• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ৯০ মিনিটের ফুটবল ৬০ মিনিট করার প্রস্তাব

    আজকের অগ্রবাণী ডেস্ক: | ১৮ জুন ২০১৭ | ৮:০৩ অপরাহ্ণ

    ৯০ মিনিটের ফুটবল ৬০ মিনিট করার প্রস্তাব

    ফুটবলে সময় নষ্ট করার প্রবণতা কমাতে প্রতি পিরিয়ড ৩০ মিনিট করে ম্যাচের সময় মোট এক ঘণ্টা করার প্রস্তাব বিবেচনা করবে আন্তর্জাতিক ফুটবল এ্যাসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি)। ফুটবলের নিয়ম-নীতি ঠিক করে এই সংস্থা।


    ফিফা এবং ব্রিটেনের চারটি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের – ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ারল্যান্ড – সমন্বয়ে আইএফএবি তৈরি হয়েছে।

    ajkerograbani.com

    তাদের কাছে দেওয়া নতুন এই প্রস্তাবে আরো বলা হয়েছে, ৬০ মিটের ম্যাচে যখনই খেলা বন্ধ থাকবে, ঘড়ি থামিয়ে দেওয়া হবে যাতে খেলা যেন পুরো এক ঘণ্টারই হয়।

    এই প্রস্তাবের পক্ষে যারা তারা বলছেন, ইচ্ছাকৃত সময় অপচয়ের প্রবণতার কারণে মাঠে খেলা এমনিতে এক ঘণ্টার বেশি হয়না। অপচয়ের এই প্রবণতা বন্ধ করতে ম্যাচের সময় কমানো প্রয়োজন।

    ফুটবলে সময় কমানোর এই প্রস্তাব নিয়ে ইতিমধ্যেই পক্ষে বিপক্ষে বিতর্ক শুরু হয়ে গেছে।

    ইটালি এবং চেলসির সাবেক ফুটবলার জিয়ানফ্রাঙ্কো জোলা বলেছেন – “আমি ম্যাচের সময় কমানোর এই প্রস্তাব সমর্থন করি কারণ বহু দলের মধ্যে ইচ্ছাকৃত সময় নষ্ট করার প্রবণতা রয়েছে, বিশেষ করে দলগুলো যখন জিততে থাকে, তারা সময় নষ্ট করে। ”

    এই প্রস্তাব সমর্থন করেছেন আর্সেনাল ক্লাবের গোলকিপার পিটার চেক। সোশ্যাল মিডিয়াতে তিনি লিখেছেন, “মাঠে আসলে খেলা হয় প্রতি হাফে ২৫ মিনিট করে। সুতরাং ম্যাচ এক ঘণ্টার হলে, খেলার সময় প্রকৃত অর্থে বাড়বে। ”

    তবে সমালোচকদের বক্তব্য – সময় ক্ষেপণের বিরুদ্ধে বর্তামানের বিধিনিষেধ প্রয়োগ করলেই নতুন কোনো কিছু করার প্রয়োজন নেই।
    মাঠে খেলার প্রকৃত সময় বাড়াতে এবং সময় অপচয় কমাতে বিভিন্ন সময়ে রেফারির ঘড়ি বন্ধ রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে :

    – পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেওয়া থেকে স্পট কিক নেওয়া পর্যন্ত।

    – গোল হওয়ার পর থেকে খেলা শুরু হওয়া পর্যন্ত।

    – খেলোয়াড় জখম হওয়ার পর তার চিকিৎসা দরকার কিনা তা জানার পর থেকে খেলা শুরু পর্যন্ত

    – হলুদ বা লাল কার্ড দেখানো থেকে শুরু করে খেলা আবার শুরু হওয়া পর্যন্ত।

    – খেলোয়াড় বদলির সাইন দেখা থেকে শুরু করে খেলা আবার শুরু পর্যন্ত।

    ইংল্যান্ডের সাবেক রেফারি এবং আইএফএবির টেকনিক্যাল বিভাগের প্রধান ডেভিড এলরে বলেছেন, “রেফারি, সমর্থক, কোচ এবং খেলোয়াড় সবাই একমত যে খেলোয়াড়দের আচরণে ইতিবাচক পরিবর্তন আসতে হবে, খেলার প্রকৃত সময় বাড়াতে হবে… ফুটবলে আকর্ষণ বাড়ানো এবং সদাচরণ নিশ্চিত করা এখন প্রধান অগ্রাধিকার। “

    Facebook Comments Box

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4757