• শিরোনাম

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    যেভাবে তোলা হয়েছিল ফেসবুকে ছড়ানো দুই তরুণীর ছবি

    অনলাইন ডেস্ক | ২১ মে ২০১৭ | ৭:৫৭ অপরাহ্ণ

    যেভাবে তোলা হয়েছিল ফেসবুকে ছড়ানো দুই তরুণীর ছবি

    ছবিগুলো ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

    রাজধানীর বনানীতে রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণের শিকার দুই তরুণীর ছবি ফেসবুকে প্রকাশ করে ভার্চুয়াল নির্যাতনে মেতে উঠেছে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্তদের সমর্থক একটি গোষ্ঠী। যথারীতি ধর্ষণের শিকার দুই তরুণীকেই দায়ী করছে বেশ কিছু মানুষ। কিন্তু সেই ছবিগুলো কীভাবে, কখন, কোন পরিস্থিতিতে তোলা হয়েছিল? একটিবারও কি কেউ প্রশ্ন করে দেখেছেন? লন্ডন প্রবাসী আইনজীবি নিঝুম মজুমদার ভিক্টিমদের সঙ্গে কথা বলে ফেসবুকে জানিয়েছেন সেই ছবির পেছনের গল্প। তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

    এই ধরনের পরিস্থিতিতে এই রকম প্রশ্ন করাটা পাপ অন্তত আমি যেখানে পুরো ঘটনাই ভালো করে জানি কিংবা শুনেছি। তারপরেও আমি টেলিফোনের ওপার থেকে তাকে প্রশ্ন করি, “ফেসবুকে একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে, আপনি জানেন?”


    মোবাইলের পর্দায় উত্তর ভেসে আসে, “জানি ভাইয়া। জানবো না কেন? সারাটা দিন তো মানুষ আমাদের এই ছবিই দেখায়…এই দেশের মানুষ একটু একটু করে আমাদেরকে মৃত্যুর দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এখন আত্নহত্যা ছাড়া আমাদের পথ নেই”

    কারো সাথে টেক্সট আদান-প্রদানে অন্য দিক থেকে ব্যাক্তির অনুভূতি, বক্তব্যের টোন বোঝা যায়না। কিন্তু আমার মনে হলো, আমি যেন সেটি বুঝতে পারলাম।

    একটা বিষাদগ্রস্থ দীর্ঘশ্বাসের শব্দ কি ভেসে এলো? একটা কান্নার শব্দ? কী জানি…আমার মনে হলো একটা গোপন ব্যাথাবোধ কি করে যেন একজন আহত মানুষের মুখ দিয়ে অস্ফুট স্বরে বের হয়ে গেলো। কষ্টের কি শব্দ হয় কিংবা গ্লানির? দুঃখের কি শব্দ হয় কিংবা বেদনার? জানিনা…

    আমরা টেক্সটের উভয় দিকে কিছুক্ষণ চুপ করে থাকি। আমি একবার টাইপ করি, একবার মুছে দেই। আরেকবার টাইপ করি, আরেকবার মুছে দেই। কী লিখব, কী বলব কিছুই বুঝতে পারিনা। আমার এই সংকট তিনি খুব সম্ভবত বুঝতে পারেন। আমার সকল অযাচিত কৌতূহল, আমার পৌনঃপূনিক প্রশ্নের উত্তরে তিনি লেখেন,
    “ভাইয়া এই ছবিটা ওই ঘটনার পরে তোলা। এই ছবিটার জন্য আমাকে একবার বলা হলো, “পোজ দিয়ে ছবি তোল। ” একবার বলা হলো, “এই হাসিস না কেনো? হেসে হেসে পোজ দে। ” একবার বলা হলো, “আমাকে চুমু দিচ্ছিস এইভাবে পোজ দিয়ে ছবি তোল, সামনে কাজে লাগবে”
    “আমি কী করে রেজিস্ট করি ভাইয়া? একদিকে একটা ভয়ংকর দর্শন বডিগার্ড, একদিকে পিস্তল তাক করা, একদিকে আরেকজন ছোটবোনকে আমাদের ডাক্তার বন্ধুর সাথে জোর করে অন্য রুমে আটকে রাখা হয়েছে। গাড়ির চাবিটা আটকে রেখেছে। আমি কিভাবে আটকাবো ভাইয়া? আপনি একজন আইনের মানুষ, আপনি বোঝেন না ভাইয়া? একটা মেয়ে ঠিক কোন অবস্থাতে অমন ছবি তোলে ঠিক অমন একটি দিনে?”

    Comments

    comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী