সোমবার ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে নিথর স্ত্রীও

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ১০ নভেম্বর ২০২২ | প্রিন্ট

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে নিথর স্ত্রীও

বুধবার রাত তখন ১২টা। কর্মস্থল থেকে বাসায় আসেন মো.আলী। কিন্তু গেট বন্ধ থাকায় ওপরের চারতলার বারান্দা দিয়ে বাবা আলীকে চাবি ছুড়ে মারেন ইসমাইল। কিন্তু সেই চাবি গিয়ে পড়ে বাহিরে থাকা বিদ্যুতের তারের ওপর। পরে ইসমাইল চারতলার বারান্দায় দাঁড়িয়ে লোহার পাইপ দিয়ে চাবিটি নিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। ওই সময় চিৎকার শুনে তাকে বাঁচাতে স্ত্রী কাজল এগিয়ে এলে তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এতে গুরুতর আহন হন তারা। পরে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

বুধবার রাত ১২টার দিকে কেরানীগঞ্জ সুমন হাউজিং এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃতরা হলেন- ২০ বছরের ইসমাইল মো. আলীর ছেলে ও তার স্ত্রী ১৮ বছরের মোসাম্মৎ কাজল আক্তার। মাত্র দেড় মাস আগে তাদের বিয়ে হয়েছিল বলে জানা গেছে। তারা কেরানীগঞ্জ আমবাগান এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা। বর্তমানে আটিবাজার সুমন হাউজিং এলাকায় একটি বাসার চারতলায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন তারা।

মৃতের বাবা মো. আলী বলেন, রাত ১২টার দিকে কর্মস্থল থেকে বাসায় ফিরে দেখি নিচের গেট বন্ধ। পরে ওপরের চারতলার বারান্দা দিয়ে আমার ছেলে চাবি ছুড়ে মারার সময় সেই চাবি গিয়ে বাহিরে থাকা বিদ্যুতের তারের ওপরে পড়ে। পরে আমার ছেলে চারতলার বারান্দায় দাঁড়িয়ে একটি লোহার পাইপ দিয়ে চাবিটি নিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। ওই সময় সে চিৎকার দিলে তাকে বাঁচাতে এসে তার স্ত্রী কাজলও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। পরে উভয়কেই হাসপাতালে নিলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ক্যাম্প (ইনচার্জ) ইন্সপেক্টর বাচ্চু মিয়া জানান, এ ঘটনা একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হবে। স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৪:৩৬ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১০ নভেম্বর ২০২২

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]