• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    সবচেয়ে বড় বোধ হয় অভিষেক ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পাওয়াটা

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ২০ মে ২০১৭ | ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ

    সবচেয়ে বড় বোধ হয় অভিষেক ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পাওয়াটা

    আয়ারল্যান্ড: ৪৬.৩ ওভারে ১৮১
    বাংলাদেশ: ২৭.১ ওভারে ১৮২/২
    ফল: বাংলাদেশ ৮ উইকেটে জয়ী।
    সিরিজের শেষ হাসি শেষ পর্যন্ত একটি দলই হাসবে। সেই সম্ভাবনা নিউজিল্যান্ডেরই বেশি, কাল সম্ভাবনা জাগিয়েছে বাংলাদেশও। ট্রফি যারাই জিতুক, আয়ারল্যান্ডে গিয়ে আয়ারল্যান্ডকে না হারিয়ে এলে সফরটা অসম্পূর্ণ থেকে যেত মাশরাফি বিন মুর্তজার দলের জন্য। এখন সেটি অন্তত অসম্পূর্ণ থাকছে না। ডাবলিনের মালাহাইড ক্রিকেট মাঠে বাংলাদেশ জিতেছে ৮ উইকেটে।
    সিরিজের প্রথম ম্যাচেই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জয়টা এসে যেতে পারত। কিন্তু অর্ধেক পথ পেরোনোর আগেই বৃষ্টি ধুয়েমুছে দেয় ম্যাচটি। তামিম ইকবাল-মাহমুদউল্লাহর অবিচ্ছিন্ন ৮৭ রানের জুটি বাংলাদেশকে কক্ষপথে ফেরানোর আগে ৭০ রানে পড়ে গিয়েছিল ৪ উইকেট। কাল তাই ওয়ানডে র্যাঙ্কিংয়ের ১২তম দল আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে নিজেদের ব্যবধান ফুটিয়ে তোলাটা জরুরি হয়ে পড়েছিল সাত নম্বর বাংলাদেশের জন্য। মোস্তাফিজুর রহমানের দুর্দান্ত বোলিংয়ের পর সৌম্য সরকারের ব্যাটিং মালাহাইডে এঁকে দিল সেই দৃষ্টি সুখকর ছবিটাই।
    আয়ারল্যান্ডের দেওয়া ১৮২ রানের লক্ষ্যে বাংলাদেশ পৌঁছে গেছে ইনিংসের ২২ ওভার ৫ বল বাকি থাকতে। হারাতে হয়েছে শুধু তামিম ইকবাল আর সাব্বির রহমানের উইকেট দুটি। তামিম-সাব্বিরের পর মুশফিকুর রহিমকে সঙ্গী করে জয়ের ক্যানভাসে তুলির শেষ আঁচড়টা দিয়েছেন সৌম্য।
    নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগের ম্যাচে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৬১ রান করেছিলেন। আর কাল বাংলাদেশকে জিতিয়ে তিনি অপরাজিত ৮৭ রানে। এই ৮৭ রানের ৫৬টিই এসেছে দুই ছক্কা ও ১১টি চার থেকে। ম্যাকার্থিকে মারা শেষ চারটি দিয়ে ‘টাই’ করে দেন ম্যাচ। পরের ওভারের প্রথম বলে ১ রান নিয়ে জয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেন মুশফিক।
    তামিমের সঙ্গে সৌম্যের ৯৫ রানের জুটিতেই জয় অনেকটা সহজ হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের জন্য। একটা সময় মনে হচ্ছিল ম্যাচ হয়তো ওপেনাররাই শেষ করে দিয়ে আসবেন। কিন্তু ফিফটি থেকে মাত্র ৩ রান দূরে থাকতে কেভিন ও’ব্রায়েনের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন তামিম। সাব্বির আউট হয়েছেন জয় থেকে ১১ রান দূরে থাকতে।
    আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বশেষ পাঁচ ইনিংসে করেছেন ০, ১৬, ১৯, ০, ১। রানে ফিরতে সাব্বিরের ছটফটানিটা বোঝা গেছে তার ৩৪ বলে ৩৫ রানের ইনিংসেই। পরে ব্যাট করে বাংলাদেশের জেতা ম্যাচে আগে কখনো আউট হননি। কাল হয়তো আরও বেশি করেই চেয়েছিলেন তা। ম্যাচ জিতিয়ে ব্যাট উঁচিয়ে ফিরবেন। কিন্তু ম্যাকার্থিকে এক্সট্রা কাভার দিয়ে বাউন্ডারি মারার পরের বলেই সাব্বিরের পুল এবং স্কয়ার লেগে ক্যাচ।
    সহজ জয়ের দিনেও বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ে তাই উজ্জ্বল শিখা কেবল সৌম্যের ইনিংসে। বোলিংয়ে সেই মশালটা ছিল মোস্তাফিজের হাতে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে গত ম্যাচেই ঔজ্জ্বল্য ফিরে আসতে শুরু করেছিল বাঁহাতি এই পেসারের। কাল সেটাই পূর্ণতা পেল। ইনিংসের প্রথম ওভার মেডেন নিলেন রুবেল হোসেন। পরের ওভারেই মোস্তাফিজের আঘাত। অফ স্টাম্পের বাইরে হঠাৎ লাফিয়ে ওঠা বলে ব্যাট চালিয়ে শর্ট থার্ডম্যানে সাব্বিরের ক্যাচ হলেন পল স্টার্লিং।
    শুরুতে হোঁচট খাওয়া আইরিশরা পুরো ইনিংসেই আর সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। কোনো ব্যাটসম্যানেরই ফিফটি নেই, সর্বোচ্চ জুটি ৫৫ রানের। চতুর্থ উইকেটে ওপেনার এড জয়েস আর নিয়াল ও’ব্রায়েনের ওই জুটির পর মাত্র ৬৫ রানে পড়েছে শেষ ৭ উইকেট। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগের ম্যাচেই সেঞ্চুরি করা নিয়াল ও’ব্রায়েনসহ এই সাত ব্যাটসম্যানের তিনজনকেই ফিরিয়েছেন মোস্তাফিজ। ৯ ওভারে মাত্র ২৩ রানে ৪ উইকেট—স্বাগতিকদের ব্যাটিং বলতে গেলে তিনি একাই ধসিয়ে দিয়েছেন। অবশ্য কভারে নেওয়া কেভিন ও’ব্রায়েনের দুর্দান্ত ক্যাচটির জন্য মোস্তাফিজ ধন্যবাদ দিতে পারেন সতীর্থ মোসাদ্দেক হোসেনকে।
    আইরিশ ইনিংসের শেষটা হয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজার হাতে। পরপর ২ উইকেট নিয়ে অধিনায়কই তা মুড়ে দেন। এর আগে মোস্তাফিজের ৪ উইকেটের বাইরে বাংলাদেশের বোলিংয়ের উল্লেখযোগ্য দিক, নিজের প্রথম ওভারেই অভিষেক আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে নামা সানজামুল ইসলামের উইকেট নেওয়া।
    ৫ ওভারে ২২ রানে ২ উইকেট, শুরুটা একেবারে খারাপ হয়নি বাংলাদেশ শিবিরে সর্বশেষ যোগ হওয়া এই বাঁহাতি স্পিনারের। তবে সবচেয়ে বড় বোধ হয় অভিষেক ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পাওয়াটা।


    Facebook Comments Box


    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757