• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    রমজানের ফজিলতপূর্ণ ইবাদত

    মুহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম | ২৮ মে ২০১৭ | ৮:৩২ অপরাহ্ণ

    রমজানের ফজিলতপূর্ণ ইবাদত

    রমজান মাসে জাহান্নামের দড়জা বন্ধ করে দেয়া হয়, শয়তানকে আটক করে রাখা হয়। আল্লাহ পাকের রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের দড়জাকে প্রশস্ত করে দেয়া হয়। রমজানে কদরের রাত আছে যা হাজার মাসের চাইতেও বেশি ফজিলতপূর্ণ। রমজানে একটি নফল একটি ফরজের সমান, একটি ফরজ ৭০টি ফরজের সমান। রমজানের সেহেরি খাওয়াও একটি ফজিলতপূর্ণ ইবাদত। ইফতার খাওয়াও ইবাদত। যে কোন রোজাদারকে ইফতার করায় সে রোজাদারের সমান সওয়াব লাভ করে। সাহাবা (রাঃ) দরিদ্র ছিলেন। তাই তারা আল্লাহর রসুল (সাঃ)-কে বললেন, ইয়া রসুলুল্লাহ, আমরা সকলেই তো ইফতার খাওয়াবার সামর্থ্য রাখি না। নবিজী জবাব দিলেন, পেট ভরে ইফতার করাতে হবে না। এই সওয়াব তো খেজুরের এক টুকরা বা এক পেয়ালা দুধ বা এক চুমুক পানি পান করালেও হবে। এক হাদিসে আছে, যে তার হালাল উপার্জন থেকে কোন রোজাদারকে ইফতার করায়, পুরা রমজানের রাতভর ফেরেশতারা তার জন্য রহমত আনতে থাকে। রমজানের সর্বশেষ রাতে সবাইকে মাপ করে দেয়া হয়। সাহাবা (রাঃ)-রা আরজ করলেন, তাহলে কি সেই রাত কদরের রাত? নবিজী (সাঃ) জবাব দিলেন, না, নিয়ম হল কাজ শেষে মজুরী দিয়ে দেয়া হয়। অর্থাৎ সারা মাস রোজা রাখার কারণে রমজান মাসের শেষ রাতে রোজাদার সবাইকে মাপ করে দেয়া হয়।


    রমজানের রোজা ফরজ। তাই নিতান্ত অপারগ না হলে কেউ রোজা ছাড়তে পারবে না। যদি এই পরিমাণ অসুস্থ হয় যে রোজা রাখলে তার মৃত্যুর সম্ভাবনা আছে বা রোগের প্রভাব অতি মাত্রায় বৃদ্ধি পাবে, কিংবা অধিক বৃদ্ধ হবার কারণে রোজা রাখা কোন ভাবেই সম্ভব না বা অন্য কোন যুক্তি সংগত কারণে একজন দ্বীনদার মুফতি সাহেব রোজা ছাড়ার অনুমতি দিয়েছেন, কেবল সেই ক্ষেত্রে রোজা না রাখা যেতে পারে। এছাড়া কেউ রোজা ছাড়তে পারবে না। অনেকেই সেহেরি না খেতে পারলে রোজা ছেড়ে দেয়। এটা গোনাহ। সেহেরি খাওয়া সুন্নত আমল। রোজা রাখা ফরজ। সুন্নতের কারণে ফরজ ছেড়ে দেয়া যাবে না। উপরে উল্লেখিত কোন যুক্তিসংগত কারণে রোজা ছেড়ে দিলে পরবর্তীতে একের বদলে এক কাজা রোজা আদায় করতে হবে। অপারগ বৃদ্ধ্ ব্যক্তির জন্য প্রতি রোজার বদলে ফিতরা পরিমাণ ফিদিয়া আদায় করতে হবে। অর্থাৎ এক রোজার বদলে এক ফিতরার সমপরিমাণ টাকা সদকা করতে হবে। কিন্তু কেউ যদি রোজা রেখে ইচ্ছাকৃত ভাবে রোজা ভেঙ্গে ফেলে বা স্ত্রী সহবাস করে, তাহলে তাকে কাজা ও কাফফারা উভয় আদায় করতে হবে। এক্ষেত্রে ১ রোজার বদলে ৬০ রোজা বা ৬০ জন মিসকিনকে ১বেলা পেটপূর্ণ খানা খাওয়াতে হবে।

    ajkerograbani.com

    রোজা রাখার উদ্দেশ্য হল আমাদের মধ্য থেকে খাহেশাতের প্রতি আকর্ষণ দূর করা। রোজা কেবল পানাহার থেকে বিরত থাকার নাম নয়, বরং সমগ্র খাহেশাত থেকে বিরত থাকা চাই। হারাম জিনিস দেখা, মিথ্যা কথা বলা ও গিবত করার দ্বারা ওযু ও রোজা নষ্ট হয়ে যায়। নষ্ট হয়ে যাবার অর্থ ভঙ্গ হয়ে যাওয়া নয়, বরং এর মানে হল সওয়াবহীন হওয়া।
    রমজানের আর একটি আমল হল ফিতরা। ফিতরার উদ্দেশ্য হল গরিবের ঈদ হয়ে যাওয়ার। ৫ টাকা ৫ টাকা করে ভিক্ষুককে আমরা ফিতরা দিব না। ফিতরার পুরো টাকা আমরা কোন গরিব পরিবারকে দেব। সরকারি হিসাব অনুযায়ি ফিতরা দেব না। আমরা ঘরে যেই চাল খাই, সেই চালের দাম অনুযায়ি দিব। তার থেকে উত্তম হল খেজুর বা কিচমিচের মূল্য দিয়ে ফিতরা দেয়া।
    রমজানের সাথে সম্পর্কিত না হলেও এটা প্রচলিত যে, রমজানে জাকাত দেয়া হয়।

    একটি হাদিসের অংশ লিখে শেষ করি। নবিজী (সাঃ) মিম্বারে উঠার সময় জিব্রাইল (আঃ) দোয়া করলেন, ধ্বংস হোক ঐ ব্যক্তি যে রমজানের রোজা পেল কিন্তু নিজের গোনাহ ক্ষমা করাতে পারল না। নবিজী (সাঃ) সেই দোয়ার সাথে বললেন, আমিন। তাই রমজানে যেন আমাদের সবার গোনাহ মাপ হয়ে যায় তার জন্য খুব চেষ্টা করা চাই। নতুন গোনাহ যেন না হয় সেদিকে খুব খেয়াল করা চাই। তারাবি নামাজ জরুরি। ৮ রাকাত বলে কোন তারাবি নামাজ নেই। এক শ্রেণীর লোক এই গুরুত্বপূর্ণ নামাজ সম্পর্কে বিভ্রান্ত করার জন্য একটি হাদিসের ভুল ব্যাখ্যা দেয়। তারাবি নামাজ পুরা ২০ রাকাতই পরতে হবে। ঘরে ঘরে ইফতারের নামে ব্যাপকভাবে যে অপচয় করা হয় তা থেকে বিরত থাকা উচিত। রাস্তাঘাট থেকে বেনামাজি লোকদের রান্না করা ভাজাপুরা, জিলাপি, হালিম ইত্যাদি খাওয়া থেকে বিরত থাকা চাই। এগুলো সারাদিনের রোজার রুহানিয়াত নষ্ট করে দেয়। ইফতার পার্টির নামে ফাজলামি করা থেকে বিরত থাকা চাই। এসময় দোয়া কবুল হয়। তাই খুব দোয়া করা চাই। ঘরে ইফতারের আয়োজন করে রাওজাদারদের দাওয়াত করে খাওয়ানো চাই। খুব দান সদকা করা চাই। খুব বেশি কালামে পাকের তেলোয়াত করা চাই। যাদের সম্ভব হয় তারা ইতিকাফ করে কদরকে তালাশ করবে। জামা কাপড় প্রয়োজন না হলে শুধু ঈদ উপলক্ষে কেনার প্রয়োজন নেই। ঈদের দিন ভয়ের দিন। এই দিনে শয়তানকে মুক্ত করে দেয়া হয়, জাহান্নাম খুলে দেয়া হয়। গোনাহ মাপ হল কি হল না, আগামী রমজান তকদিরে আছে কি নাই।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757