বুধবার, মে ৫, ২০২১

জনপ্রিয়তাই কাল হলো তার

ষড়যন্ত্রের শিকার দারুস সালাম থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইসলাম

শেখ সোহেল রানা   |   বুধবার, ০৫ মে ২০২১ | প্রিন্ট  

ষড়যন্ত্রের শিকার দারুস সালাম থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইসলাম

ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগ দারুস সালাম থানার সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন মোঃ ইসলাম। তৃণমূল থেকে উঠে আসা এই নেতার সাংগঠনিক দক্ষতার বলে মন কেড়ে নিয়েছেন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী অঙ্গসংঠনের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের। ব্যক্তিগত ভাবে তিনি একজন সফল ফার্নিচার ও কাঠ ব্যবসায়ী এবং পাশাপাশি সক্রিয় রাজনীতি করে ঢাকা-১৪ আসনের সাংসদ প্রয়াত মো: আসলামুল হকসহ এলাকাবাসীর মন জয় করে নিয়েছেন আজকের এই ইসলাম ।তিনি নিজে খুব একটা শিক্ষিত না হয়েও দায়িত্ববোধের কারণে হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীর ভর্তি থেকে শুরু করে টিউশন ফি মওকুফ, অসুস্থ ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকদের বিভিন্ন ভাবে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান সহ সকল সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীর পড়াশুনা ও পরীক্ষার খোঁজ-খবর নেয়ার মাধ্যমে তিনি সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝেও আজ খুবই জনপ্রিয়। শুধু তাই নয়, তিনি নিয়মিত ভাবে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এলাকার এতিম, অসহায় গরিব -দু:খী ও অসচ্চল পরিবারের মাঝে খাদ্য , বস্ত্রসহ নগদ আর্থিক প্রদান করে চলেছেন। এই সাফল্য ও জনপ্রিয়তাই কাল হলো তার।
দারুস সালাম থানায় নির্বাচন থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের যত মিটিং-মিছিল এবং দলীয় প্রোগ্রাম হয়েছে তার নেতৃত্ব রয়েছেন এই স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো: ইসলাম। আওয়ামী সরকার বিরোধী আন্দোলনে জামাত-বিএনপি ও হেফাজত ইসলামকে প্রতিহত করে নেতা-কর্মী নিয়ে রাজপথ দখল রেখেছেন এই ইসলাম । দলীয় বিভিন্ন কর্মকান্ড সক্রিয়ভাবে পালন করার সুবাদে স্থানীয় সাংসদ প্রয়াত মো: আসলামুল হক ইসলামকে ভালোবাসতেন নিজের ছোট ভাইয়ের মতো। এই ভালোবাসাই হলো কাল।
গত ৪ এপ্রিল ঢাকা-১৪ আসনের সাংসদের মৃত্যুর পর সম্প্রতি কিছু কুচক্রী মহল ইসলামের সাফল্যে ঈর্ষান্বীত হয়ে তার জনপ্রিয়তাকে নষ্ট করতে টাকার মাধ্যমে ষড়যন্ত্রমূলক মিরপুর মাজারের বিপনি বিতান এবং কাঁচা বাজার আড়ৎে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন খবর বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রচার করে চলেছেন।
সরেজমিনে এ বিষয়ে খোঁজ নিলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু সংখ্যক ব্যবসায়ী এ প্রতিবেদকে জানায় , ইসলাম ভাই মাজার কমিটি বা কাচাবাজার আড়তের কোনো কমিটির সাথে কখনই জড়িত ছিলো না, এমনকি তিনি এ বাজারে কোনো ব্যবসার সাথে অতীতে জড়িত ছিলো না বর্তমানেও নেই, তাহলে তিনি এই কাচাবাজার আড়তে চাঁদাবাজী করলো কোথায় ব্যবসায়ীরা জানতে চায়? আমরা আমাদের এই কাঁচা বাজার আড়তের ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে ইসলাম ভাইয়ের বিরুদ্ধে মিথ্যা খবর প্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
মো: ইসলাম সম্পর্কে সিটি কলোনী, বিশাল, ২য় কলোনী, লালকুঠি, টোলারবাগ, গাবতলী, দিয়াবাড়ি, দারুস সালামের বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গের কাছে জানতে চাইলে তারা এ প্রতিবেদকে কে বলেন, ইসলাম একজন নিরহংকারী, নির্লোভ, পরোপকারী ভালো মনের মানুষ। তিনি সব সময় মাদক, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন । আমরা এ ধরনের ভিত্তিহীন সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
এ ব্যাপারে ইসলামের প্রতিবেশী ও স্থানীয় মুরব্বিদের সাথে কথা বললে তারা বলেন, ইসলাম একটি মসজিদের সভাপতি। ইসলাম একজন দয়ালু মানুষ, সব সময় গরীব দুঃখীর পাশে থেকে তাদেরকে উপকার করার চেষ্টা করে, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ এবং মাদক তো দূরের কথা তাকে কখনো সিগারেট টাও হাতে নিতে দেখি নাই। ইসলামের মত ভাল মানুষ এই এলাকায় কমই দেখেছি।
কয়েকজন মহিলা জানান, আমাদের এলাকায় ইসলাম ভাইয়ের জনপ্রিয়তা অনেক। আমরা এই ভুয়া খবরের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন আমরা জানি কে ইসলাম ভাইয়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে ? তাদের শাস্তি আল্লাহ অবশ্যই দিবে।
সমাজে এই নিন্ম আয়ের মানুষদের সঙ্গে আলাপকালে জানা যায়, তারা শুধুই ইসলামের জন্য দোয়া করছে। তারা বলেছেন, “ বিপদে যে পাশে দাঁড়ায় সেই পরম আপনজন “ । এই করোনাকালিন বিপদে আমাদেরকে তার দেওয়া খাদ্য সামগ্রী ক্ষুধার্ত সন্তানদের মুখে তুলে দিতে পারছি এর চাইতে বড় সুখ আর নাই। আমরা সকলে ইসলাম ভাইয়ের জন্য দোয়া করি। আল্লাহ যেন তাকে অনেক বড় করে।শুধু তাই নয় তিনি মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিনের ঘরে খাদ্য সামগ্রি পৌছে দিচ্ছেন। নামাজ পড়ার সময় তার জন্য দোয়া করে।
স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরাও এই ভিত্তিহীন ও ষড়যন্ত্রমূলক সংবাদের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। তারা বলেন, সকল প্রকার আন্দোলন সংগ্রাম এবং রাজনৈতিক অনুষ্ঠানে ইসলাম অনেক বড় বড় মিছিল নিয়ে অংশগ্রহণ করে। যার ডাকে হাজার হাজার মানুষ উপস্থিত হয় সে কখনো কোন খারাপ কাজ করতে পারে না।
এ বিষয়ে দারুস-সালাম থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো: ইসলামের যোগাযোগ করা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে একজন মানুষও না খেয়ে থাকবে না। সরকার অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে। আমিও ব্যক্তিগত তহবিল থেকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করছি।অতীতে সরকার এবং আওয়ামী লীগ জনগণের পাশে ছিলো, বর্তমানেও আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। আমি আমার এলাকার মানুষের পাশে অতীতেও ছিলাম বর্তমানে আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো। প্রতিনিয়ত করোনা প্রতিরোধে করণীয় নিয়ে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি।
আমি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি কারন আল্লাহ আমাকে সামান্য তৌফিক দিয়েছে। যতদিন এই মানুষগুলো গৃহবন্দী থাকবে ততদিন আমি সহায়তা করে যাবো ইনশাআল্লাহ।
তিনি বলেন, রাজনীতিতে পক্ষ-বিপক্ষ ছিলো, আছে এবং থাকবে এই নিয়েই রাজনীতি করতে হবে । উপরে আল্লাহর উপর বিশ্বাস রেখে বলতে পারি যে, কোনো দুষ্টু চক্রই আমার রাজনীতির চলার পথে ক্ষতি করতে পারবে না ইনশাল্লাহ ।
সর্বশেষে তিনি আরে বলেন , সম্প্রতি বিভিন্ন গনমাধ্যমে আমার সম্পর্কে বলা হচ্ছে অন্যান্যদের সঙ্গে আমিও কাচাঁবাজারসহ বিভিন্ন খাত থেকে চাদাঁ আদায় করি। প্রতিবেদনটি সঠিক নয় , বাস্তবে আমি একজন রাজনৈতিক কর্মী , এলাকার জনআস্থা অর্জনের মাধ্যমে সুনামের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবক লীগের দায়িত্ব পালন করে আসছি। দলের দুর্দিনেও এলাকায় দলের কাজ করেছি। বৈধ ও হালাল রুজির মাধ্যমে জীবন ধারন করি বলে রাজনীতির পাশাপাশি আমি দীর্ঘ ৩২ বছর ধরে এলাকায় ফার্নিচার ও কাঠের ব্যবস্যা করে জীবিকা নির্বাহ করি। আমি অতীতেও কখনো চাদাঁবাজীর সঙ্গে ছিলাম না , বর্তমানেও নেই এবং ভবিষ্যতেও থাকবোনা ইনশাআল্লাহ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কোন কর্মী চাদাঁবাজীর সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে না , আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি-আমি কোন চাদাঁবাজীর সঙ্গে জড়িত নেই ।
আমার বিরুদ্ধে কাচাবাজারে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে যে সংবাদটি প্রকাশিত হয়েছে , তাহা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন এবং উদ্দ্যেশ্যপ্রনোদিত। আমি উক্ত সংবাদ বা প্রতিবেদনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং এলাকাবাসীর নিকট দোয়া ও ভালোবাসা চাই।


Posted ১২:৩৩ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৫ মে ২০২১

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১