• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    স্বামী অপছন্দ, তাই পুরুষাঙ্গ কেটে দিল স্ত্রী!

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ২৪ মে ২০১৭ | ১০:২৫ অপরাহ্ণ

    স্বামী অপছন্দ, তাই পুরুষাঙ্গ কেটে দিল স্ত্রী!

    ঠান্ডা মাথায় প্রেমিকের সঙ্গে ছক কষে বারাসতের বাসিন্দা অনুপম সিংহকে খুন করিয়েছেন তাঁর স্ত্রী মনুয়া মজুমদার। ঠান্ডা মাথায় মনুয়ার এই ভয়ঙ্কর কীর্তিতে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশি জেরায় মনুয়া দাবি করেছে, বাড়ির চাপেই বাধ্য হয়ে অনুপমকে বিয়ে করেছিলেন তিনি। স্বামী অনুপম তাকে ভালবাসলেও স্বামীকে মোটেই পছন্দ করতেন না মনুয়া।


    বারাসতের মনুয়ার মতোই অপছন্দের স্বামীকে শাস্তি দিয়ে আর এক নজিরবিহীন কাণ্ড ঘটালো আসানসোলের এক গহবধূ। তবে এবার আর প্রাণে মেরে নয়, মনের মতো স্বামী না হওয়ায় ব্লেড দিয়ে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে দিল স্ত্রী।

    ajkerograbani.com

    স্বামী যখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন, তখন এই কাণ্ডটি ঘটায় অভিযুক্ত স্ত্রী। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আসানসোল জেলা হাসপাতালে ভর্তি আক্রান্ত স্বামী। তিনি এখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থাতেই স্ত্রীর বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন স্বামী। পুলিশের সন্দেহ, অবৈধ সম্পর্কের জেরেই স্বামীকে খুনের চেষ্টা করেছে স্ত্রী।

    জামুড়িয়ার বাসিন্দা মহম্মদ নৌসাদের বিয়ে হয় মাত্র ছ’মাস আগে। বিহারের লক্ষ্মীসরাইয়ের বাসিন্দা এক যুবতীর সঙ্গে দেখাশোনা করেই বিয়ে হয় জামুড়িয়ার যুবক নৌসাদের। আসানসোলে একটি বিস্কুট কারখানায় কাজ করেন নৌসাদ। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর কাজকর্ম সন্দেহজনক ছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছেন তিনি। তাই সম্পর্ক ততটা মজবুত হয়নি।

    যুবকের পরিবার পুলিশকে জানিয়েছে, সোমবার রাতে নৌসাদের সঙ্গে ঘুমোতে যায় স্ত্রী। অভিযোগ, মাঝরাতে স্বামী যখন গভীর ঘুমে আছন্ন, তখন ব্লেড দিয়ে নৌসাদের পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়ে স্ত্রী। এর পরে বেসিনে গিয়ে রক্তাক্ত হাত ধুয়ে অন্য রুমে শুয়ে পড়ে সে। স্বামীর চিৎকারে ততক্ষণে পরিবারের লোকেরা ছুটে আসেন। বাড়ির মধ্যে যখন হুলস্থূল কাণ্ড, তখন কিছুই না জানার অভিনয় করে স্ত্রী। বাড়ির লোকজনদের সে বোঝানোর চেষ্টা করে, ঘটনার কথা কিছুই জানে না। মহিলার আচরণে পরিবারের লোকেদের সন্দেহ হয়। কারণ, রক্তাক্ত অবস্থায় যখন ছটফট করছেন নৌসাদ তখনও স্বাভাবিক ছিল স্ত্রী। নৌসাদের পরিবারের দাবি, চেপে ধরতেই অপরাধের কথা স্বীকার করে ওই গৃহবধূ। যদিও এর পরে থেকেই অভিযুক্ত গৃহবধূ পলাতক বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

    নৌসাদ-রুকবানুর বিবাহিত জীবনে অশান্তির সূত্রপাত বিয়ের দেড় মাসের মাথায়। নিয়ম অনুযায়ী নতুন বিয়ের ৪০ দিন পর শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার রেওয়াজ নবদম্পতির। সেই মতো বিহারের লক্ষীসরাইয়ে নতুন স্ত্রীকে নিয়ে যান নৌসাদ। কিন্তু বাপের বাড়ি যাওয়ার পরে জামুড়িয়ায় শ্বশুর বাড়িতে ফিরতে রাজি হয়নি স্ত্রী। পরে তাকে বুঝিয়ে আনার চেষ্টা করা হলে মাঝপথে মধুপুর স্টেশনে ট্রেন থেকে নেমে যায় সে। তারপর হঠাৎ করেই বেশ কিছুদিন পর সে ফিরে আসে জামুড়িয়ায়। নৌসাদের পরিবার পরিজন খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, মধুপুর স্টেশনে নেমে বাপের বাড়ি ফিরে যায়নি ওই গৃহবধূ। ওই কয়েকদিন সে অন্য কোথাও ছিল। সংসারে ফিরে এলেও স্বামী স্ত্রীর অশান্তি লেগেই থাকতো বলেই খবর।

    আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের এসিপি বরুণ বৈদ্য জানিয়েছেন, ‘ঘটনাটি খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে। পুলিশ মহম্মদ নৌসাদ নামে ওই যুবকের বয়ান নথিভুক্ত করেছে। স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্ক থেকেই এই ঘটনা ঘটতে পারে বলে অনুমান।’

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757