• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    শিশুকে কোলে দিতেই কোমা থেকে জেগে উঠলেন মা!

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ১৮ এপ্রিল ২০১৭ | ১২:১০ পূর্বাহ্ণ

    শিশুকে কোলে দিতেই কোমা থেকে জেগে উঠলেন মা!

    একেই বলে নাড়ীর টান! সন্তানকে কোলে দিতেই কোমা থেকে বেরিয়ে এলেন মা। অথচ আর্জেন্টিনার এই নারীকে এক প্রকার জবাবই দিয়ে দিয়েছিলেন ডাক্তাররা। পরিবারও ধরে নিয়েছিল, কোমাতেই বাকি দিনগুলো কাটবে মেয়ের।


    এমেলিয়া বান্নান নামে ওই নারী আর্জেন্টিনা পুলিশে চাকরি করতেন। তিনি তখন পাঁচমাসের সন্তানসম্ভবা। একদিন স্বামী ও বন্ধুদের সঙ্গে গাড়িতে চেপে বেড়াতে যাচ্ছিলেন। রাস্তায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তাঁদের গাড়ি। এমেলিয়া সব থেকে বেশি জখম হন। মাথা ফেটে যায় তাঁর। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা জানান, চোট খুব গভীর লাগেনি ঠিকই। কিন্তু মাথায় রক্ত জমাট বেঁধে গিয়েছে। এরপরই কোমায় চলে যান এমেলিয়া। এত বড় দুর্ঘটনা ঘটলেও এমেলিয়ার গর্ভস্থ সন্তান সম্পূর্ণ সুস্থ ছিল।

    ajkerograbani.com

    এরপর সবটাই যেন গল্পের মত। কোমায় থাকা অবস্থাতেই ২০১৬ সালের ২৫ ডিসেম্বর এক পুত্রসন্তানের জন্ম দেন তিনি। পরিবার সেই ছেলের নাম রাখে স্যান্টিনো। মা কোমায় থাকায়, মাসির কাছে রাখা হয় ছোট্ট স্যান্টিনোকে। তবে নিয়ম করে মায়ের কাছে আনা হত তাকে। সন্তানের টানেই একদিন সাড়া দেবেন এমেলিয়া, এমনটাই বিশ্বাস ছিল তাঁর পরিবারের। তিন মাস পর হল তেমনটাই।

    এমেলিয়ার ভাই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। যেখানে দেখা গিয়েছে, পুঁচকে স্যান্টিনোকে আদর করতে চেষ্টা করছেন তিনি। ধীরে ধীরে সাড়া দিচ্ছেন এমেলিয়া। হ্যাঁ বা না-তে উত্তরও দিচ্ছেন। মায়ের ধীরে ধীরে সুস্থ হওয়ার জন্য ছোট্ট স্যান্টিনোকেই ক্রেডিট দিচ্ছে তার পরিবার। এমন ম্যাজিকে অবাক বনে গিয়েছেন ডাক্তাররাও। এবার আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হয়ে উঠবেন এমেলিয়া, মনে করছেন তারা। সেরে উঠুন ছোট্ট স্যান্টিনোর মা। মায়ের আদরে বেড়ে উঠুক খুদেটি। চাইছেন আপামর বিশ্বের মানুষ। [LS]

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিয়ে করাই তার নেশা!

    ২১ জুলাই ২০১৭

    কে এই নারী, তার বাবা কে?

    ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757