মঙ্গলবার ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লাল শাকের উপকারিতা 

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২ | প্রিন্ট

লাল শাকের উপকারিতা 

রঙিন শাকসবজিতে প্রচুর পরিমাণে খনিজ ও অন্যান্য পুষ্টিগুণ থাকে। তার মধ্যে একটি হলো লাল শাক। প্রতি ১০০ গ্রাম লাল শাকে আছে, প্রোটিন ৫.৩৪ মিলিগ্রাম, ক্যালসিয়াম ৩৭৪ মিলিগ্রাম, স্নেহপদার্থ ০.১৪ মিলিগ্রাম, শর্করা ৪৯৬ মিলিগ্রাম, অ্যামাইনো অ্যাসিড, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাশিয়াম, আঁশ জাতীয় উপাদান, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, নানান ভিটামিন – ভিটামিন এ, ভিটামিন বি২, ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, ক্যারোটিন, আয়রন ও অন্যান্য খনিজ পদার্থ।

লাল শাকের উপকারিতা

রক্তশূন্যতায়
অনেকেই অ্যানিমিয়া বা রক্তাল্পতা বা রক্তশূন্যতায় ভোগেন। কারণ আয়রনের ঘাটতি। সে ক্ষেত্রে লাল শাক খেলে শরীরে রক্ত তৈরি হয়। কারণ এতে আছে প্রচুর পরিমাণে আয়রন। ফলে লাল শাক শরীরে লোহিত রক্ত কণিকা বা হিমোগ্লোবিন বাড়ায়।

মধুমেহ রোগে
এর পুষ্টিগুণ মধুমেহ রোগ বা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

দাঁত ও হাড়ে
অন্য শাকের তুলনায় লাল শাকে ভিটামিন সি, ক্যালসিয়ামের পরিমাণ বেশি। শরীরের জন্য যেমন দাঁত এবং হাঁড় গঠনে ভিটামিন সি ও ক্যালসিয়াম অত্যন্ত দরকারি উপাদান। দাঁতের সুস্থতা বৃদ্ধিতে, হাঁড় শক্ত করতে সাহায্য করে।

মায়েদের জন্য
গর্ভবতী মা এবং প্রসূতি মায়েদের ক্ষেত্রে লাল শাক খুবই ভালো। কারণ এর ক্যালসিয়াম ও অন্যান্য উপাদান মায়ের শরীর সুস্থ রাখে ও গর্ভজাত ও সদ্যোজাত শিশুর দৈনিক পুষ্টি ও ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণ করে ও তাদের শরীর গঠন করে।

দৃষ্টির জন্য
প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি থাকে লাল শাকে। চোখের দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি করতে ও ভালো রাখতে সাহায্য করে। এতে থাকা ভিটামিন এ রেটিনার কার্যক্ষমতা বাড়ায়। রাতকানা রোগ দূর করে ভিটামিন এ। তাই লাল শাক খাওয়া উপকারী।

রোগা হতে
ওজন বেশি থাকলে নিয়মিত লাল শাক খাওয়া ভালো। এতে ক্যালোরির পরিমাণ কম। তাই ওজন বৃদ্ধি হতে দেয় না। উলটে ওজন হ্রাস করে।

হজমশক্তি বাড়াতে
লাল শাকে থাকা ফাইবার বা আঁশজাতীয় পদার্থ হজমে সাহায্য করে। ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে
অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্যান্সার প্রতিরোধ করে। লাল শাকে থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এতে থাকে অ্যামাইনো অ্যাসিড, ফসফরাস, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম এবং ভিটামিন সি, ভিটামিন ই। এই উপাদানগুলো শরীরের একাধিক টক্সিক উপাদান দূর করে। তাতে ক্যানসারস কোষ জন্মানোর আশঙ্কা কম হয়।

কিডনির জন্য
কিডনির কাজকর্ম ভালো রাখতে এটি উপকারী। কিডনি পরিষ্কার রাখতে লাল শাক খুব ভালো কাজ করে। রক্তে উপস্থিত একাধিক ক্ষতিকর উপাদান শরীর থেকে বের করে দেয়।

চুলের জন্য
চুল পড়া কম করে। চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। চুলের বৃদ্ধিও তরান্বিত করে। পাশাপাশি চুলের গোড়া মজবুত করতে ও চুলে প্রয়োজনীয় খনিজ ও পুষ্টি যোগাতে সাহায্য করে লালশাক।

হৃদরোগ ঠেকায়
লাল শাক রক্তে কোলেস্টরলের মাত্রা স্বাভাবিক রাখতে পারে। পাশাপাশি এর বিটা ক্যারোটিন হৃদরোগের আশঙ্কা কমায়। হৃদপিণ্ডকে শক্তিশালী করতেও লাল শাক ভালো।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:১৯ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

দেহাতি চিকেন
(210 বার পঠিত)
advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]