• শিরোনাম



    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...


    ৯ মাস ধরে ধর্ষণ, অতঃপর…

    অনলাইন ডেস্ক | ০৫ এপ্রিল ২০১৭ | ১২:৫৬ অপরাহ্ণ

    ৯ মাস ধরে ধর্ষণ, অতঃপর…

    ভারতের যোধপুর পার্কের এক তরুণী নয় মাস ধরে তাকে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছেন। মঙ্গলবার লেক থানায় সল্টলেকবাসী এক ব্যবসায়ী এবং তার স্ত্রীয়ের বিরুদ্ধে ভিডিওতে তুলে রাখা ঘনিষ্ঠ দৃশ্য ফাঁস করার হুমকি দিয়ে তাকে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। অভিযুক্ত রাকেশ চৌধুরীকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।


    পুলিশের কাছে অভিযোগে ওই তরুণী জানিয়েছেন, গত বছর জুন মাসে এক বন্ধুর বাড়িতে রাকেশ এবং তার স্ত্রীয়ের সঙ্গে আলাপ হয়েছিল তার। পরে একদিন রাকেশ তাকে দক্ষিণ কলকাতার একটি ক্লাবে পার্টিতে যাওয়ার অনুরোধ করেন। সেখানে তার বন্ধুরা থাকবেন বলেও জানিয়েছিলেন অভিযুক্ত।


    তিনি রাকেশের কথায় বিশ্বাস করে সেই পার্টিতে যান। পার্টি কিছুক্ষণ চলার পর রাকেশ তাকে পানীয় নিতে অনুরোধ করেন। দু’তিন বার ওই পানীয় খাওয়ার পর তিনি অসুস্থ বোধ করেন এবং বাড়ি ফিরে যাবেন বলে ঠিক করেন।

    কিন্তু রাকেশ জানিয়েছিলেন, নৈশভোজের পর তাকে বাড়িতে নামিয়ে দেবেন। কিন্তু বাড়িতে না নামিয়ে রাকেশ তাকে নিয়ে যান ইএম বাইপাসের ধারে একটি গেস্টহাউসে এবং যেখানে তাঁকে ধর্ষণ করেন।

    অভিযোগপত্রে ওই তরুণী আরও জানান, এই ঘটনার পরিণতি কী হবে, তা ভেবে তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন এবং সে কারণে অভিযুক্তকে তিনিই অনুরোধ করেন, ওই ঘটনার কথা কাউকে না বলতে। তিনি নিজেও কাউকে কিছু বলেননি। তবে ঠিক করেছিলেন, রাকেশের সঙ্গে আর যোগাযোগ রাখবেন না। ঘটনার পরদিন সন্ধ্যায় রাকেশ তাকে ফোন করলেও তিনি প্রথমে তা ধরেননি। পরে অভিযুক্ত অন্য একটি নম্বর থেকে ফোন করায় তিনি তা ধরেন।

    তরুণীর দাবি, রাকেশ তাকে দেখা করতে বলেন। তিনি সেই প্রস্তাব প্রত্যাখান করলে রাকেশ ব্ল্যাকমেলিংয়ের হুমকি দেন। তাকে জানানো হয়, আগের রাতে কী কী ঘটেছে, সেই সব দৃশ্যের ভিডিও রয়েছে। কথা না শুনলে সেটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়া হবে। এরপর সম্মানহানির ভয় দেখিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

    পুলিশকে তরুণী জানিয়েছেন, কয়েক মাস ধরে শারীরিক নির্যাতনের জেরে তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। অভিযুক্তকে তা জানালে গর্ভপাত করতে বলা হয়। তা না করলে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যের ভিডিও ইন্টারনেটে দেওয়ার ভয় দেখানো হয়। গর্ভপাত করেন তিনি। এরপর আবার অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে অভিযুক্তের স্ত্রীকে তিনি জানান বিষয়টি।

    ধর্ষণের অভিযোগ জানাতে এত দেরি হল কেন সে কথা মাথায় রেখেই অভিযোগপত্রে তরুণী লিখেছেন, দেরিতে অভিযোগ জানানোর জন্য ক্ষমা চাইছেন। এতদিন তিনি ধীরে ধীরে মানসিক জোর সঞ্চয় করেছেন যাতে রাকেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে তাকে শিক্ষা দিতে পারেন, যাতে ভবিষ্যতে কোনও মেয়ের সঙ্গে এই ধরনের আচরণ কেউ না করতে পারে।

    Facebook Comments

    কোন এলাকার খবর দেখতে চান...

    webnewsdesign.com

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    বিয়ে করাই তার নেশা!

    ২১ জুলাই ২০১৭

    কে এই নারী, তার বাবা কে?

    ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আজকের অগ্রবাণী


  • Notice: ob_end_flush(): failed to send buffer of zlib output compression (0) in /home/ajkerogr/public_html/wp-includes/functions.php on line 4669