• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    শৈলকুপা ডিগ্রী কলেজ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, অধ্যক্ষের অপসরণ দাবি

    আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি | ০৬ আগস্ট ২০১৭ | ১১:৫৩ অপরাহ্ণ

    শৈলকুপা ডিগ্রী কলেজ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, অধ্যক্ষের অপসরণ দাবি

    হোস্টেল নির্মাণে সরকারী চাহিদাপত্র ফিরিয়ে দেয়ার প্রতিবাদে ঝিনাইদহের শৈলকুপা সরকারী ডিগ্রী কলেজে শিক্ষার্থীরা ব্যাপক বিক্ষোভ করেছে। তারা ক্যাম্পাসে আগুন জ্বালিয়ে প্রতিবাদ জানায়। এরপর সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়, সেখান থেকে অধ্যক্ষের অপসরণ দাবি করা হয়। সাধারন শিক্ষার্থী, কলেজ, পৌর, উপজেলা ছাত্রলীগও বিচিত্রা ছাত্র সংঘের ব্যানারে এসব প্রতিবাদ, বিক্ষোভ ও সমাবেশ হয়। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে অবশেষে ফের শিক্ষা অধিদপ্তরের চাহিদাপত্রে ‘হোস্টেলের প্রয়োজনীয়তা নেই’ এর স্থলে ‘হোস্টেলের প্রয়োজনীয়তা আছে’ উল্লেখ করে ছক পূরন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুস সোবহান।
    প্রসঙ্গত, ১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত শৈলকুপা সরকারী ডিগ্রী কলেজ একটি ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে ১৯৯২ সালে এটি সরকারী করণের পর থেকে অনেকটা অবহেলায় চলতে থাকে কলেজটি। আস্তে আস্তে ছাত্র সংখ্যা কমে যায়। আনুপাতিক হারে শিক্ষক সংকটও চলতে থাকে। কলেজটিতে অনার্স কোর্স চালুর দাবি মুখ থুবড়ে পড়ে। হতাশা জনক হয়ে পড়ে রেজাল্ট। অভিযোগ উঠেছে বর্তমানের কলেজ কর্তৃপক্ষও কোন নজরদারী রাখছে না এসবের দিকে। শৈলকুপা সরকারী ডিগ্রী কলেজের অবস্থা এতটাই করুন হয়ে পড়েছে যে সাম্প্রতি শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে কলেজে ছাত্র ও ছাত্রী হোস্টেল নির্মানের চাহিদা পত্র চাওয়া হয়েছে। অথচ কলেজের প্রিন্সিপাল পরিষ্কার লিখে দিয়েছেন কোন হোস্টেলের প্রয়োজন নেই । প্রতিষ্ঠান টি সরকারী তাই তোয়াক্কা করেননি কাউকে এমন অভিযোগ উঠেছে। তিনি কোন ছাত্র সংগঠন, সুধি সমাজ বা শৈলকুপার কোন সামাজিক বা অন্যকোন সংগঠনের সাথে এ ব্যাপারে আলোচনা করেননি বা প্রয়োজনীয়তা বোধ করেননি।
    কেন চাহিদাপত্র ফিরিয়ে দেয়া হলো, এমন প্রশ্নে খোড়া অজুহাত দিয়ে কলেজের উপাধ্যক্ষ বলেছিলেন, ‘ছাত্র নেই হোস্টেল করে লাভ কি, চামচিকা বাসা বাধবে, মাদকের আখড়া হবে, মারামারি হবে’ । এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। এরপর ছাত্রদের আন্দোলন শুরু হয় ।
    এসব নিয়ে রোববার ডিগ্রী কলেজ ক্যাম্পাসে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দিনার বিশ্বাস, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মহিদুল ইসলাম মন্নু, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রাকিব, সাধারণ সম্পাদক তানভীর পারভেজ রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান মিশন, বাধন মির্জা, কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মিরাজ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক স্বজল হোসেন, পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক শামীম রেজা প্রমুখ।
    এছাড়াও স্থানীয় শিক্ষাথী ও বিচিত্রা ছাত্রসংঘের সভাপতি ফয়সাল প্রান্ত বাবর, সাধারণ সম্পাদক রাকিব হাসান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসিফা আনোয়ার, দিপ্ত, অন্তু, আসিক,আরবি, নাহিদ,তরঙ্গ, একা, রুমকি, তৃষা, নুরনবী, তানজির, মীম, সুরাইয়া, আনিস, পলাশ, ইব্রাহীম, আলীফ, এনামুল, সাহেব, তানভীর, বর্ষা, মুন্নি, মেন্ডেলা, কবিতা, শাওন, শামীম, নাইস, তারিন, সাকিব, রাজন, রকি, আব্দুর রহমান, মনিরা, রইস প্রমুখ শিক্ষার্থী আন্দোলনে অংশ নেয় ।


    Facebook Comments


    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4755