• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    হাত না ধুলে যেসব রোগ হয়

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ০৫ মে ২০১৭ | ৮:৩২ অপরাহ্ণ

    হাত না ধুলে যেসব রোগ হয়

    ওয়ার্ল্ড হ্যান্ড হাইজিন ডে আজ। সুস্বাস্থ্যের জন্য হাত জীবাণুমুক্ত রাখা জরুরি। দেহের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত অঙ্গের নাম হাত। কোনো জিনিস ধরে থাকা, এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়া, খাবার ধরাসহ বিভিন্ন কাজে হাতের ব্যবহার আমাদের জীবনযাত্রাকে সহজ করে দিয়েছে। অথচ আমরা চেহারার যত্ন নিয়ে যতটা চিন্তিত, হাতের পরিচর্যা নিয়ে ততটাই উদাসীন। কিন্তু নানাবিধ অসুখের মূলে রয়েছে হাতের যত্নের প্রতি উদাসীন থাকা।


    বিভিন্ন কাজে হাতের বহুমুখী ব্যবহারের কারণে হাত হয়ে ওঠে জীবাণু ও ব্যাকটেরিয়ার আবাসস্থল। তাই হাতকে সব সময় পরিষ্কার রাখা জরুরি। যেমন গালে যখন ব্রণ ওঠে, তখন হাত দিয়েই সেটাকে প্রথম স্পর্শ করা হয়। এরপর যেখানেই সেই অপরিষ্কার হাত লাগানো হয়, সেখানেই ছড়িয়ে পড়ে ব্রণের জীবাণু।

    ajkerograbani.com

    হাতের যথাযথ যত্ন না নিলে কী কী রোগের সম্মুখীন হতে হবে সবাইকে সেগুলো জানিয়েছে জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই।

    ঠান্ডা বা সর্দি

    ঠান্ডা বা সর্দির প্রাথমিক কারণ হচ্ছে অপরিষ্কার হাত। তবে হাতকে এই ব্যাকটেরিয়া বহনের জন্য দোষ দেওয়া যায় না। দরজার নব বা হাতল অথবা ঠান্ডা বা সর্দিতে আক্রান্ত কোনো ব্যক্তির সঙ্গে করমর্দন করলে এই জীবাণু অবশ্যই আপনার দেহে ছড়িয়ে পড়বে। এর থেকে বেঁচে থাকার উপায় খুবই সাধারণ। কিছুক্ষণ পরপর আপনার হাত ধোয়া প্রয়োজন। যদি সম্ভব হয় হাত ধোয়ার সময় সাবান ব্যবহার করা উচিত।

    শৌচাগার ও খাওয়ার আগে হাত ধোয়া

    শুনতে খারাপ শোনা গেলেও এটি সত্য যে শৌচাগার থেকে ফেরার পর অপরিষ্কার হাত জীবাণু বহন করে। তাই এই অপরিষ্কার হাতে খাবার গ্রহণ করলে জীবাণুগুলো আপনার খাবারে ছড়িয়ে পড়তে পারে। শুধু শৌচাগার নয়, আপনার বাচ্চার ডায়াপার বদলানো, অথবা বাসের হাতলে হাত রাখলেও জীবাণু ছড়িয়ে পড়তে পারে। এ ছাড়া ডায়রিয়া বা আমাশয় এমন দুটি রোগ হওয়ার জন্যও কিন্তু দায়ী অপরিষ্কার হাত।

    যাদের হাতের নখ বড় রাখার প্রবণতা রয়েছে, তাদের উচিত সেগুলো সাবান দিয়ে পরিষ্কার করা। সুস্বাস্থ্যের জন্য খাওয়ার আগে হাত পরিষ্কার করা উচিত।

    ই কোলাই বিষক্রিয়া

    ই কোলাই ব্যাকটেরিয়া মলের মাধ্যমে একজন থেকে অন্যজনে ছড়ায়। পাবলিক টয়লেট ব্যবহার করার কারণে এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকখানি বেড়ে যায়। এই রোগে আক্রান্ত হলে এক সপ্তাহের মতো টানা ডায়রিয়া হতে পারে এবং শরীর দুর্বল থাকতে পারে।

    হাত-পা ও মুখের রোগ

    হাতের কারণে সৃষ্ট রোগের প্রভাব পড়তে পারে আপনার হাত-পা ও মুখে। হাত না ধোয়ার কারণে ফোস্কার মতো চিহ্ন পড়তে পারে আপনার মুখ, হাতের তালু ও পায়ের পাতায়। শুধু নিয়মিত হাত ধোয়ার মাধ্যমেই এগুলো থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

    খাদ্যে বিষক্রিয়া

    অপরিষ্কার হাতের কারণে খাদ্যে বিষক্রিয়া হতে পারে। এর সঙ্গে গভীর সম্পর্ক রয়েছে পেট ব্যথা, বমি ও অনিয়ন্ত্রিত মলত্যাগের।

    হেপাটাইটিস ‘এ’

    এটি একটি উচ্চমাত্রার সংক্রামক রোগ। এটি লিভারে সংক্রমণ করে থাকে। এর প্রধান লক্ষণগুলো হচ্ছে ক্লান্তি, কালো রঙের প্রসাব, বমি বমি ভাব, জ্বর, ক্ষুধা কমে যাওয়া, কালো রঙের মল ও প্রসাব, হলুদ রঙের ত্বক ও চোখ। আক্রান্ত ব্যক্তির সঙ্গে খাদ্যগ্রহণের কারণে এই রোগটি ছড়ায়।

    চর্মরোগ

    এই সংক্রামক রোগটি শিশুদের মাঝে পাওয়া যায়। কারণ, শিশুরা তাদের হাত সম্পর্কে উদাসীন থাকে। ছোট ছোট ফোস্কা আকারে এই রোগের লক্ষণ প্রকাশ পায়।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757