শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১

সকালে মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ, দুপুরে মৃত্যু

  |   শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | প্রিন্ট  

সকালে মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ, দুপুরে মৃত্যু

নওগাঁর ধামইরহাটে মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ পড়ার খবর শুনে সাহার উদ্দিন (৮০) নামের এক ব্যক্তি স্ট্রোক করে মারা গেছেন বলে অভিযোগ করেছেন স্বজনেরা।
বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার ধামইরহাট ইউনিয়নের নেওটা গ্রামে তার মৃত্যু হয়। সাহার উদ্দিন ওই এলাকার মৃত নয়েজ উদ্দিনের ছেলে।
স্বজনদের অভিযোগ, প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার পরও তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার অপমান সহ্য করতে না পেরে মারা গেছেন সাহার উদ্দিন।
স্থানীয় সূত্র জানায়, ধামইরহাটে গেজেটভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ৮৯ জন। ৬ ফেব্রুয়ারি ৮৯ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার যাচাই-বাছাই সম্পন্ন করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) উপজেলা কমিটি।
বৃহস্পতিবার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন তালিকা প্রকাশ করা হয়। সকালে তালিকাটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নোটিশ বোর্ডে লাগানো হয়। তালিকায় ৩২ জনকে পাস দেখিয়ে ও ৫৭ জনকে ফেল দেখানো হয়। নতুন তালিকায় সাহার উদ্দিনসহ ৫৭ জনের নাম নেই।
সাহার উদ্দিনের স্বজনদের আহাজারি
সাহার উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমার বোনের বাড়িতে ছিলেন বাবা। মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় নাম না থাকার বিষয়টি জানানো হলে বেলা ১১টার দিকে বাবা স্ট্রোক করে মারা যান।
আমার বাবা প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। মুক্তিযোদ্ধার নতুন তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার অপমান সহ্য করতে না পেরে মারা গেছেন তিনি।
দেলোয়ার হোসেন, মৃত সাহার উদ্দিনের ছেলে
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পাঁচ মেয়ে, এক ছেলে ও স্ত্রী নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গর্বের সঙ্গে জীবনযাপন করে আসছিলেন সাহার উদ্দিন। মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তিনি প্রথম থেকেই সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে এসেছেন। তার গেজেট নম্বর ৩০৩৪।
এদিকে বিকেলে সাড়ে ৪টায় রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় নেওটা গ্রামে সাহার উদ্দিনকে দাফন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গণপতি রায়, ধামইরহাট থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুরুল ইসলাম, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আবু তাহের, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ফরমুদ হোসেন ও মৃতের স্বজনেরা।
ধামইরহাট উপজেলার যুদ্ধকালীন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফরমুদ হোসেন বলেন, সাহার উদ্দিন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা। তার নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার বিষয়টি সহ্য করতে পারছি না। একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধার জন‌্য এটি বিরাট অপমানের। তার সঙ্গে অবিচার করা হয়েছে।
ধামইরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটির সদস্য সচিব গণপতি রায় বলেন, মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই তালিকা প্রকাশের সঙ্গে সাহার উদ্দিনের মৃত্যুর সম্পর্ক নেই। তিনি বয়স্ক মানুষ; অসুস্থতার কারণে মৃত্যু হয়েছে। এরপরও তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে।
ইউএনও গণপতি রায় বলেন, উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। যারা বাদ পড়েছেন আপিলের সুযোগ রয়েছে। আপিলের পর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।


Posted ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

Archive Calendar

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১