মঙ্গলবার ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উত্তাল সমুদ্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তাইপে: চীন

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৩ | প্রিন্ট

উত্তাল সমুদ্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তাইপে: চীন

তাইওয়ানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোসেফ উ অভিযোগ করেছেন, তাঁর দেশের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন। তাইওয়ানের চারপাশে সম্প্রতি শেষ হওয়া তিন দিনের বড় ধরনের সামরিক মহড়া দেখে চীনের এ অভিপ্রায় বোঝা গেছে। সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেছেন। মঙ্গলবার সাক্ষাৎকারটি প্রকাশ করা হয়েছে।জোসেফ উ বলেন, চীনের সামরিক মহড়ার দিকে দেখুন, চীনা নেতৃত্বের বক্তৃতাগুলো শুনুন, দেখেশুনে মনে হচ্ছে, তারা তাইওয়ানের বিরুদ্ধে একটি যুদ্ধ শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছে। আন্তর্জাতিক বিরোধ মোকাবিলায় জাতিসংঘ সনদের মূল ভিত্তি শান্তিপূর্ণ কৌশল অবলম্বন। কিন্তু চীন সেই পথে হাঁটছে না। তাইওয়ান ও চীনের মধ্যকার বিরোধে বেইজিং জবরদস্তি, সামরিক হুমকি এবং শক্তি প্রয়োগের পথ বেছে নিয়েছে। তাইওয়ানের কাছে এই কৌশল সমালোচিত ও অগ্রহণযোগ্য।

 

শেষ পর্যন্ত চীন যুদ্ধ শুরু করলে আত্মরক্ষার জন্য তাইওয়ানের কাছে পর্যাপ্ত অস্ত্র আছে কিনা, এ প্রশ্নের জবাবে জোসেফ বলেন, বহু বছর ধরেই যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে অস্ত্র কিনছে তাইওয়ান। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসন তাইওয়ানকে অস্ত্রের ৯টি চালান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। তাইওয়ান সামরিক প্রশিক্ষণ বাড়িয়েছে। এ পরিস্থিতিতে অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জামের চেয়ে দৃঢ়তা বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

সতর্ক করে তিনি বলেন, তাইওয়ানে যুদ্ধ শুরু হলে বিশ্ব অর্থনীতিতে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। এমন ধ্বংসাত্মক উদ্যোগ না নেওয়ার জন্য চীনকে চাপ দিতে হবে। এ জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একযোগে এগিয়ে আসতে হবে।

এদিকে তাইওয়ান ‘উত্তাল সমুদ্রের’ দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছে চীন। এশিয়ার পরাশক্তি এই দেশটির দাবি, প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন তাইওয়ানকে ‘উত্তাল সমুদ্রের’ দিকে ঠেলে দিচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভের স্পিকার কেভিন ম্যাকার্থির সঙ্গে প্রেসিডেন্ট সাইয়ের বৈঠকের প্রতিক্রিয়ায় অনুষ্ঠিত সামরিক মহড়ার পর চীন এই মন্তব্য করল। গতকাল রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

অবশ্য প্রেসিডেন্ট সাইকে চীন বিচ্ছিন্নতাবাদী হিসেবে দেখে থাকে এবং আলোচনার জন্য সাইয়ের পক্ষ থেকে বারবার আহ্বান জানানো হলেও বেইজিং তা প্রত্যাখ্যান করে এসেছে। সাই বলেছেন, তিনি শান্তি চান; কিন্তু তাইওয়ানে আক্রমণ হলে তাঁর সরকার ভূখণ্ডকে রক্ষা করবে। চীনের তাইওয়ান অ্যাফেয়ার্স অফিসের (টিএও) মুখপাত্র ঝু ফেংলিয়ান বুধবার বলেছেন, সাই ইং-ওয়েন তাইওয়ানের জন্য বিপদ ডেকে এনেছেন। তাইওয়ানকে উত্তাল সমুদ্রে ঠেলে প্রায় সম্পূর্ণভাবে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ নিয়েছিলেন সাই ইং-ওয়েন।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:৫৩ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৩

ajkerograbani.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

(264 বার পঠিত)
(208 বার পঠিত)
advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক ও প্রকাশক
মুহা: সালাহউদ্দিন মিয়া
সম্পাদকীয় কার্যালয়

২ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ সরণি, মগবাজার, ঢাকা-১২১৭। সম্পাদক কর্তৃক তুহিন প্রেস, ২১৯/২ ফকিরাপুল (১ম গলি), মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত ও প্রকাশিত।

ফোন : ০১৯১৪৭৫৩৮৬৮

E-mail: [email protected]