• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    রাজধানীতে লাখ টাকা নিয়ে পকেটমারের চম্পট

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ৩০ এপ্রিল ২০১৭ | ৯:৩৫ অপরাহ্ণ

    রাজধানীতে লাখ টাকা নিয়ে পকেটমারের চম্পট

    রাজধানীর রামপুরা এলাকায় আজ রবিবার এক বাসযাত্রীর পকেট থেকে এক লাখ টাকা নিয়ে চম্পট দিয়েছে দুই পকেটমার। ঘটনা টের পেয়ে পকেটমার দলের একজনকে হাতেনাতে ধরে ফেলে ওই যাত্রী। ওই পকেটমারকে গণধোলাই থেকে ছাড়িয়ে নিতে যায় তাদের আরেক সহযোগী। পরে তাকেও আটক করে যাত্রীরা। পরে দুজনকে ধোলাই দিয়ে রামপুরা থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।


    এই ঘটনায় হাসান খন্দকার নামের ওই ভুক্তভুগী আজ রবিবার রাতে রামপুরা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। তবে পুলিশ তাঁর টাকা উদ্ধার করে দিতে পারেনি। তদন্ত সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, আটককৃত দুই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করে চক্রটি শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

    ajkerograbani.com

    ভুক্তভুগী হাসান খন্দকার জানান, তিনি পেশায় একজন গাড়িচালক। থাকেন রামপুরার বৌবাজারে আত্মীয়ের বাসায়। আজ রবিবার দুপুরে গুলশান ১ নম্বরের সোনালী ব্যাংক থেকে ওই টাকা তুলে তিনি প্রথমে শাহজাদপুরের সুবাস্তু নজরবেলী মার্কেটের সামনে যান। সেখান থেকে তুরাগ পরিবহনের একটি বাসে ওঠেন রামপুরা বাজারের উদ্দেশ্যে। দুপুর ১টার দিকে বাসটি রামপুরা ব্রিজ পেরুতেই তিনজন এসে হাসানকে ধাক্কা দেয়।

    তাদের একজন বলেন, ভাই নামবেন নাকি? এরই মধ্যে যাত্রীদের একটি জটলার মধ্যে পড়ে যান হাসান। তখন টের পান তার পকেটে থাকা টাকার বান্ডিল নেই। কিছু সময় আগেই ওই বান্ডিল ছিল। তখন হাসান তাকিয়ে দেখেন সন্দেহভাজন তিনজনের দু’জন ধীরগতির বাস থেকে নেমে পড়েছে।

    হাসান আরো বলেন, ওই সময় তিনি ‘পকেটমার পকেটমার’ বলে চিত্কার করে অপর যুবককে ধরে ফেলেন। প্রথমে বাসের অন্য যাত্রীরা তার কথা বিশ্বাস না করলেও পরে তাকে সাহায্য করে। বাসটি যখন রামপুরা বাজারের কাছাকাছি যায় তখন আরেক যুবক ধরা পড়া যুবকের পক্ষ নিয়ে তাকে ছাড়াতে যায়। তখন বাসের যাত্রীরা ওই যুবককেও আটক করে। পরে দুজনকে গণধোলাই দিয়ে রামপুরা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

    হাসান বলেন, ‘এক হাজার টাকার নোটগুলো একটি বান্ডিলে ছিল। আমি গরিব মানুষ। আমার কষ্টের উপার্জনের টাকা। বাড়িতে ঘর করার জন্য টাকাটা পাঠাতে চেয়েছিলাম। ওরা আমার টাকাগুলো নিয়ে গেল। পুলিশ বলছে- সাথেরগুলো স্বীকারই করে না। আমি নিশ্চিত ওরা একই দলের লোক। জানি না টাকা ফিরে পাব কীনা!’

    জানতে চাইলে রামপুরা থানার ওসি প্রলয় কুমার সাহা বলেন, ‘ঘটনাটি ছিনতাই নয়, পকেটমারের কাজ। মামলা হচ্ছে। আমরা তদন্ত করছি। আটককৃত দু’জনকে ব্যাপকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ’[LS]

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757