• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    সঠিকভাবে সৎকারের দাবি যৌনকর্মীদের

    আজকের অগ্রবাণী ডেস্ক: | ২৩ মে ২০১৭ | ২:৪১ অপরাহ্ণ

    সঠিকভাবে সৎকারের দাবি যৌনকর্মীদের

    ভোরের আলোয় দেখা স্বপ্ন যাদের রাতের আঁধারে হারিয়ে যায়; তারা যৌনকর্মী। জামালপুরের রাণীগঞ্জেও রয়েছে যৌনপল্লি। এই পল্লির অধিকাংশ নারী-ই ভোটার। তারা ভোট দেন জনপ্রতিনিধিদের। কিন্তু তাদের ভাগ্যে মেলে না কোন নাগরিক অধিকার। অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ নিয়ে বেড়ে ওঠে যৌনকর্মীদের শিশুরা। বৃদ্ধাদের দিন যায় অনাহারে। মৃত্যুর পর কোন ধর্মমতেই সৎকার হয় না তাদের।


    জানা যায়, প্রায় ৮ মাস আগে অসুস্থ হয়ে মারা যায় ২৭ বছর বয়সী জুঁই (ছদ্মনাম)। লাশ দাফনের জন্য জামালপুর পৌর ফৌতি গোরস্থানে নিয়ে যায় তার সহকর্মীরা। জানাজা পড়ানোর জন্য স্থানীয় আলেমদের অনুরোধ করা হলে জুঁইয়ের জানাজা পড়াতে অস্বীকার করেন। হতাশ হয়ে সহকর্মীরাই কোনভাবে মাটি চাপা দিয়ে আসে। ৭ বছর আগে একই রকম ঘটনা ঘটে শিল্পীর (ছদ্মনাম) সঙ্গেও। কোথাও সৎকার করতে না পারায় দু’দিন যৌনপল্লির রাস্তায় পড়ে থাকে শিল্পীর মৃতদেহ। খবর পেয়ে তৎকালীন স্থানীয় কাউন্সিলর সিদ্ধার্থ শংকর লাশ মাটি চাপা দেওয়ার ব্যবস্থা করে।

    ajkerograbani.com

    প্রায় আড়াইশ’ বছরের পুরনো রাণীগঞ্জ যৌনপল্লিতে মারা যাওয়া প্রত্যেক যৌনকর্মীর সঙ্গে এমনই ঘটনা ঘটে আসছে যুগ যুগ ধরে। সভ্য সমাজে ঠাঁই নেই তাদের। প্রয়োজনে হাট-বাজার কিংবা চিকিৎসার জন্য বাইরে এলে দেখা হয় অবহেলার চোখে। শিকার হতে হয় নানা লাঞ্ছনা আর অবজ্ঞার। এখানকার শিশুরাও বেড়ে উঠছে অজানা ভবিষ্যৎ নিয়ে। ছেলেরা হয়ে উঠছে মাদকাসক্ত আর মেয়েরা ধরছে মায়ের পথ। ‘অপরাজেয় বাংলাদেশ’ নামে একটি এনজিও শিশুদের নিয়ে কাজ করলেও আর্থিক সংকটে সেটিও সঙ্কুচিত হয়ে গেছে।

    অপরদিকে বয়সের ভারে ন্যুব্জরা অভাব-অনটনে দিন কাটায়। অর্ধশতাধিক বৃদ্ধা সেখানকার কর্মক্ষম যৌনকর্মীর গৃহস্থালির কাজ করে কোনরকমে বেঁচে থাকলেও রাতের বেলা ঘুমানোর জায়গা নেই। পল্লির ভেতরে কোন বাড়ির বারান্দায় রাত কেটে যায় তাদের। এখনো মেলেনি বয়স্ক ভাতার কার্ড।

    তাদের অভিযোগ, ‘নির্বাচন এলে তাদের নানা আশ্বাস দিলেও নির্বাচিত হওয়ার পর কেউ আর খোঁজ রাখে না। সত্তর বছর বয়সী পিয়ারী বেগম (ছদ্মনাম) বলেন, ‘নির্বাচন আসলে প্রার্থীরা আমাদের খালা-চাচি ডাইক্যা ভোট নিয়ে যায়। পার হওয়ার পর তাদের কাছে গেলে দূর-দূর করে তাড়াইয়্যা দেয়। এতো বয়স হইলো, এখন পর্যন্ত কোন ভাতার কার্ড পাইলাম না।’

    সূর্যের হাসি সমাজকল্যাণ সংস্থার সভানেত্রী মোছা. রেখা বেগমবলেন, ‘নাগরিক হিসেবে আমরা কোন মূল্যায়ন পাই না। এখানে সবাই আসে। অথচ তারা মারা গেলে দাফন হয়; আমরা মারা গেলেই যতো দোষ। আমাদের জীবিত অবস্থায় মূল্যায়ন না করলেও মৃত্যুর পর যেন অন্তত ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী সৎকার করা হয়।’

    বর্তমানে এখানে ১১টি বাড়িতে প্রায় ৬শ’ কক্ষ রয়েছে। আর রেজিস্ট্রেশনভুক্ত যৌনকর্মীর সংখ্যা ৪৭৪ জন এবং অস্থায়ী যৌনকর্মী রয়েছে প্রায় ৯শ’জন।

    বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থা জামালপুরের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর সেলিম বলেন, ‘মৃত্যুর পর তাদের সৎকার না হওয়াটা অত্যন্ত অমানবিক। সরকারের উচিত দেশের প্রত্যেক নাগরিকের মতো তাদের দিকেও সুদৃষ্টি দেওয়া।’

    পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাজীব সিংহ সাহা বলেন, ‘ইতোমধ্যেই তাদের জন্য মাতৃত্বকালীন সুবিধা চালু করে দেওয়া হয়েছে। বয়স্ক ভাতা চালুর পরিকল্পনা রয়েছে এবং সে লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে। এছাড়াও এখানকার শিশুসহ যৌনকর্মীদের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করার পরিকল্পনা রয়েছে।’

    জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. রাসেল সাবরিন বলেন, ‘যৌনকর্মীদের সৎকার করতে দিচ্ছে না এমন অভিযোগ পাওয়া গেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জামালপুরে শেখ রাসেল শিশু কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। যৌনপল্লির শিশুদের সুরক্ষার জন্য সেখানে রাখার ব্যবস্থা করা যাবে। পৌরসভার সঙ্গে আলোচনা করে বয়স্ক ভাতা চালুর বিষয়টি দেখা হবে।’

    সূত্র: জাগো নিউজ

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিয়ে করাই তার নেশা!

    ২১ জুলাই ২০১৭

    কে এই নারী, তার বাবা কে?

    ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757