• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    সারাবছর পা ফাটা সমস্যার ঘরোয়া সমাধান

    অনলাইন ডেস্ক | ২৯ এপ্রিল ২০১৭ | ১২:৪২ অপরাহ্ণ

    সারাবছর পা ফাটা সমস্যার ঘরোয়া সমাধান

    পায়ের গোড়ালি ফাটার সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। এটি সৌন্দর্যহানি ঘটায়। অনেক সময় ব্যথা ও অস্বস্তি তৈরি করে। শুধু শীতকাল নয়, অনেকেরই সারাবছর পায়ের গোড়ালি ফাটে। এর কারণ- গোড়ালির ত্বকের শুষ্কতা বা স্তরীভূত মরাকোষ। অনেক বেশি হাঁটাচলা, দিনের দীর্ঘসময় দাঁড়িয়ে কাজ করা, ডিহাইড্রেশন ইত্যাদির কারণেও সারাবছর পা ফাটতে পারে। দীর্ঘদিনের পা ফাট‍া সমস্যা দূর করতে ছোট ছোট কিছু ব্যাপার লক্ষ্য রাখা জরুরি।


    পা ফাটা রোধ করতে-
    • যদি খোলা স্যান্ডেল বা জুতো পরার অভ্যাস থাকে, তাহলে ১০ দিনে অন্তত একবার পেডিকিওর করা উচিত।
    • যাদের সবসময়ই পা ফাটে তারা কখনওই পা শুষ্ক রাখবেন না। প্রতিবার ভেজানোর পর ভালোভাবে মুছে পায়ের গোড়ালি ও পুরো পাতায় ভেসলিন লাগান।
    • প্রতিদিন স্নানের সময় পিউমিক স্টোন ও ব্রাশ দিয়ে পায়ের গোড়ালি, নখ ও আঙুলের ডগা পরিষ্কার করুন। কারণ মরা কোষ জমে জমে পুরু স্তর তৈরি হয়, যার কারণে গোড়ালি শক্ত হয়ে যায় এবং পা ফাটে।
    • প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। পানি বা পানিজাতীয় খাবার কম খেলে ত্বকের শুষ্কতা, ঠোঁট বা পা ফাটার মতো সমস্যা দেখা দেয়। দৈনন্দিন পানি পানের পরিমাণ ব্যক্তিভেদে আলাদা। আপনার শরীরের জন্য রোজ ঠিক কতটা পানি খাবেন তা সুযোগমতো ডাক্তারের কাছ থেকে জেনে নিন।

    ajkerograbani.com

    পায়ের গোড়ালি ফাটার সমস্যা সমাধানে কিছু ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

    মধু ও চিনি

    মধুর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। আর চিনির মধ্যে রয়েছে এক্সফলিয়েটিং উপাদান। এ দুটো উপাদানের সমন্বয় ময়েশ্চারাইজার হিসেবে চমৎকার। দুই থেকে তিন টেবিল চামচ মধু নিন। এর মধ্যে চার থেকে পাঁচ টেবিল চামচ চিনি মেশান। মিশ্রণটি দিয়ে ধীরে ধীরে ফাটা অংশে ম্যাসাজ করুন। এটি গোড়ালি ফাটা কমাতে ভালোভাবে কাজ করে।

    পেট্রোলিয়াম জেলি

    শুষ্ক ও খসখসে ত্বকের যত্নে পেট্রোলিয়াম জেলি খুব উপকারী। এটি পায়ের গোড়ালি ফাটা কমাতেও কাজ করে। পা ধুয়ে নিন। ধোয়ার সময় পামিস স্টোন (খসখসে এক ধরনের পাথর) দিয়ে গোড়ালি স্ক্রাব করুন। এরপর ভালোভাবে শুকিয়ে নিন। আধা চা চামচ পেট্রোলিয়াম জেলির মধ্যে এক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে আক্রান্ত গোড়ালিতে লাগান।

    গ্লিসারিন ও হলুদ

    গ্লিসারিন শুষ্ক ও খসখসে ত্বকের সমস্যা সারাতে কাজ করে। হলুদ ব্যথা ও অস্বস্তি কমায়। সমপরিমাণ গ্লিসারিন ও লেবুর রস নিন। এর সঙ্গে কিছু টারমারিক (হলুদ) এসেনসিয়াল অয়েল যোগ করুন। একটি তুলার বল নিয়ে মিশ্রণটি লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফলাফলের জন্য সপ্তাহে দুই দিন এটি করুন।

    ভেজিটেবল অয়েল – অলিভ অয়েল, তিলের তেল, নারকেল তেল, সরষের তেল ও বাদাম তেল পা ফাটার সবচেয়ে সহজ সমাধান। ভালো ফলাফল পেতে রাতে ঘুমানোর আগে পা পরিষ্কার করে যেকোনো ভেজিটেবল অয়েল ম্যাসাজ করে ঘুমান।

    চালের গুঁড়া – আধকাপ চালের গুঁড়া, এক চা-চামচ মধু ও এক চা-চামচ আপেল সাইডার ভিনেগার একসঙ্গে মিশিয়ে পায়ে ম্যাসাজ করুন। খুব বেশি ফাটা হলে কয়েক ফোঁটা নারকেল তেল মেশাতে পারেন।

    লেবু – খানিকটা গরম জলে লেবুর রস দিয়ে ৮-১০ মিনিট পা ভিজিয়ে রাখুন। পিউমিক স্টোন দিয়ে ঘষে ধুয়ে ফেলুন।

    গোলাপজল ও গ্লিসারিন – পা ফাটা রোধে গ্লিসারিন ও গোলাপজলের মিশ্রণ খুব কার্যকর। গ্লিসারিন ত্বক নরম রাখে। অন্যদিকে গোলাপজলে রয়েছে ভিটামিন এ, বি৩, সি, ডি ও ই। আরও রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ও অ্যান্টিসেপটিক উপাদান। একটি বোতলে সমপরিমাণে গ্লিসারিন ও গোলাপজল মিশিয়ে রেখে দিন। রোজ রাতে ঘুমানোর আগে পায়ে ম্যাসাজ করুন।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757