• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ১৫৮ বছরের মধ্যে প্রথম মুসলিম নারী মেয়র পেল মহীশূর

    ডেস্ক | ২১ জানুয়ারি ২০২০ | ৩:০৭ অপরাহ্ণ

    ১৫৮ বছরের মধ্যে প্রথম মুসলিম নারী মেয়র পেল মহীশূর

    ১৫৮ বছরের মধ্যে ভারতের মহীশূর সিটি কর্পোরেশনের (এমসিসি) মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন একজন মুসলমান নারী। শনিবার নির্বাচিত হওয়া ৩১ বছর বয়সী তাসনিম অবশ্য পৌর সংস্থাটির সবচেয়ে কনিষ্ঠ মেয়র বলেও খবরে বলা হয়েছে।


    ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, দর্জি মুন্নাভার পাশা ও গৃহিনী তাহসিন বানুর তৃতীয় সন্তান তাসনিম। মিনা বাজার এলাকায় তিনি বেড়ে উঠেছেন। ২০১৩ সাল থেকে তিনি ওই এলাকার একজন কর্পোরেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।


    ২০১৩ সালে মহীশূর পৌর কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রথমবারের মতো নির্বাচনী রাজনীতিতে প্রবেশ করেন তাসনিম। তখন ২৬ বছর বয়সী ওই নারী মিনা বাজার ওয়ার্ড থেকে কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছিলেন।

    সবচেয়ে কনিষ্ঠ মেয়র হলেও দুই সন্তানের জননী তাসনিম। তার মেয়ে সাইয়েদা রুমানি অষ্টম ও ছেলে সাইয়েদ উয়াইজ দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে।

    তার স্বামী সাইয়েদ সলিমুল্লাহ একজন এমব্রয়ডারি কর্মী। মিনা বাজারে তার একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

    এমন এক সময় এই নারী এমসিসি মেয়র নির্বাচিত হলেন, তখন ধর্মভিত্তিক নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে ভারতে উত্তাল বিক্ষোভ চলছে। আর প্রাধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন মুসলিম বিদ্বেষী হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি ভারতের ক্ষমতায় রয়েছে।

    বিজেপি প্রার্থী গীতা যোগানন্দকে ২৪ ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে মেয়রের পদে বসলেন তাসনিম।

    মহীশূরকে পরিচ্ছনতার শহর বলা হয়ে থাকে। এতাসনিম জানান, এই জয়ে তিনি অত্যন্ত খুশি। শহরের পরিচ্ছন্নতা ধরে রাখাই হবে তার প্রথম লক্ষ্য। বিভিন্ন সমস্যার দ্রুত সমাধানে সচেষ্ট হবেন বলে আশ্বাস দেন তাসনিম।

    এর আগে ১৯৯৬ সালে প্রথম মুসলিম মেয়র হন আরিফ হুসেন। এরপর ২০০৮ সালে আইয়ুব খানও জেডিএসের হয়ে মেয়র নির্বাচিত হন।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669