বুধবার ৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

উম্মতের প্রতি নবীজির ভালোবাসার নানা দিক

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২ | প্রিন্ট

উম্মতের প্রতি নবীজির ভালোবাসার নানা দিক

উম্মতের জন্য মহানবী (সা.)-এর ভালোবাসা ছিল পিতৃসম। তিনি সন্তানের মতোই তাদের ভালোবাসতেন। সন্তানের আনন্দে মা-বাবা যেমন আনন্দিত হন, সন্তানের কষ্টে যেমন তাঁরা কষ্ট পান, তিনিও উম্মতের আনন্দে আনন্দিত, তাদের কষ্টে ব্যথিত হতেন। পবিত্র কোরআনে নবীজি (সা.)-এর ভালোবাসার বর্ণনা এভাবে তুলে ধরা হয়েছে—‘অবশ্যই তোমাদের মধ্য থেকে তোমাদের কাছে একজন রাসুল এসেছেন। তোমাদের যা বিপন্ন করে তা তার জন্য কষ্টদায়ক। সে তোমাদের মঙ্গলকামী, মুমিনদের প্রতি সে দয়ার্দ্র ও পরম দয়ালু।’ (সুরা : তাওবা, আয়াত : ১২৮)

আল্লামা সাদি বলেন, ‘রাসুলুল্লাহ (সা.) ছিলেন উম্মতের প্রতি অত্যন্ত দয়াশীল ও স্নেহপরায়ণ। এমনকি তাদের মা-বাবার চেয়েও বেশি। এ জন্য নবীজি (সা.)-এর অধিকার সব কিছুর ঊর্ধ্বে এবং তাঁর প্রতি ঈমান আনা, তাঁকে সম্মান জানানো এবং তাঁকে ভালোবাসা আবশ্যক।’ (তাফসিরে সাদি)

 

ভালোবাসার নানা দিক

উম্মতের প্রতি মহানবী (সা.)-এর ভালোবাসা নানাভাবে প্রকাশ পেয়েছে। এখানে কয়েকটি দিক তুলে ধরা হলো—

১. প্রতি নামাজে দোয়া : রাসুলুল্লাহ (সা.) প্রতি নামাজে উম্মতের পাপমুক্তির দোয়া করতেন। তিনি বলতেন, ‘হে আল্লাহ! আপনি আমার উম্মতের আগে ও পরের এবং প্রকাশ্য ও অপ্রকাশ্য সব গুনাহ ক্ষমা করে দিন।’ (সহিহ ইবনে হিব্বান, হাদিস : ৭১১১)

 

২. উম্মতের জন্য সুপারিশ : কিয়ামতের দিন মহানবী (সা.) উম্মতের জন্য সুপারিশ করবেন এবং তাঁর সুপারিশে বহু পাপী বান্দার মুক্তি মিলবে। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ বলেন, প্রত্যেক নবীর জন্য একটি বিশেষ দোয়া আছে, যা কবুল হবে। এর মধ্যে সবাই তাঁদের দোয়া পৃথিবীতেই করেছেন। আর আমার দোয়াটি কিয়ামত দিবসে আমার উম্মতের জন্য গোপন রেখে দিয়েছি। আমার উম্মতের যে ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছে অথচ কোনো প্রকার শিরক করেনি সে ইনশাআল্লাহ আমার এই দোয়া পাবে। (সহিহ মুসলিম, হাদিস : ৩৭৯)

৩. উম্মতের প্রতি মমতা : উম্মতের প্রতি প্রিয় নবী (সা.)-এর চূড়ান্ত কল্যাণকামিতা ও নিখাদ ভালোবাসা নিম্নোক্ত হাদিসে প্রকাশ পায়। তিনি বলেছেন, আমার ও লোকদের উদাহরণ এমন লোকের মতো, যে আগুন জ্বালাল আর যখন তার চারদিক আলোকিত হয়ে গেল, তখন পতঙ্গ ও ওই সব প্রাণী যেগুলো আগুনে পোড়ে, তারা তাতে পুড়তে লাগল। তখন সে সেগুলোকে আগুন থেকে ফেরানোর চেষ্টা করল। কিন্তু সেগুলোকে আগুন পরাজিত করল এবং আগুনে পতিত হলো। (তেমনি) আমিও তোমাদের কোমর ধরে আগুন থেকে বাঁচানোর চেষ্টা করছি। কিন্তু তোমরা তাতেই পতিত হচ্ছ। (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৬৪৮৩)

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৮:৩২ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]