সোমবার ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

অবৈধভাবে দেদারছে যমুনার বালু বিক্রি

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২৩ | প্রিন্ট

অবৈধভাবে দেদারছে যমুনার বালু বিক্রি

টাঙ্গাইলের ভুঞাপুর উপজেলায় যমুনায় জেগে উঠা চরাঞ্চলের ফসলি জমি থেকে অবৈধভাবে বালু বিক্রি করা হচ্ছে।

ফসলি জমির মালিকদের জিম্মি করে জেগে ওঠা জমিতে ভেকু বসিয়ে দিন-রাত অবাধে অবৈধভাবে ভেকু দিয়ে বালু কেটে দেদারছে বিক্রি করছে ভুঞাপুর উপজেলার গাবসারা ইউপির জাহিদুল ইসলাম খোকা। ফলে সরকার হারাচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব।

স্থানীয়রা জানান, প্রশাসন মাঝেমধ্যে বালু কাটা বন্ধে লোক দেখানো অভিযান পরিচালনা করলেও পরক্ষণেই আবার শুরু হয় বালু কেটে বিক্রির মহাযজ্ঞ। এই অপরিকল্পিত বালু কাটার ফলে বর্ষাকালে নদীর তীরবর্তী এলাকাগুলোতে ব্যাপক ভাঙন দেখা দেয়। এতে প্রতি বছর বিলীন হয় ফসলি জমি, বসতভিটা, ঘরবাড়ি, মসজিদ-মন্দির, সড়ক, স্কুলসহ নানা স্থাপনা।

সেই সময় ভাঙনরোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড জিওব্যাগ ফেললেও ভাঙন রোধ করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। ফলে মাটি কেটে বিক্রির কারণে হুমকির মুখে রয়েছে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব-ভূঞাপুর সড়কের গোবিন্দাসী কুকরাইদ পর্যন্ত সেতু রক্ষা বাঁধ, বঙ্গবন্ধু গাইড বাঁধ ও ভূঞাপুর-তারাকান্দি মহাসড়ক।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার গাবসারা ইউপির জিগাতলা এলাকায় যমুনায় কয়েক একর চর জেগে ওঠেছে। কৃষক সেই জেগে ওঠা চরে বাদাম, তিলসহ নানা ফসল রোপণ করছেন। সেই ফসলী জমিতে জোরপূর্বক ৩ টি ভেকু বসিয়ে দেদারছে মাটি কাটছে জাহিদুল ইসলাম খোকা ও তার ভাতিজা বাবু।

খোকা স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে আাঁতাত করে এ বালু ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। এলাকায় তিনি প্রভাবশালী হওয়ায় তার এই অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়না।

জিগাতলা এলাকার ভুক্তভোগী জামাল উদ্দিন, আকবর মিয়া, নুরে আলমসহ অনেকেই জানান, যমুনায় জেগে ওঠা চরে নানান ফসল আবাদ করে নিজেদের চাহিদা মিটাচ্ছি। সেই ফসলি জমির মধ্যে ভেকু বসিয়ে জোরপূর্বক মাটি কাটছে খোকা এবং তার সহযোগিরা। এ কাজের প্রতিবাদ করলে মারপিটসহ মিথ্যা মামলার ভয় দেখায়।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক জমির মালিক জানান, কালা খোকা স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আঁতাত করে এ মাটি কেটে বিক্রি করছেন।

বালু ব্যবসায়ী জাহিদুল ইসলাম খোকার কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি ময়মনসিংহে আছি। এখন কথা বলার সময় নেই। এ কথা বলেই লাইন কেটে দেন।

ভুঞাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. বেল্লাল হোসেন জানান, এরইমধ্যে এই অবৈধ বালুঘাটে অভিযান চালানো হয়েছে। প্রয়োজনে আবারো অভিযান পরিচালনা করা হবে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:০৮ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]