শুক্রবার ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছাত্রদলে ছাত্রত্ব ধরে রাখার নানা অপপ্রয়াস

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   শনিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | প্রিন্ট

ছাত্রদলে ছাত্রত্ব ধরে রাখার নানা অপপ্রয়াস

বিএনপির সহযোগী ছাত্র সংগঠন ছাত্রদলের মূল নেতৃত্ব রয়েছে অছাত্র অথবা বিশেষ উপায়ে ছাত্রত্ব অর্জনকারীদের দখলে। এটি তাদের ছাত্রত্ব ধরে রাখার অপপ্রয়াস মাত্র।

‘এরশাদ ভেকেশন’ বা ‘এরশাদীয় অবকাশ কাল’ সংক্ষেপে ‘এরশাদ ভ্যাক’ নামে একটা ‘প্রলম্বিত ছাত্রকাল’ স্বৈরাচারখ্যাত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলে ছিল। প্রকৃতপক্ষে এর শুরু জিয়াউর রহমানের শাসনামলে। তখন ছাত্রনেতাদের ‘পক্বকেশ’ হওয়া স্বাভাবিক ছিল। সেকাল বিগত হয়েছে অনেক আগেই। তবু সেকালের চর্চা বা রীতি একালেও রয়ে গেছে।

স্বাভাবিকভাবেই তখনকার ছাত্রনেতৃত্বের ‘বুড়ো বোকা ভাম’ হওয়ার প্রবণতাও এখনো রয়ে গেছে। এ ভূত কবে ঘাড় থেকে নামবে বলা মুশকিল। তাই দেখা যায়, কোনো কোনো ছাত্রনেতা ছাত্রত্ব ধরে রাখতে সন্ধ্যাকালীন বাণিজ্যিক কোর্সে ভর্তি হয়ে থাকেন। ছাত্র তাদের থাকতেই হবে। কার কী মত তাতে তাদের কিছুই যায় আসে না।

শিক্ষার্থী ও ছাত্ররাজনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, ছাত্রদলের নেতৃত্বে ‘অছাত্ররা’ থাকায় শিক্ষার্থীবান্ধব কর্মসূচি দেখা যায় না। ছাত্রদলে লেজুড়বৃত্তির রাজনীতির চর্চা থাকায় ছিটকে পড়ছে মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ছাত্রত্ব শেষ হয়েছে দীর্ঘ ১২ বছর আগে। তাদের বয়স ৩৫ বছরের বেশি। সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ২০০৩-০৪ সেশনের শিক্ষার্থী। তিনি তথ্যবিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিভাগে সান্ধ্য কোর্সে ভর্তি রয়েছেন।

ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের ২০০৫-০৬ সেশনের শিক্ষার্থী। তবে এখন তিনি কোথাও ভর্তি নেই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আকতার হোসেন ২০০৭-০৮ শিক্ষাবর্ষের ও সদস্য সচিব আমানউল্লাহ আমান ২০০৯-১০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। তাদের দুইজনেরই ছাত্রত্ব শেষ হয়েছে অনেক আগে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ বলেন, আমাদের দল দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে। এরপরও বয়স কমিয়ে আনার জন্য গত কেন্দ্রীয় কমিটি একটি নিয়ম করে দিয়েছে। এখন আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন কোর্সে ভর্তি রয়েছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এক উপাচার্য বলেন, ছাত্রদলের নেতৃত্বে অধ্যয়নরত ছাত্রদেরই থাকা উচিত। যারা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস করে তারাই শিক্ষার্থীদের স্বার্থ নিয়ে কথা বলবে। অছাত্ররা যখন নেতৃত্বে আসে তখন তাদের লক্ষ্য থাকে অন্যত্র। সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের কথা তারা ভুলে যায়।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১২:৪১ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২

ajkerograbani.com |

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]