• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    যেভাবে করবেন মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তন

    | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৯:৪১ অপরাহ্ণ

    যেভাবে করবেন মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তন

    রাস্তাঘাটের যানজট, রাইড শেয়ারিং কিংবা শখ- বিভিন্ন কারণে দেশে বাড়ছে মোটরসাইকেলের সংখ্যা। কিন্তু অনেক মানুষের নতুন বাইক কেনার সামর্থ্য নাই, যার ফলে পুরাতন মোটরসাইকেলের বা সেকেন্ডহ্যান্ড মোটরসাইকেল কিনছেন কেউ কেউ। তবে জানাশোনা না থাকায় পুরাতন বা সেকেন্ডহ্যান্ড মোটরসাইকেল কিনে মালিকানা পরিবর্তন করার সময় সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।


    চলুন জেনে নিই মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তনের নিয়ম-


    মালিকানাচ পরিবর্তনের ফর্মসমূহ:

    ফরম-টিও, ফরম-টিটিও, বিক্রয় রসিদ, OWNER’S PARTICULARS/SPECIMEN SIGNATURE ফরম লিখতে হবে আর ১৫০ টাকা মূল্যমানের দুইটি স্ট্যাম্প যাতে গাড়ির সকল তথ্য ও ক্রেতা-বিক্রেতার সব তথ্য দিয়ে হলফনামা লিখতে হবে। একটি ক্রেতার পক্ষে আরেকটি বিক্রেতার পক্ষে।

    ক্রেতার করণীয়:

    পূরণ-কৃত ও স্বাক্ষরিত ‘টিও’ ও ‘টিটিও’ ফরম পূরণ করা লাগবে। প্রয়োজনীয় ফি জমা দানের রশিদ, ক্রেতার TIN সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি (ভাড়ায় চালিত নহে এমন কার, জিপ, মাইক্রোবাস-এর ক্ষেত্রে), মূল রেজিস্ট্রেশন সনদ (উভয় কপি)/ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে), ছবিসহ নন-জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে ওয়ারিশগণের হলফনামা [একাধিক ওয়ারিশ থাকলে এবং একজনের নামে মালিকানা প্রদান করা হলে অন্যান্য ওয়ারিশগণ কর্তৃক স্ট্যাম্পে আর একটি হলফনামা দিতে হবে]

    এছাড়া সংশ্লিষ্ট নমুনা স্বাক্ষর ফরমে ত্রেতার নমুনা স্বাক্ষর এবং ইংরেজিতে নাম, পিতার/স্বামীর নাম, পর্ণ ঠিকানা ও ৩ কপি স্ট্যাম্প আকারের রঙ্গিন ছবিসহ ফরমের অন্যান্য সকল তথ্য প্রদান করতে হবে। তবে ক্রেতা কোনো প্রতিষ্ঠান হলে, ওপরে বর্ণিত কাগজপত্রসহ (হলফনামা ব্যতীত) অফিসিয়াল প্যাডে চিঠি লিখতে হবে।

    বিক্রেতার করণীয়:

    ফরম ‘টিটিও’ এবং বিক্রয় রশিদে স্বাক্ষর, বিক্রেতার ছবিসহ বিক্রয় হলফনামা, বিক্রেতা কোম্পানি হলে কোম্পানির লেটার হেড প্যাডে ইন্টিমেশন, বোর্ড রেজুলেশন ও অথরাইজেশন পত্র প্রদান, মোটরযানটি ব্যাংক অথবা অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের নিকট দায়বদ্ধ থাকলে দায়বদ্ধকারী প্রতিষ্ঠানের ঋণ পরিশোধ সংক্রান্ত ছাড়পত্র সংগ্রহ করে তা দাখিল করা লাগবে।

    ওয়ারিশ সূত্রে মালিকানা বদলীর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

    পূরণকৃত ও স্বাক্ষরিত ‘টিও’ ও ‘টিটিও’ ফরম, কোর্ট/স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত ওয়ারিশ সংক্রান্ত সনদ, প্রয়োজনীয় ফি জমাদানের রশিদ, একাধিক ওয়ারিশ থাকলে প্রথম ওয়ারিশের TIN সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি (ভাড়ায় চালিত নহে এমন কার, জিপ, মাইক্রোবাস-এর ক্ষেত্রে), মূল রেজিস্ট্রেশন সনদ (উভয় কপি)/ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে), ছবিসহ নন-জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে ওয়ারিশসূত্রে মালিকানা প্রাপ্তি সংক্রান্ত ওয়ারিশগণের হলফনামা [একাধিক ওয়ারিশ থাকলে এবং একজনের নামে মালিকানা প্রদান করা হলে সেক্ষেত্রে অন্যান্য ওয়ারিশগণ কর্তৃক সকলের ছবিসহ নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে আর একটি হলফনামা], নমুনা স্বাক্ষর ফর্মে নমুনা স্বাক্ষর এবং ইংরেজিতে নাম, পিতার/স্বামীর নাম, পর্ণ ঠিকানা ও তিন কপি স্ট্যাম্প আকারের রঙিন ফটোসহ ফরমের অন্যান্য তথ্য পূরণ করা লাগবে।

    সূত্র- বিআরটিএ

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669