রবিবার ২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

যেভাবে উঠে এলেন ইতালির সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | প্রিন্ট

যেভাবে উঠে এলেন ইতালির সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রী জর্জিয়া মেলোনি

ইতালির প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন উগ্র ডানপন্থী দল ব্রাদার্স অব ইতালির প্রধান জর্জিয়া মেলোনি। গত রবিবারের নির্বাচনে ২৬ শতাংশ ভোট পেয়েছে তাঁর দল। অথচ ২০১৮ সালে মাত্র ৪ শতাংশ ভোট পেয়েছিল দলটি। এত অল্প সময়ের ব্যবধানে ভোটের মাঠের পটপরিবর্তনের কারণে মেলোনিকে নিয়ে আগ্রহ বেড়েছে।

১৯৭৭ সালের ১৫ জানুয়ারি ইতালির রাজধানী রোমে জন্ম হয় মেলোনির। মাত্র এক বছর বয়সে মেলোনি ও তাঁর মাকে ছেড়ে চলে যান বাবা ফ্রান্সেসকো। তিনি ছিলেন বামপন্থী আর মেলোনির মা আনা ছিলেন ডানপন্থী। জল্পনা আছে, বাবার ওপর প্রতিশোধ নিতেই তিনি ডানপন্থী রাজনীতিতে যোগ দেন। স্বামী চলে যাওয়ার পর মেলোনিকে নিয়ে বাপের বাড়ির কাছাকাছি চলে যান তাঁর মা আনা।

 

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ফ্যাসিবাদী একনায়ক বেনিতো মুসোলিনির সমর্থকরা ইতালিয়ান সোশ্যাল মুভমেন্ট (এমএসআই) নামের এক রাজনৈতিক দল গড়েন। মাত্র ১৫ বছর বয়সে সেই দলের যুব শাখায় যোগ দেন মেলোনি। পরে এমএসআইয়ের উত্তরসূরি উগ্র ডানপন্থী জাতীয় জোটের ছাত্র শাখার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। উগ্র ডানপন্থী জাতীয় জোটের প্রচারণার সময় একটি টিভি চ্যানেলকে সেদিনের ১৯ বছর বয়সের মেলোনি বলেছিলেন, ‘মুসোলিনি ছিলেন একজন ভালো রাজনীতিক। তিনি যা করেছেন, তা ইতালির জন্য করেছেন।

তবে ২০০৬ সালে জাতীয় জোট থেকে এমপি নির্বাচিত হয়ে সুর পাল্টে ফেলে মেলোনি বলেন, মুসোলিনি ‘ভুল’ করেছিলেন। বিশেষ করে জাতিগত আইন, কর্তৃত্ববাদ জারি করে ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে এডল্ফ হিটলারের জার্মানির পক্ষে যোগ দিয়ে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১:৪৭ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]