• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    শিয়ালের কামড়ে আহত বৃদ্ধার দায়িত্ব নিতে কাড়াকাড়ি

    অনলাইন ডেস্ক | ৩০ মে ২০১৭ | ১:০০ অপরাহ্ণ

    শিয়ালের কামড়ে আহত বৃদ্ধার দায়িত্ব নিতে কাড়াকাড়ি

    ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়ার ‍”বৃদ্ধা মা বিবি মরিয়ম এখন বোঝা, স্থান গোয়াল ঘরে” শিরোনামে সচিত্র প্রতিবেদন বিডি২৪লাইভে প্রকাশের পর তার চিকিৎসার দায়িত্ব ভার নিতে শুরু হয় রীতিমত হুলস্থুল কান্ড ঘটে গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদটি ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়ার পর টনক নরে প্রশাসন সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের। এ ঘটনায় স্থানীয় প্রশাসন,স্থানীয় এমপি এবং মুক্তাগাছার এমপিসহ সমাজ সেবা অধিদপ্তরের লোকজন ছুটে আসেন বৃদ্ধার কাছে। অবশেষে স্থানীয় এমপি এড.মোছলেম উদ্দিন অসহায় মহিলার দায়িত্বভার গ্রহন করেন। সোমবার সকালে বৃদ্ধাকে দেখতে বাড়ীতে ছুটে যান ফুলবাড়িয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার লীরা তরফদার। এ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে আসেন ফুলবাড়িয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে বৃদ্ধা মছিরন নেতাকে দেখতে যান স্থানীয় এমপি মোঃ মোছলেম উদ্দিন।


    তিনি তার চিকিৎসার দায়িত্বভার গ্রহন করেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। তোলপাড় সৃষ্টি হওয়া এ সংবাদে ফুলবাড়ীয়ায় ছুটে যান মুক্তাগাছার এমপি সালাউদ্দিন মুক্তি। তিনি স্থানীয় গনমাধ্যমকে জানান বিরোধী দলীয় নেত্রী রওশন এরশাদ তাঁকে পাঠিয়েছেন বৃদ্ধার খোঁজ খবর নিতে। তিনি বলেন রওশন এরশাদ বৃদ্ধার সমস্ত দায়িত্ব গ্রহন করতে আগ্রহী। শতবর্ষী সেই অসুস্থ্য বৃদ্ধার পাশে দাঁড়ালেন স্থানীয় এমপি ও উপজেলা প্রশাসনসহ অনেকেই। সোমবার বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর ব্যাপক টনক নড়ে সর্বত্র। দেশ বিদেশ থেকেও বিভিন্ন শ্রেণীর পেশার লোকজন সাংবাদিকের কাছে ফোনে অসুস্থ্য বৃদ্ধার খোজ খবর নেন।

    ajkerograbani.com

    সোমবার সকালে ফুলবাড়ীয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার লীরা তরফদার বৃদ্ধা মরিয়ম নেছাকে বাড়ি থেকে এ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে এসে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপতালে ভর্তি করান। উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাঃ সিদ্দিকুর রহমান, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ নজরুল ইসলাম, ডাঃ হারুন আল মাকসুদসহ তিন সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

    সকাল সাড়ে ১১ টায় স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোসলেম উদ্দিন হাসপতালে দেখতে যান অসুস্থ্য মরিয়ম নেছাকে। শারিরীক খোঁজ খবর নেওয়ার পর তিনি নগদ অর্থ প্রদান, চিকিৎসা ও পরবর্তীতে সকল দায়িত্বভার নেন তিনি। এসময় সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক আমিনুল ইসলাম বৃদ্ধা মরিয়ম নেছার জন্য একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড, ইউএনও, উপজেলা স্বাস্থ্য প.প. কর্মকর্তা, স্থানীয় সাংবাদিক আব্দুল হালিম চিকিৎসার জন্য নগদ অর্থ তুলে দেন সংসদ সদস্যের উপস্থিতিতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ময়েজ উদ্দিন তরফদারের কাছে।

    দুপুর একটায় অসুস্থ্য বৃদ্ধা মহিলাকে দেখতে ফুলবাড়ীয়া আসেন মুক্তাগাছা আসনের জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য সালাউদ্দিন আহামেদ মুক্তি। তিনি আসার আগেই বৃদ্ধার শারিরীক অবস্থা অবনতি হওয়ায় উন্নয়ত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপতালে। সংসদ সদস্য সালা উদ্দিন আহামেদ মুক্তি সাংবাদিকদের বলেন, পত্রিকার খবর দেখার পর মাননীয় বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম রওশন এরশাদ এমপি বৃদ্ধা মায়ের চিকিৎসার সমস্ত দায় দায়িত্ব নিবেন বলে আমাকে পাঠিয়েছেন। এখানে এসে জানতে পারলাম স্থানীয় এমপি মোসলেম উদ্দিন ইতোমধ্যে অসুস্থ্য বৃদ্ধার সকল দায়িত্ব নিয়েছেন, এ বিষয়টি মাননীয় বিরোধীদলীয় নেত্রীকে জানানো হবে।

    সোমবার সকাল সোয়া দশটায় ফুলবাড়ীয়া উপজেলার তেজপাটুলী গ্রামে গিয়ে সাংবাদিকরা দেখেন গোয়াল ঘরে শিয়ালের কামড়ে অসুস্থ্য বৃদ্ধা মরিয়ম নেছাকে বাড়ির উঠানে শুয়ে রাখা হয়েছে। পাশে বসে রয়েছেন ইউএনও লীরা তরফদার। শত শত নারী পুরুষের ভিড়। এসময় দেখা গেল উপস্থিত সকলে ধিক্কার দিচ্ছে বৃদ্ধা মহিলার সন্তানদের এবং তাদের রিু আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানাচ্ছে।

    পরে ইউএনও উপস্থিত থেকে এ্যাম্বুলেন্স খবর দিয়ে নিয়ে আসেন। সকাল সাড়ে ১১ টায় বৃদ্ধার বাড়িতে আসেন সমাজ সেবা অদিধপ্তরের উপ পরিচালক মোঃ আমিনুল ইসলাম। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ময়েজ উদ্দিন তরফদার বলেন, বৃদ্ধার ঘটনাটি জানার পর রবিবার রাতে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছি। আখালিয়া হেলথ সেন্টার লিমিটেড চেয়ারম্যান এডভোকেট ইমদাদুল হক সেলিম হাসপতালে বৃদ্ধাকে দেখতে গিয়ে ঘোষনা দিয়েছেন, যতদিন মরিয়ম নেছা বেঁচে থাকবেন ততদিন পর্যন্ত তার চিকিৎসার সকল ওষুধপত্র সরবারাহ করবেন । উপজেলা স্বাস্থ্য ও প,প, কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ সিদ্দিকুর রহমান বলেন, বৃদ্ধা মহিলার শারিরীক অবস্থ্যা ভাল না, খাবারের অভাবে তার শারিরীক ভাবে দূর্বল হয়ে পড়েছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মচিমহায় রেফার্ড করা হয়েছে।

    উপজেলা নির্বাহী অফিসার লীরা তরফদার বলেন, সত্যিই একজন মায়ের সাথে সন্তানদের এমন নিষ্ঠুরতা পৃথিবীর সব নিষ্ঠুরতাকে হার মানিয়েছে, অসুস্থ্য বৃদ্ধা মহিলার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে হাসপতালে ভর্তি করা হয়েছে, যত ধরনের সহযোগীতা প্রয়োজন উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করা হবে। হাসপতালে সাংবাদিকদের এড.মোসলেম উদ্দিন এমপি বলেন, সংবাদ পত্রের মাধ্যমে জানতে পারি সন্তানরা একজন অসুস্থ্য বৃদ্ধা মাকে গোয়াল ঘরে রাখার পর, শিয়ালে কামড়িয়ে মাংস খেয়ে ফেলেছে এ কথা বলতে গিয়ে তিনি কেঁদে ফেলেন, সোমবার থেকে বৃদ্ধা মরিয়ম নেছা চিকিৎসাসহ সকল দায় দায়িত্ব আমার।

    উল্লেখ্য,ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার পুটিজানা ইউনিয়নের তেজপুাটুলি গ্রামের মৃত মোসলেম উদ্দিনের স্ত্রী ৫ সন্তানের জননী অসুস্থ্য মরিয়ম নেছা (৯৮) গত ৮ দিন ভাঙ্গা গোয়াল ঘরে গরুর পাশে রাখে সন্তানেরা। গত বুধবার রাতে গোয়াল ঘরে অসুস্থ্য বৃদ্ধার পায়ের মাংস অনেকটা কামড়িয়ে খেয়ে ফেলে শিয়ালে।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757