শনিবার ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইরানে বিক্ষোভে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৫৪, বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশ মোতায়েন

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২ | প্রিন্ট

ইরানে বিক্ষোভে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৫৪, বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশ মোতায়েন

ইরানে চলমান বিক্ষোভে সংঘর্ষের ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৫৪ জনে দাঁড়িয়েছে।

বুধবার (৫ অক্টোবর) অসলোভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা ইরান হিউম্যান রাইটস (আইএইচআর) – এ তথ্য জানিয়েছে। সংস্থাটির দেয়া তথ্যানুযায়ী, এখন পর্যন্ত সিস্তান-বেলুচিস্তান প্রদেশের জাহেদান শহরে সবচেয়ে বেশি ৬৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

এদিকে বিক্ষোভ দমনে বেশ কয়েকটি শহরের বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্তৃপক্ষ পুলিশ মোতায়েন করেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, উমিয়া, তাবরিজ, রাশত ও রাজধানী তেহরানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো ঘিরে দাঙ্গা পুলিশ অবস্থান নিয়েছে। গত কয়েক দিন ধরে বিক্ষোভের কেন্দ্রস্থল পরিণত হয়েছে এসব শহরের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

তেহরানের এক শিক্ষার্থী জানান, তেহরান বিশ্ববিদ্যালয় ঘিরে নিরাপত্তাবাহিনীর অনেক সদস্য অবস্থান করছে। আমি ক্যাম্পাস ছাড়তে ভয় পাচ্ছি। শিক্ষার্থীদের গ্রেফতারের জন্য অনেক পুলিশ ভ্যান বাইরে অপেক্ষা করছে।

মানবাধিকার সংস্থাগুলো জানিয়েছে, নিরাপত্তাবাহিনীর অভিযানে কয়েক হাজারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অনেকে আহত হয়েছেন। আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সঙ্গে যোগ দিয়েছে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবী মিলিশিয়া দল বাসিজ।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনীর অনেক সদস্য নিহত হয়েছে। চলমান বিক্ষোভের জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলকে দায়ী করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি।

বুধবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা মাথার হিজাব খুলে ‘খামেনি নিপাত যাক’ স্লোগান দিচ্ছেন।

রয়টার্সের পক্ষ থেকে ভিডিওটি সত্যতা স্বতন্ত্রভাবে যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

গত ১৬ সেপ্টেম্বর ২২ বছর বয়সী কুর্দি নারী মাহশা আমিনি (২২) ইরানের একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। এর আগে দেশটির কঠোর পোশাকবিধি লঙ্ঘনের দায়ে নৈতিকতা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। পুলিশের হেফাজতে থাকা অবস্থায় তিনি অজ্ঞান হয়ে কোমায় চলে গিয়েছিলেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশটিতে কঠোর পোশাকবিধি বাতিল এবং নারীদের অবাধ চলাচলের স্বাধীনতার দাবিতে বিক্ষোভ শুরু হয়।

বিক্ষোভের মধ্যে ১৭ বছরের আরেক কিশোরী নিকা শাকারামির মৃত্যুতে প্রতিবাদ জোরদার হয়েছে। টুইটারে অ্যাক্টিভিস্টরা বলছেন, আমিনির মৃত্যুর ঘটনায় বিক্ষোভে অংশ নেয়ার কারণে তেহরানে নিহত হয়েছেন শাকারামি।

কর্মকর্তারা বুধবার জানিয়েছে, শাকারামির মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। এর সঙ্গে বিক্ষোভের কোনও সম্পর্ক নেই। ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হয়েছে। কোনও গুলির আঘাতের চিহ্ন ছিল না তার মরদেহে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৬:৩২ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]