মঙ্গলবার ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩ | প্রিন্ট

ঘরের মাঠে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে এক ম্যাচ হাতে রেখেই টি-২০ সিরিজ নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০তে আইরিশদের ৭৭ রানে হারিয়েছে টাইগাররা। এতে সিরিজের ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল সাকিব আল হাসানের দল।

কার্টেল ওভারের ম্যাচে নির্ধারিত ১৭ ওভারে তিন উইকেটে ২০২ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। রান তাড়ায় নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৫ রান সংগ্রহ করে আয়ারল্যান্ড।

বল হাতে ইনিংসের প্রথম বলেই স্বাগতিকদের আনন্দে ভাসান তাসকিন আহমেদ। আইরিশ অধিনায়ক পল স্টার্লিংকে লিটন দাসের ক্যাচ বানিয়ে গোল্ডেন ডাকের স্বাদ দেন তিনি। পরের গল্পটা শুধুই সাকিবময়।

নিজের প্রথম বলেই উইকেটের দেখা পান সাকিব। ৬ রান করা লরকান টাকারকে ফেরান টাইগার কাপ্তান। নিজের দ্বিতীয় ওভারে আরো দুই উইকেট নেন তিনি। এবার ফেরান রস আদাইর (৬) ও গ্যারেথ ডিলানিকে (৬)।

এরপর আরো দুইবার উইকেট শিকারের আনন্দে মাতেন সাকিব। পাঁচ উইকেট শিকারের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক টি-২০তে এককভাবে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারির রেকর্ডও গড়েন তিনি। পেছনে ফেলেন নিউজিল্যান্ডের টিম সাউদিকে।

ইনিংসের ১০.২ ওভারে উইকেট শিকারির তালিকায় যোগ দেন হাসান মাহমুদও। উইকেটের পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা লিটন দাসের তালুবন্দী করে মার্ক আদাইরকে ফেরান তিনি। সাজঘরে ফেরার আগে ৬ বলে ১১ রান করেন এ ব্যাটার। পরে ২ রান করা ফিওন হ্যান্ডকে ফেরান তাসকিন আহমেদ।

এরপর বেন হোয়াইটকে নিয়ে ইনিংস এগিয়ে নিতে থাকেন গ্রাহাম হিউম। তারা দু’জনেই যথাক্রমে ২ ও ২০ রানে অপরাজিত থাকেন। তবে নির্ধারিত ১৭ ওভারে ১২৫ রান করে আইরিশরা।

এর আগে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসটা হয়েছিল ঠিক সময়েই। যেখানে জয়লাভ করে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন আইরিশ অধিনায়ক পল স্টার্লিং। টস শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই নেমে আসে বৃষ্টি। দুই দফা বৃষ্টির পর ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে আসে ১৭ ওভারে।

বাংলাদেশের হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন লিটন দাস ও রনি তালুকদার। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকে দুজন। সে ধারাবাহিকতায় পাওয়ার প্লে-র চতুর্থ ওভারেই দলীয় ফিফটি পূরণ করে টাইগাররা।

আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে মাত্র ১৮ বলে অর্ধশতক পূরণ করেন লিটন দাস। যা দেশের টি-২০ ইতিহাসে দ্রুততম। তিনি পেছনে ফেলেছেন মোহাম্মদ আশরাফুলকে। যিনি ২০ বলে অর্ধশতক করে এতদিন রেকর্ডটি নিজের করে রেখেছিলেন।

অষ্টম ওভারের প্রথম বলে দলীয় শতকের দেখা পায় বাংলাদেশ। মাত্র ৪৩ বলে রানের সেঞ্চুরি পূরণ হয় টাইগারদের, যা নিজেদের টি-২০ ইতিহাসে দ্রুততম। দুজনের ব্যাটে এ ফরম্যাটে সর্বোচ্চ ওপেনিং জুটির দেখাও পায় লাল-সবুজরা।

বেন হোয়াইটের বলে লং অনে মার্ক আদাইরের তালুবন্দী হন রনি। তিনি ৪৪ রানে ফেরার মাধ্যমে শেষ হয় দুজনের ১২৪ রানের জুটি। তিনি থামলেও আপন গতিতে ছুটছিলেন লিটন। ছিলেন ক্যারিয়ারের প্রথম টি-২০ সেঞ্চুরির পথে।

দ্বাদশ ওভারের শেষ বলে বেন হোয়াইটের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন লিটন। লরকান টাকারের হাতে ধরা পড়ার আগে ৪১ বলে ৮৩ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ১০টি চার ও তিনটি ছক্কার মার।

ইনিংসের শেষটা এগিয়ে নেন সাকিব আল হাসান ও তাওহিদ হৃদয়। শেষ ওভারে ২৪ রানে হৃদয় ফিরলে ভাঙে দুজনের ৬১ রানের জুটি। সাকিব ৩৮ রানে অপরাজিত থাকেন। আইরিশদের হয়ে বেন হোয়াইট দুটি ও মার্ক আদাইর একটি উইকেট নেন।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ২:৩৬ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]