• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    যার কারণে সাফাত এখন ধর্ষক!

    আজকের অগ্রবাণী ডেস্ক: | ১৬ মে ২০১৭ | ৯:০১ পূর্বাহ্ণ

    যার কারণে সাফাত এখন ধর্ষক!

    রাজধানীর সেই কলঙ্কিত ঘটনা পৌঁছে গেছে গ্রামেও। এক ধর্ষককে থুতু আর ঘৃণায় ফুসে উঠেছে পুরো বাংলাদেশ। প্রতিবাদের ঝড় বইছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও।


    এ ঘটনায় অবশেষে মুখ খুললেন সেই ধর্ষকের বাবা। বললেন, ছেলে সাফাত কেন বিপদগামী হলো। এ ঘটনাটিকে ‘সাজানো’ নাটক দাবি করে তিনি বলেন, ‘আমার চিটার পুত্রবধূ পিয়াসা এই ধর্ষণের নাটক সাজিয়েছে।’

    ajkerograbani.com

    আমার ছেলে তো জঙ্গি না, এরা হচ্ছে বড় লোকের ছেলে। এদের কি রেপ করা লাগে? পুত্রবধূর দিকে ইঙ্গিত করে এমন মন্তব্যও করেন তিনি।

    সোমবার বিকেলে কয়েকটি গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ছেলের সাফাই গেয়ে আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদ সেলিম এসব কথা বলেন।

    তিনি দাবি করে বলেন, ‘আমার ছেলে না বুঝে পিয়াসাকে বিয়ে করে ফেলেছিল। পিয়াসা এই শহরের অনেক প্রভাবশালীর রক্ষিতা ছিল। একটা রক্ষিতা মেয়েকে আমি কি বউ বানাতে পারি? আমি একটা গরীব মেয়েকে আমার ছেলের বউ বানাতে পারি। আমার এ কথাগুলো আপনারা সাংবাদিকরা যাচাই করেন। এটা সঠিক কি না।’

    দিলদার বলেন, ‘আমার কাছে আরেকটা ডকুমেন্ট আছে। সে (পিয়াসা) এশিয়ান টিভির ডাইরেক্টর বলে পরিচয় দিতো। সে ভুয়া ডাইরেক্টর। সে ভুয়া ডাইরেক্টরের কার্ড ছাপিয়ে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করতো।’

    তিনি আরো বলেন, ‘ম্যানেজার বলছে, মেয়েগুলো নাকি সকালে হাসি মুখে সেখান থেকে বের হয়েছে। তাহলে একটা প্রশ্ন আসে তারা কি ধর্ষিতা নাকি পতিতা? বের হওয়ার সময় তারা ম্যানেজারের কাছে অভিযোগ করতে পারতো, নয় তো থানায় গিয়ে মামলা করতে পারতো। ১ মাস ৭ দিন পর কেন মামলা হলো? আসলে ধর্ষণের পুরো ঘটনা আমার চিটার বউ সাজিয়েছে। আমার চিটার বউ থানায় গিয়ে নিজের খালাত বোন পরিচয় দিয়ে মামলা করিয়েছে।’

    পিয়াসাকে উদ্দেশ করে দিলদার আহমেদ বলেন, ‘একটা মেয়ে ১৫ বছর ধরে ঢাকায় থাকে। যার কোনো চাকরি নাই, ইনকামও নাই! তাহলে সে কী করে একটা বাসাবাড়িতে থাকে? প্রতিমাসে তার ২ লাখ টাকা খরচ হয়। এ টাকার উৎস কোথায়? তারা বাবাও কোনো ধনী লোক না? সে টাকা কোথায় পেল?’

    তিনি আরো বলেন, ‘অনেক প্রমাণ আছে আমার কাছে। যে মেয়ে আমার ছেলেকে রেপ কেসের কথা বলেছে, সেই মেয়ে আমার ছেলের পূর্ব পরিচিত। ফেসবুকে ছবি-টবিও তার সঙ্গে আছে। মেয়েগুলোকে এই পিয়াসাই পরিচয় করাইয়া দিছে। পিয়াসা কোনো না কোনো মানুষের মাধ্যমে পরিচয় করাইয়া দিয়া এ নাটকাটা করছে।’

    উল্লেখ্য, এর আগে পিয়াসা সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘এ মামলায় আমার কোনো রকম সংশ্লিষ্টতা নেই। আমি বরং সে দুটি মেয়েকে ধন্যবাদ দেব, তারা সাহস দেখিয়েছে ভদ্রবেশী শয়তানদের মুখোশ খুলে দিতে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757