• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ৩০০ রান না করেও জেতা যায় প্রমাণ করল প্রোটিয়ারা

    অনলাইন ডেস্ক | ০৩ জুন ২০১৭ | ১১:৪৪ অপরাহ্ণ

    ৩০০ রান না করেও জেতা যায় প্রমাণ করল প্রোটিয়ারা

    হ্যাঁ, ৩০০ রান না করেও জেতা যায়। যদি সেই উইকেট ব্যাটিং স্বর্গ হয় তাহলেও। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির উদ্বোধনী দিনে ৩০৫ রান করেও ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। তারপরই ৩৩০ রানের হাহাকার শোনা গেছে। আজ টুর্নামেন্টের তৃতীয় ম্যাচে ২৯৯ রান করেও শ্রীলঙ্কাকে ৯৬ রানে হারাল দক্ষিণ আফ্রিকা। ৮.৩ ওভার বল করে মাত্র ২৭ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ধ্বংসের নেতৃত্ব দিয়েছেন ইমরান তাহির। তরুণ পেসার রাবাদাও নিয়েছেন ২ উইকেট। প্রোটিয়া বোলারদের তোপে ৪১.৩ ওভারে ২০৩ রানেই শেষ হয়ে গেছে শ্রীলঙ্কার ইনিংস। লঙ্কানদের এই পরাজয়ে বাংলাদেশের ভাগ্য খুলে গেল বলা যায়। কারণ প্রথম ম্যাচ হেরে ইতিমধ্যে র‌্যাংকিংয়ে ৭ নম্বরে নেমে এসেছে টাইগাররা।


    টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ৪৪ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েছিলেন আমলা আর ডি কক। ডি কক ৪২ বলে ২৩ রান করে নুয়ান প্রদীপের বলে উইকেটকিপার ডিকাভিলার গ্লাভসবন্দী হন। এরপর প্রতিরোধ গড়েন ডু’প্লেসিস আর আমলা। দুজনে মিলে দ্বিতীয় উইকেটে ১৪৫ রান তোলেন। ৫২ বলে ৫০ পূরণ করার পর ব্যক্তিগত ৭৫ রানে নুয়ান প্রদীপের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন ডু’প্লেসিস। তার আগেই অবশ্য ৫৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেছেন হাশিম আমলা। তার ইনিংস গিয়েছে আরও বহুদূর।

    ajkerograbani.com

    ১১২ বলে ৫ চার এবং ২ ছক্কায় তিন অংকে পৌঁছান আমলা। কিন্তু ১০৩ রান করতেই অধিনায়ক এবিডি ভিলিয়ার্সের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউট হয়ে যান তিনি। বিধ্বংসী ডি ভিলিয়ার্সও টিকতে পারেননি। সেকুজে প্রসন্নর বলে কাপুদেগারার তালুবন্দী হওয়ার আগে করেছেন মাত্র ৪ রান। ডেভিড মিলারক (১৮) শিকার বানিয়েছেন সুরিঙ্গা লাকমল। ‘কিলার মিলার’ ও ২২ বলে ১৮ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। ২০ রান করে আউট হন ক্রিস মরিস। তবে জেপি ডুমিনির অপরাজিত ২০ বলে ৩৮ রানের ইনিংসে ৬ উইকেটে ২৯৯ রান সংগ্রহ করে প্রোটিয়ারা।

    দীর্ঘদিন পর ওয়ানডে ক্রিকেটে ফিরে এদিন অনুজ্জ্বল ছিলেন গতিদানব লাসিথ মালিঙ্গা। ১০ ওভার বল করে দিয়েছেন ৫৭ রান। মেডেন নেই একটিও। নুয়ান প্রদীপ ২টি, সুরঙ্গা লাকমল এবং সেকুজে প্রসন্ন ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

    জবাবে লঙ্কানদের শুরুটা হয়েছিল দারুণ। দুই ওপেনার নিরোশান ডিকাভিলা এবং উপল থারাঙ্গা মিলে ৬৯ রানের উদ্বোধনী জুটি উপহার দেন। ডিকাভিলা ৩৩ বলে ৫ চার ১ ছক্কায় ৪১ রানে মরকেলের শিকার হন। এরপরই মূলতঃ ভেঙে পড়ে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং লাইনআপ। অনেক্ষণ একপ্রান্ত আগলে রেখে হাফ সেঞুরি তুলে নেন অধিনায়ক থারাঙ্গা। অতপরঃ ইমরান তাহিরের বলে ডি ভিলিয়ার্সের তালুবন্দী হয়ে ফিরেন তিনি। আউট হওয়ার আগে তার সংগ্রহ ৬৯ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ৫৭ রান।

    থারাঙ্গা আউট হওয়ার আগেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন কুশল মেন্ডিস (১১), দিনেশ চান্ডিমাল (১২) এবং কাপুদেগারা (০)। থারাঙ্গার বিদায়ের পর নাইট ওয়াচম্যান অ্যাশলে গুণারত্নেও টিকতে পারেননি। মাত্র ৪ রান করে ইমরান তাহিরের দ্বিতীয় শিকার হন তিনি। সপ্তম উইকেটে ৩৬ রানের জুটি গড়ে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেছিলেন প্রসন্ন আর পেরেরা। কিন্তু সেটা কেবল ব্যবধানই কমিয়েছে। শেষ পর্যন্ত ৬৬ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৪৪ রানে অপরাজিত ছিলেন কুশল পেরেরা।

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757