকের মৃত্যু ঘটে।


    জানা যায়, ৩৭ জন যাত্রী নিয়ে বাস চালিয়ে যাচ্ছেন সাইদুল নামে ওই চালক। তখন রাত ৩টা। সব যাত্রীই ঘুমন্ত অবস্থায় ছিল। হঠাৎ চালকের শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ পড়ে। এক পর্যায়ে মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়লেন চালক। কিন্তু বাঁচিয়ে গেলেন সব যাত্রীর জীবন। গত সোমবার রাতের এই ঘটনার পর এখনো ঘোর কাটাতে পারছেন না বাসটির অনেক যাত্রীই।


    যে বাসে এমন ঘটনাটি ঘটেছে, সেটি ভারতের খাম্মাম থেকে হায়দরাবাদের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল। নলগোন্ডা জেলার নাকিরেকলের কাছে পৌঁছে মৃত্যুর হাতছানি অনুভব করেন চালক সাইদুলু। যাত্রীরা সবাই তখন ঘুমাচ্ছিলেন। হঠাৎ বাস রাস্তার ধার ঘেঁষে থেমে যাওয়ার পর কারো কারো ঘুম ভাঙে। তারাই দেখেন, সাইদুলু স্টিয়ারিং-এর উপর উপুড় হয়ে রয়েছেন।

    ঘটনার পর দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, বাস চালাতে চালাতে সাইদুলু হৃদরোগে আক্রান্ত হন। তার জেরেই স্টিয়ারিং-এর উপরে ঢলে পড়েছিলেন তিনি। কিন্তু ঢলে পড়ার আগে তেলঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সড়ক পরিবহন নিগমের বাসটিকে যেভাবে রাস্তার ধার ঘেঁষে পার্ক করিয়ে দিয়েছিলেন সাইদুল, তাতে স্পষ্ট যে- নিজের অসুস্থতা বুঝতে পারার পর তিনি বাসটিকে তথা যাত্রীদের বাঁচাতে বদ্ধপরিকর হয়ে ওঠেন।

    যাত্রীরা যখন দেখতে পেলেন চালক ঢলে পড়েছেন, তখন তারা দ্রুত খবর দেন পুলিশে। অ্যাম্বুল্যান্সও ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যায়। স্বাস্থ্যকর্মীরা জানিয়ে দেন, সাইদুলুর দেহে আর প্রাণ নেই। পঁয়তাল্লিশ বছর বয়সী সাইদুল ভারতের তেলেঙ্গানার সরকারি পরিবহন সংস্থার খাম্মাম ডিপোতে নিযুক্ত ছিলেন।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669