• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    যারা আসছেন ছাত্রদলের নতুন নেতৃত্বে

    অনলাইন ডেস্ক | ২০ আগস্ট ২০১৭ | ১১:৪০ অপরাহ্ণ

    যারা আসছেন ছাত্রদলের নতুন নেতৃত্বে

    বিএনপির ভ্যানগার্ড নামে পরিচিত ছাত্রদল। এক সময়ের প্রতাপশালী এই সংগঠনটির বর্তমানে ভঙ্গুর অবস্থা। কোথাও নেই ছাত্রদল। আড়াই বছর আগে বিএনপির ‘ভ্যানগার্ড’ খ্যাত সংগঠন ছাত্রদলের বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। দীর্ঘ সময় পার হওয়ায় ভেঙে পড়েছে সংগঠনটির চেইন অব কমান্ড। সাংগঠনিক কার্যক্রমে এসেছে স্থবিরতা। সংগঠনের গতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে দেশে ফিরেই কমিটি গঠনের কাজে হাত দেবেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। দলের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।


    প্রসঙ্গত, চিকিৎসার জন্য বেগম খালেদা জিয়া বর্তমানে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন। তিনি লন্ডনে অবস্থানরত দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, পুত্রবধূ ও নাতনিদের সঙ্গে একান্তে সময় কাটাচ্ছেন। ছেলের সঙ্গে পরামর্শ করেই তিনি ছাত্রদলের কমিটি গঠন করবেন বলে একাধিক নেতাকর্মী জানান।

    ajkerograbani.com

    বর্তমান কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় ছাত্রদলের নতুন কমিটির জন্য অপেক্ষার প্রহর গুনছেন সংগঠনটির পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীরা। এ দাবিতে কেন্দ্র থেকে শুরু করে তৃণমূল পর্যন্ত সোচ্চার হয়েছেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। নতুন কমিটি নিয়ে দৃশ্যত কোনো তৎপরতা দেখা না গেলেও নেতাকর্মীদের মধ্যে এ নিয়ে ব্যাপক উৎসাহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আর ছাত্রদলের কমিটিকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের নজর এখন লন্ডনের দিকে। তাদের সবার চাওয়া অবিলম্বে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হোক। পূর্বপশ্চিমকে এমনটি জানিয়েছেন সংগঠনের দায়িত্ব নিতে আশাবাদী নেতাকর্মীরা।

    এদিকে নতুন কমিটি নিয়ে গুজব ভাসছে সংগঠনটিতে। কয়েকজন ছাত্রনেতার তালিকা নিয়ে বেগম খালেদা জিয়া লন্ডনে গেছেন বলেও গুঞ্জন এখন বাতাসে ছড়িয়েছে। এ নিয়ে ছাত্রদলের পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। ছাত্রদলের নতুন কমিটি কবে হবে তা কেউ নিশ্চিত বলতে পারছেন না। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসার পর লন্ডনে দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে দলের সাংগঠনিক বিষয়ে আলোচনার পর ছাত্রদলের নতুন কমিটির বিষয়টিও আলোচনায় উঠতে পারে। এমনটি ধারণা করছেন ছাত্রদলের কয়েক নেতা। তারা বলেন, বিএনপির টপ টু বটম পর্যন্ত ম্যাডাম বেগম খালেদা জিয়া পুত্র তারেক রহমানের সঙ্গে আলোচনা করতে পারেন। এতে ছাত্রদলের কমিটির বিষয়ও উঠে আসতে পারে। সংগঠনের কয়েক নেতা বলেন,যেহেতু বর্তমান কমিটির সভাপতি রাজিব আহসান, সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান এবং সিনিয়র সহসভাপতি মামুনুর রশিদ মামুনকে বিএনপির নির্বাহি কমিটির সদস্য করা হয়েছে সূতরাং, নতুন কমিটির কোনো পদে তাদেরকে রাখা হবে না বলে আভাস পাওয়া গেছে।

    অপরদিকে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দুই বছরের জন্য ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর রাজীব আহসানকে সভাপতি ও আকরামুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৫৩ সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর ২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি ৭৩৪ জন সদস্য নিয়ে ওই কমিটি পূর্ণাঙ্গ রূপ পায়। কিন্তু কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সিনিয়র সহ-সভাপতিকে বিএনপির নির্বাহী কমিটিতে পদ দেয়া হয়। মেয়াদোত্তীর্ণের প্রায় নয় মাস অতিক্রম করলেও ছাত্রদলের বর্তমান সভাপতি ও সেক্রেটারি নতুন কমিটি গঠনের কোনো উদ্যোগই নেননি। বিভিন্ন অজুহাতে তারা সংগঠনের নতুন কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া আটকে রেখেছেন। বর্তমান কমিটির অধিকাংশ নেতার ছাত্রত্ব না থাকাসহ বিভিন্ন কারণে এ কমিটি গঠনের পর থেকেই ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। এজন্য ছাত্রদল নেতারা সর্বস্তরে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানিয়ে আসছেন।

    অন্যদিকে প্রায় নয় মাস আগে মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়া বর্তমান কমিটির প্রতি একাধিকবার অনাস্থাও জানিয়েছেন তারা। সর্বশেষ বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন যাত্রার প্রাক্কালে তার গুলশান কার্যালয়ের সামনে নতুন কমিটির দাবিতে শোডাউন দিয়ে বিক্ষোভ করেন ছাত্রদলের হাজারো নেতাকর্মী। তাদের দাবি দ্রুততম সময়ের মধ্যে নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি। না হলে যেকোনো সময় পরিস্থিতি সংঘর্ষের দিকে মোড় নিতে পারে। শীর্ষ পদের জন্য প্রত্যাশী বহু নেতা তাদের অনুসারীদের নিয়ে এক সপ্তাহ ধরে গুলশানে মহড়ার মাধ্যমে নতুন কমিটির জন্য বিএনপি চেয়ারপার্সনের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেন।

    এদিকে ছাত্রদলের নতুন কমিটি সম্পর্কে জানতে চাইলে বিএনপির সাবেক ছাত্র-বিষয়ক সম্পাদক ও বর্তমান প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি পূর্বপশ্চিমকে বলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এখন লন্ডনে অবস্থান করছেন, তিনি লন্ডন থেকে দেশে ফেরার পর ছাত্রদলের নতুন কমিটি নিয়ে আলোচনা করবেন। তিনি আরো জানান, দলের চেয়ারপার্সন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে পরামর্শ করে ছাত্রদলের নতুন কমিটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিবেন। তবে কবে নাগাদ ছাত্রদলের নতুন কমিটি করা হতে পারে এবিষয়ে তিনি কিছু জানাতে পারনেনি।

    সংগঠনটির একাধিক নেতা জানান, বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি আলমগীর হাসান সোহান, সহ-সভাপতি নাজমুল হাসান, সহ-সভাপতি এজমল হোসেন পাইলট, যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক সরকার, আগামীতে নতুন কমিটির সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদক করা হতে পারে। এ তালিকায় অন্যদের মধ্যে আলোচনায় আছেন, যুগ্ম সম্পাদক মিয়া মোহাম্মাদ রাসেল, যুগ্ম সম্পাদক আবুল হাসান, যুগ্ম সম্পাদক বায়েজিদ আরেফিন। এছাড়া আবু আতিক আল হাসান মিন্টু, মফিজুর রহমান আশিক, ওমর ফারুক মুন্না, জহিরুল ইসলাম বিপ্লব, ইখতিয়ার রহমান কবির, গোলাম মোস্তফা, সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক মিনহাজুল ইসলাম ভুইয়া, আন্তর্জাতিক সম্পাদক রাশিদুল ইসলাম রিপন, সমাজসেবা সম্পাদক আবদুর রহিম, নাহিদুল ইসলাম সুহাদ, আরজ আলী শান্ত, সহ-সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহসান পাপ্পু, বিভিন্নভাবে নতুন কমিটিতে পদপদবীর জন্য তদবির চালাচ্ছেন বিভিন্ন লবিংয়ের মাধ্যমে।

    নতুন কমিটির সভাপতির পদ প্রত্যাশী বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি আলমগীর হাসান সোহান পূর্বপশ্চিমকে বলেন, নতুন কমিটির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান। তিনি বলেন, তবে বেশিরভাগ নেতার মুখ থেকে শোনা যাচ্ছে যে, বিগত দিনে আন্দোলন-সংগ্রামে রাজপথে থেকে বিএনপির গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনকে যারা আরো বেগবান করেছেন, তাদের মধ্যে থেকেই ছাত্রদলের আগামীর দায়িত্ব দেয়া হবে। সোহান বলেন, দলের দুঃসময়ে পাশে না থাকা বা পালিয়ে থাকা বিশেষভাবে যারা রাজপথে ছিলেন না এমন কেউ  যেন নতুন কমিটিতে স্থান না পায় সে ব্যাপারে তিনি বিএনপির হাইকমান্ডের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

    নতুন কমিটিতে পদপ্রত্যাশী ও বর্তমান কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে তৃণমূলের হাজারো অভিযোগ। কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার পর ছাত্রদলের মতো একটি ঐতিহ্যবাহী ও গুরুত্বপূর্ণ ছাত্র সংগঠনের নতুন কমিটি দেয়াটা এখন সময়ের দাবি। তা না হলে তৃণমূলে ক্ষোভ হতাশা আরো বাড়বে। নতুন কমিটি না হওয়ায় বিশৃঙ্খলা ও কোন্দল তৈরি হচ্ছে। তবে নতুন কমিটিতে সংস্কারপন্থি, অযোগ্য কেউ যেন স্থান না পায় সে ব্যাপারে তিনি বিএনপির হাইকমান্ডের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এই কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে। আমরা ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) কাছে নতুন কমিটির জন্য দাবি জানাচ্ছি।

    নতুন কমিটিতে পদপ্রত্যাশী ও বর্তমান সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, নতুন কমিটি গঠন করা এখন সময়ের দাবি। কিন্তু সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক তা আমলে নিচ্ছেন না। আমরা বিএনপি চেয়ারপার্সনের নির্দেশের অপেক্ষায় আছি।

    ছাত্রদলের নতুন কমিটিতে পদ প্রত্যাশী একাধিক নেতাকর্মী জানান, বর্তমান কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় আমরা নানাভাবে নতুন কমিটির দাবি জানাচ্ছি। বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণ করে গুলশানে নতুন কমিটির দাবিতে বিক্ষোভও হয়েছে।সংগঠনের স্থবিরতা কাটাতে এবং সরকারবিরোধী আন্দোলনে কর্মীদের সক্রিয় করতে নতুন কমিটির কোনো বিকল্প নেই। আমরা চাই দ্রুত নতুন কমিটি।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755