• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    রোদে ঘুরে বেড়ালেই কি জন্ডিস হয়?

    অনলাইন ডেস্ক | ২৭ এপ্রিল ২০১৭ | ১:৪২ অপরাহ্ণ

    রোদে ঘুরে বেড়ালেই কি জন্ডিস হয়?

    শীত ও গ্রীষ্ম—বাইরে যখন প্রচণ্ড রোদ্দুর, এ রকম দিনে বাইরে রোদ পেরিয়ে ঘুরে আসা অনেককেই বলতে শোনা যায়, এত রোদে ঘুরছি, শেষে না জন্ডিস হয়ে যায়। রোদে ঘুরলে জন্ডিস হয়—এমন ধারণা অনেকেরই। প্রকৃতপক্ষে রোদে ঘুরে বেড়ানোর সঙ্গে জন্ডিসের কোনো সম্পর্ক নেই। তবে এতকাল ধরে এ রকম একটি ধারণা কীভাবে মানুষের মনে প্রোথিত হলো? হ্যাঁ, সে প্রসঙ্গে আসার আগে জন্ডিস সম্পর্কে কয়েকটি কথা বলে নেওয়া প্রয়োজন।


    জন্ডিস কোনো রোগ নয়। জন্ডিস হলো বিভিন্ন রোগের উপসর্গ। অর্থাৎ বিভিন্ন রোগে জন্ডিস দেখা দিতে পারে। শরীরে জন্ডিস দেখা দেওয়ার একটি প্রক্রিয়া রয়েছে, এ প্রক্রিয়ার মধ্যে আছে লাল রক্তকণিকা ভেঙে যাওয়া, লিভারের বিলিরুবিন (লাল রক্তকণিকা ভেঙে যাওয়ার পর সৃষ্ট উপাদান) পরিবহনে ত্রুটি, লিভার কোষের অসুস্থতা, কোলিস্টাসিস বা পিত্তরসের স্থবির প্রবাহ।

    ajkerograbani.com

    চিকিৎসাবিজ্ঞানের মতে, জন্ডিসের কারণ অনেক। সাধারণত লিভার বা যকৃতের বিভিন্ন রোগে জন্ডিস দেখা দেয় সবার আগে। লিভার রোগাক্রান্ত হওয়ার কারণও অনেক। অনেকভাবে চিকিৎসাবিজ্ঞান একে শ্রেণিবিভক্ত করেছে। জন্ডিসের কারণ সাধারণের কাছে বোধযোগ্যভাবে বলতে যেটুকু বলা যায় ভাইরাল ইনফেকশন (হেপাটাইটিস-এ, বি, সি ও ডেল্টাভাইরাসজনিত), অ্যালকোহল, কিছু কিছু ওষুধ, পিত্তনালি ও পিত্তথলির মুখে সৃষ্ট সংকীর্ণ পথ, পিত্তনালি ও পিত্তথলির পাথর, পিত্তথলি সম্পর্কিত টিউমার, মেটাবলিক ডিজিজ, ইনটেসটাইনাল বাইপাস সার্জারি, হেপাটিক কনজেশন, পিত্তথলির ক্যানসার, গর্ভাবস্থা, অস্বাভাবিক রক্তপাত, রক্তকণিকা ভেঙে যায় যেসব অসুখে, শক ও পুড়ে যাওয়া।

    রোদে বেড়ানোর সঙ্গে এসব কারণের কোনো সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া যায় না। তবে রোদে ঘুরে বেড়ানোর বিষয়টি কীভাবে জন্ডিস সৃষ্টির সঙ্গে জড়িয়ে পড়ল, সে সম্পর্কে একটু আলোকপাত করা যাক। জন্ডিস হলে আমরা সাধারণভাবে কী দেখি? দেখি প্রস্রাব হলুদ বর্ণের হয়, ত্বক হলুদাভ হয়, হলুদাভ দেখা যায় চোখের সাদা অংশ বা স্ক্লেরা। এ ছাড়া রক্তের বিলিরুবিনের মাত্রা বেড়ে গিয়ে ৫০ মাইক্রোমোল/লিটার অথবা ৩ মিলিগ্রাম/ডেসি লিটারের ওপর চলে যায়।

    রোদে ঘুরলে গরম শরীর থেকে প্রচুর পানি বেরিয়ে যায় ঘামের মাধ্যমে। এতে প্রস্রাবের পরিমাণ কমে যায় এবং বেশি ঘনত্বের প্রস্রাব তৈরি হয়। এটি দেখতে গাঢ় বর্ণের, অর্থাৎ সরিষার তেলের রঙের মতো। শরীর থেকে পানি ও লবণ বেরিয়ে যায় বলে শরীরে অবসাদ ভর করে, ক্লান্ত লাগে, চোখ শুকিয়ে যায়। এসব উপসর্গ দেখে লোকজন একে জন্ডিস বলে ভুল করে। কিন্তু এটি কোনো জন্ডিস নয়। প্রচুর পানি পান করলে কিংবা লবণজলের শরবত খেলেই এটি ঠিক হয়ে যায়। রোদে ঘুরলেই যদি জন্ডিস হতো, তাহলে এ দেশের কৃষক, মুটে মজুর যাঁরা রোদে কাজ করেন, তাঁরা আর প্রাণে বাঁচতেন না।

    মারাত্মক ধরনের জন্ডিস থেকে রেহাই পেতে বিশুদ্ধ পানি পান করুন। টিউবওয়েলের পানি কিংবা অন্য কোনো পরিষ্কার পানি ১০ মিনিট ফুটিয়ে ঠান্ডা করে পান করুন, রক্ত পরিসঞ্চালনের সময় রক্তের বিশুদ্ধতা নিশ্চিত করুন। ডিসপোজেবল সিরিঞ্জ ব্যবহার করুন, তবেই জন্ডিসের কবল থেকে আপনি অনেকাংশে রক্ষা পাবেন।G

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757