• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ১২ বছরে ৩ বার তিন তালাক!

    অগ্রবাণী ডেস্ক | ০৩ মে ২০১৭ | ৮:৪৭ অপরাহ্ণ

    ১২ বছরে ৩ বার তিন তালাক!

    সুপ্রিম কোর্টে এখনও বিচারাধীন তিন তালাক সংক্রান্ত মামলা। তারই মধ্যে সামনে এল এক চাঞ্চল্যকর ঘটনা। গত ১২ বছরে তিন বার ‘তিন তালাক’-এর মুখোমুখি হয়েছেন ৩৫ বছরের এক মহিলা।


    একটি সাক্ষাত্কাযরে তারা খান জানিয়েছেন, ‘গত ১২ বছর আমার জীবনের এক ভয়াবহ সময় গিয়েছে। ফের যদি আমার বর্তমান স্বামী তালাক দেন তাহলে আমার আর কোথাও যাওয়ার থাকবে না।’

    ajkerograbani.com

    শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিতা এই নারীর প্রথম বিয়ে হয় বরেলির তাহাকা নাগারিয়া গ্রামের জাহিদ খানের সঙ্গে। বিয়ের সাত বছর পরেও কোনও সন্তান না হওয়ায় তারাকে তিন তালাক দিয়ে জাহিদ অন্য এক মহিলাকে বিয়ে করেন। প্রথম বিয়ে ভেঙে যাওয়ার পর এক আত্মীয়র বাড়িতে বসবাস শুরু করেন তিনি। সেখান থেকেই তাঁর দ্বিতীয় বার বিয়ে দেওয়া হয় ঘুনসা গ্রামের পাপ্পু খানের সঙ্গে। প্রতিনিয়ত শারীরিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে একদিন প্রতিবাদ করায় সেই মুহূর্তেই তিন তালাক দেওয়া হয় তাঁকে। অতএব শেষ হয় তিন বছরের দ্বিতীয় বিয়েও। এর পরে মামার বাড়ি থেকে তাঁকে বুঝিয়ে ফের বিয়ে দেওয়া হয় ঘুনদাপুরের সোনুর সঙ্গে। কিন্তু সেও তারার উপর চূড়ান্ত শারীরিক নির্যতন চালায়। এরপর একদিন তাঁকে তাঁর মামার বাড়ি রেখে যাওয়ার সময় তিন তালাক দিয়ে যায় সোনু। মাত্র ৪ মাসের মাথায় শেষ হয়ে যায় তাঁর তৃতীয় বিয়ে।

    কিন্তু পরিবারের চাপে পড়ে ২০১৬ সালের জুলাই মাসে ফের একবার বিয়ে করতে বাধ্য হন তারা। তবে এবারও তাঁর অভিজ্ঞতা মোটেই সুখকর নয়। শামশাদ ওরফে নানহে বাকিদের থেকে আলাদা নন। একবছরের মধ্যে সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকেছে। বর্তমানে অবশ্য দু’জনেই বরেলির পুলিশ লাইনে একটি পারিবারিক কাউন্সেলিং সেন্টারে যাচ্ছেন। আশা একটাই, যদি কোনওভাবে বাঁচানো যায় এই বিয়ে। তবে এবার হার মানতে নারাজ তারা। তিনি জানিয়েছেন, ‘প্রয়োজনে আমি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কাছে সাহায্য চাইব। যেভাবেই হোক আমি এবার আর আমার স্বামীকে হারাতে চাই না।’সূত্র: এই সময়[LS]

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757