বুধবার ৪ঠা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সালথায় হতদরিদ্রদের রেশনের ১৪ বস্তা চাল জব্দ

  |   সোমবার, ১৩ এপ্রিল ২০২০ | প্রিন্ট  

সালথায় হতদরিদ্রদের রেশনের ১৪ বস্তা চাল জব্দ

ফরিদপুর জেলায় সালথায় গ্রামপুলিশের বাড়ি থেকে হতদরিদ্রদের রেশনের ১৪ বস্তা চাল জব্দ করেছেন উপজেলা প্রশাসন। ডিলার (পরিবেশক) ও গ্রামপুলিশকে এক লাখ টাকা জরিমানা ও ডিলারের লাইসেন্স বাতিল এবং গ্রাম পুলিশকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।
গত বৃহস্পতিবার বিকালে ফরিদপুরের সালথায় হতদরিদ্রদের জন্য খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির রেশনের ১৪ বস্তা চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক ইসমাইল হোসেন যদুনন্দী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের গ্রামপুলিশ মুরাদ কাজীর বাড়ি থেকে হতদরিদ্রদের রেশনের ১৪ বস্তা চাল জব্দ করেন।
এ ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে সালথা উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়নের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ডিলার (পরিবেশক) আলীমুজ্জামান নয়নকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং তার লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া উপজেলার যদুনন্দী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের গ্রামপুলিশ মুরাদ কাজীকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
সালথা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ হাসিব সরকার বলেন, ৩০ কেজি ওজনের মোট ১৪ বস্তা চাল জব্দ করা হয়েছে। এই চাল করোনায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে বিতরণ করা হবে। যে ভোক্তারা গ্রামপুলিশের কাছে চাল বিক্রি করেছেন তাদের চিহ্নিত করে, তাদের রেশন কার্ড বাতিলের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
গ্রাম-পুলিশ মুরাদ কাজীর বিরুদ্ধে কি ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানতে চাইলে এ কর্মকর্তা বলেন, স্থানীয় সরকার (ইউপি) পুলিশ বাহিনী গঠণ, প্রশিক্ষণ, শৃংখলাও চাকুরী শর্তাবলী-২০১৫ অনুযায়ী তাকে বিচারের আওতায় আনা হবে। তবে সম্প্রতি তার এ অপরাধের দায়ে তাকে ৩০ বিধিমতে সাময়িক বরখাস্থ করা হয়েছে।
যদুনন্দী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল খায়ের মুন্সী মুরাদ চৌকিদার সম্পর্কে বলেন, তিনি এর আগে চাঁদাবাজির অভিযোগে র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছিল। সে তখন ২ মাস ১৫দিন জেল খেটে বের হয়।
তিনি আরও বলেন মুরাদ চৌকিদার ইউনিয়নের অনেক সাধারণ জনগণের সাথে খুব খারাপ আচরন করেছে বলে আমি অভিযোগ পেয়েছি। এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার একাধিক ভুক্তভোগিরা ভোরের কাগজকে বলেন মুরাদ কাজী ওরফে মুরাদ চৌকিদার আমদের এই যদুনন্দী সপ্তাহের প্রতি সোমবার ও বৃহস্পতিবার হাট বসে।
সে (মুরাদ চৌকিদার) এই হাটে এলাকার বিভিন্ন গ্রাম থেকে আসা সাধারণ মানুষ পেয়াজ, ধান, পাট, গম খেজুরের গুড়,তালের গুড় বিক্রি করতে আসে। তাদের কাছ থেকে মুরাদ চৌকিদার ইচ্ছামতো খাজনা নিয়ে যায়। কেউ প্রবিাদ করতে গেলে তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন চালানোর অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।
সম্প্রতি এ হাঁটে পেয়াজ বিক্রি করতে আসা আকাশ, ইমরান ও মিল্টন কে মারধর করে। উল্লেখ মুরাদ চৌকিাদার জি আর মামলায় (৩১/১৭) গ্রেপ্তার হয়ে দুই মাস ১৫ দিন কারাভোগের পর জামিনে আসেন।

Facebook Comments Box


Posted ৭:৪৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৩ এপ্রিল ২০২০

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১