মঙ্গলবার ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

তেলাপোকা পা দিয়ে পিষে মারলে যে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০২২ | প্রিন্ট

তেলাপোকা পা দিয়ে পিষে মারলে যে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকি

সবার বাড়িতেই কম বেশি তেলাপোকা থাকে। ঐ তেলাপোকা হঠাৎ চোখের সামনে দেখলেই পা দিয়ে পিষে মেরে ফেলার কথাই হয়ত সবার আগে মাথায় আসবে। তবে চিকিৎসা বিজ্ঞান কিন্তু মোটেও এটিকে সমর্থন করে না। কারণ এতে স্বাস্থ্যের ঝুঁকি রয়েছে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পা দিয়ে তেলাপোকা পিষে ফেলার ফলে মানবদেহে ক্ষতিকর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার উদ্রেক হতে পারে। তাছাড়া, তেলাপোকাকে পা দিয়ে পিষে ফেললে তাদের অবশিষ্টাংশ থেকে পরিবেশে ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

শ্বাস-প্রশ্বাসের সঙ্গে এই ব্যাকটেরিয়াগুলো শরীরে প্রবেশ করলে অ্যাজমা এবং অ্যালার্জির সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। তাই পিষে ফেলা তেলাপোকার আশে শ্বাস-প্রশ্বাসের সময়ে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।

তেলাপোকার মাধ্যমে সৃষ্ট রোগবালাই সম্পর্কে ডব্লুএইচও বিশেষ গুরুত্বারোপ করেছে। পিষে ফেলা তেলাপোকা থেকে স্যালমোনেলা, স্ট্রেপটোকক্কাই এবং স্ট্যাফিলোকক্কাইয়ের মতো ব্যাক্টেরিয়া জীবাণু মানুষের শরীরে সংক্রমিত হতে পারে। মানবদেহের অন্ত্রে থেকে এই ব্যাক্টেরিয়াগুলো ডায়রিয়া, কলেরা, টাইফয়েড এবং আমাশয়সহ বিভিন্ন রোগ সৃষ্টি করতে পারে।

অনেকের ধারণা, পা দিয়ে তেলাপোকা পিষে মেরে ফেলায় বুঝি বিপদ থেকে বাঁচা গেল। তবে এই ধারণা একদমই অমূলক। কারণ তাজা ক্ষত নিয়েও তেলপোকার পক্ষে বেঁচে থাকা সম্ভব। মনে রাখতে হবে, তেলাপোকার জীবন কই মাছের প্রাণ। পা দিয়ে পিষে ফেললেও তারা মৃতের ভান ধরে পড়ে থাকতে পারে। বিপদ কেটে যাওয়া মাত্র তারা ক্ষতবিক্ষত শরীর নিয়ে যে কোনো জায়গায় লুকিয়ে পড়তে পারে।

তেলাপোকা প্রাণীটি আকারে ছোট হলেও তাদের অবজ্ঞা করা উচিত না। পতঙ্গ বিশেষজ্ঞদের মতে, তেলাপোকা গড়ে নিজের ওজনের ৯০০ গুণ পর্যন্ত ভারি জিনিস বহন করতে সক্ষম। তাই আশেপাশে মরে যাওয়া তেলাপোকাকে নড়াচড়া করতে দেখলে ভীত হওয়ার কিছু নেই। তারা জীবন্ত তেলাপোকাই, ভুতুড়ে কোনো জীব না।

স্প্যানিশ পত্রিকা এবিসিকে পতঙ্গবিদ এবং কীট নিয়ন্ত্রণ বিশেষজ্ঞ রায়ান স্মিথ বলেন, তেলাপোকার অভিযোজন ক্ষমতা মারাত্মক। তাই অন্যান্য অনেক প্রাণীর চেয়ে তেলাপোকার বেঁচে থাকার প্রবণতাও তুলনামূলক বেশি। শরীরের নমনীয়তার কারণে তেলাপোকা দেহের শক্তি পায়ে সঞ্চালন করে বিপজ্জনক পরিস্থিতি থেকে পালাতে পারদর্শী। খাবার ছাড়াও তেলাপোকার পক্ষে অনেকদিন বেঁচে থাকা সম্ভব। এমনকি ক্ষতবিক্ষত হয়েও ছয় পা বিশিষ্ট প্রাণীরা ব্যাকটেরিয়া ছড়াতে সক্ষম।

তাই সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে তেলাপোকাকে পা দিয়ে পিষে মেরে ফেলা অনুচিত। তেলাপোকা দমনে ফিউমিগেশন ধোঁয়া কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। বাড়ির কোথাও তেলাপোকা দেখলে ফিউমিগেশন পদ্ধতি ব্যবহার করবেন। এতে করে তেলাপোকা কার্যকরীভাবে মারা যাবে। তবে এক্ষেত্রে বাড়ির দরজা-জানালা অবশ্যই বন্ধ রাখতে হবে।

সূত্র: এমএসএন

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৭:২৫ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২৬ অক্টোবর ২০২২

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]