শনিবার ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়ায় আবারও চালু হচ্ছে ফেরি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বুধবার, ০৯ নভেম্বর ২০২২ | প্রিন্ট

মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়ায় আবারও চালু হচ্ছে ফেরি

প্রায় চার বছর পর মুন্সীগঞ্জ-গজারিয়া মেঘনা নৌরুটে আবারও ফেরি চালু হচ্ছে বুধবার (০৯ নভেম্বর)। বেলা ১১টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ফেরি সার্ভিস পুনরায় চালু হচ্ছে। তিনটি ফেরি প্রস্তুত রাখা ছাড়াও এরই মধ্যে দুই পাড়ের ঘাট স্থাপন ও ড্রেজিং করে ফেরি রুট সচল করা হয়েছে। ফেরি ‘কর্ণফুলী’, ‘স্বর্ণচাপা’ ও ‘সন্ধ্যা মালতি’ সাজিয়ে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। আর ফেরি চালুর খবরে এলাকায় বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ।

স্থানীয়রা বলছেন, ফেরি চালু হলে এলাকার উৎপাদিত কৃষিপণ্য দ্রুত বাজারজাত এবং আর্থসামাজিক অবস্থার যুগান্তকারী পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে মেঘনা পারাপারে ফেরি ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে।

ট্রাকপ্রতি ভাড়া ৮৪০ টাকা, মাঝারি ট্রাক টাক ৭০০ টাকা, মিনি ট্রাক ৪৯০, প্রাইভেটকার ৩৫০, মাইক্রোবাস ৪২০, জিপ ৪০০, বড় বাস ১২০০, মিনিবাস ৮১০, মোটরসাইকেল ৬০ ও যাত্রীপ্রতি ভাড়া ১৫ টাকা। ফেরির দূরত্ব ধরা হয়েছে প্রায় ৪ কিলোমিটার।

বিআইডব্লিউটিসির এজিএম মো. সফিকুল ইসলাম জানান, প্রথম পর্যায়ে তিনটি ফেরি আনা হলেও চাহিদা অনুযায়ী বহরে ফেরি সংখ্যা বৃদ্ধি হবে।

বিআইডব্লিউটিসি সূত্র জানায়, আগে খুব কম গাড়ি যাতায়াত করত সে জন্যই ফেরি বন্ধ হয়েছিলো, এখন আবার স্থানীয় জনগণের চাহিদা বেড়েছে। জনগণের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতেই আবারও ফেরি চালু হচ্ছে।
মেঘনা নদীর গজারিয়া অংশ কাজিপুরা ও মুন্সীগঞ্জ অংশের চর-কিশোরগঞ্জ পাড়ে ঘাট নির্মাণ হয়েছে। নতুন করে ফেরি সার্ভিস চালু প্রস্তুতিতে উচ্ছ্বসিত মেঘনার দুপারের মানুষ।

স্থানীয়া জানান, মেঘনা নদীতে বিচ্ছিন্ন গজারিয়া উপজেলায় যাতায়াতে প্রতিদিন ভোগান্তি আর ঝুঁকি নিয়ে উত্তাল নদী পারি দিতে হয় যাত্রীদের। মানুষজন পারাপার করতে পারলেও ফেরি না থাকায় পারাপার হতো না কোনো যানবাহন। ৭ কিলোমিটার দূরত্বের সদর উপজেলায় সড়কপথে আসতে হয় নারায়ণগঞ্জ হয়ে অর্ধশত কিলোমিটার পথ পারি দিয়ে। ফেরি চালু হলে যাতায়াতের ঝক্কি ও দুর্ভোগ এড়িয়ে পারাপার করা যাবে। এ ছাড়া ফেরি চালু হলে এ অঞ্চলের ব্যবসা-বাণিজ্যসহ আশপাশের আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখবে।

এর আগে গত ২০১৮ সালের জুনে ভিডিও কনফারেন্সে এই নৌরুটে ফেরি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কিন্তু দুই পাড়ের যাতায়াতের সড়কের বেহাল দশা, যানবাহন সংকটসহ নানা প্রতিকূলের মুখে কয়েক মাস না যেতেই বন্ধ হয়ে যায় সার্ভিসটি। এরপর সরিয়ে নেয়া হয় ঘাটের পন্টুন।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৪:৫৩ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ০৯ নভেম্বর ২০২২

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]